নরসিংদী জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নরসিংদী
জেলা
বাংলাদেশে নরসিংদী জেলার অবস্থান
বাংলাদেশে নরসিংদী জেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°৫৫′উত্তর ৯০°৪৪′পূর্ব / ২৩.৯২° উত্তর ৯০.৭৩° পূর্ব / 23.92; 90.73স্থানাঙ্ক: ২৩°৫৫′উত্তর ৯০°৪৪′পূর্ব / ২৩.৯২° উত্তর ৯০.৭৩° পূর্ব / 23.92; 90.73
দেশ  বাংলাদেশ
বিভাগ ঢাকা বিভাগ
আয়তন
 • মোট ১১১৪.২০ কিমি (৪৩০.২০ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (2007)
 • মোট ২০,৪২,৩০১[১]
স্বাক্ষরতার হার
 • মোট ৪৫%
সময় অঞ্চল বিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইট জেলা তথ্য বাতায়ন


নরসিংদী জেলা বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলের ঢাকা বিভাগের একটি প্রশাসনিক অঞ্চল।

ভৌগোলিক সীমানা[সম্পাদনা]

মেঘনা, শীতলক্ষ্যা, আড়িয়াল খাঁ ও পুরাতন ব্রক্ষ্মপুত্র নদীর তীর বিধৌত জেলা নরসিংদী। জেলাটির আয়তন ১,১১৪.২০ বর্গ কি:মি:। এ জেলাটি বাংলাদেশের মধ্য পূর্বাংশে অবস্থিত। এটি ২৩°৪৬’ হতে ২৪°১৪’ উত্তর অক্ষরেখা এবং ৯০°৩৫’ ও ৯০°৬০’ পূর্ব দ্রাঘিমার মধ্যে অবস্থিত। এ জেলার উত্তরে কিশোরগঞ্জ, পূর্বে ব্রাহ্মণবাড়িয়া, দক্ষিণে নারায়ণগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং পশ্চিমে গাজীপুর জেলা অবস্থিত।

এলাকা সংক্রান্ত তথ্য[সম্পাদনা]

আয়তন ৩,৩৬০.৫৯ বর্গ কি:মি:
উপজেলার সংখ্যা ৬ টি
পৌরসভার সংখ্যা ৬ টি
ইউনিয়নের সংখ্যা ৭১ টি
গ্রামের সংখ্যা ১০৯৫ টি
মৌজার সংখ্যা ৬২৪ টি (আরএস)
হাটবাজারের সংখ্যা ১০৪ টি
জলমহালের সংখ্যা ১১২ টি
মোট ভূমির পরিমান ২,৭৫,৩৩৩ একর
ভোটার সংখ্যা ১৩,৪৭,০২৩ জন (২০১৪ হালনাগাদ)

পুরুষ-৬,৬৫,৭৯০ জন

মহিলা-৬,৮১,২৩৩জন

ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৩৮১ টি
নির্বাচনী এলাকা (জাতীয় সংসদ) ৫ টি
শস্য নিবিড়তা ১৯৬%
খাদ্য উৎপাদন উদ্বৃত্ত ২৩৬৫ মে:টন
জন্ম হার ১.২৭%
মৃত্যু হার ০.৩৮%

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

জনসংখ্যা = ২২,২৪,৯৪৪ জন (২০১১ সালের আদমশুমারী অনুযায়ী)।

প্রতি ব:কি:মি: লোকসংখ্যা= ১৬৫৮ জন

শিক্ষা[সম্পাদনা]

শিক্ষার হার ৪৫%
প্রাথমিক বিদ্যালয় ৭৪৬ টি
মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১৩৬
নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৩৯ টি
পি টি আই ০১ টি
কারিগরী বিদ্যালয় ১৬ টি
কলেজ ৩৬ টি

এখানকার প্রসিদ্ধ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে:

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

প্রাচীনকাল থেকেই নরসিংদী অর্থনীতিতে সমৃদ্ধশালি ছিল। তাত শিল্প এর প্রধান হাতিয়ার।

চিত্তাকর্ষক স্থানসমূহ[সম্পাদনা]

প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব যারা নরসিংদী জেলাকে করেছেন মহিমান্বিত

রাজনীতিক সুন্দর আলী গান্ধী, সতিশ পাকরাশী, কবিরাজ ললিত মোহন দাস, কামিনী কিশোর মল্লিক

ও বিজয় চ্যাটার্জী

সাহিত্য ও সংস্কৃতি জগতে যারা আলোকবর্তিকা প্রজ্জলিত করে চিরস্মরণীয় হয়ে রয়েছেন

কবিয়াল হরিচরণ আচার্য্য (‘কবিগুণাকর’ উপাধিতে ভুষিত), মৌলভী সেকান্দর আলী, কবি দ্বিজদাস, আধুনিক বাংলা সাহিত্যে দেশ বরেণ্য কবি শামসুর রহমান, সাহিত্যিক, প্রাবন্ধিক ও সমলোচক ড. আলাউদ্দিন আল-আজাদ, স্বাধীনবাংলা বেতার কেন্দ্রের বরনীয় শিল্পী মুক্তিযোদ্ধা আপেল মাহমুদ, গবেষক ও পবিত্র কোরআনের প্রথম বাংলা অনুবাদক ভাই গিরিশ চন্দ্র সেন , সোমেন চন্দ ।

সিভিল সার্ভিসসহ অন্যান্য পেশায় যারা স্বমহিমায় উদ্ভাসিত তারা হলেন

উপমহাদেশের প্রথম বাঙ্গালী আই সি এস স্যার কে,জি,গুপ্ত, সাবেক সচিব মোহাম্মদ আলী, সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান মো: নূরউদ্দিন খান প্রমূখ।[২]

প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব যারা নরসিংদী জেলাকে করেছেন মহিমান্বিত

রাজনীতিক সুন্দর আলী গান্ধী, সতিশ পাকরাশী, কবিরাজ ললিত মোহন দাস, কামিনী কিশোর মল্লিক

ও বিজয় চ্যাটার্জী

সাহিত্য ও সংস্কৃতি জগতে যারা আলোকবর্তিকা প্রজ্জলিত করে চিরস্মরণীয় হয়ে রয়েছেন

কবিয়াল হরিচরণ আচার্য্য (‘কবিগুণাকর’ উপাধিতে ভুষিত), মৌলভী সেকান্দর আলী, কবি দ্বিজদাস, আধুনিক বাংলা সাহিত্যে দেশ বরেণ্য কবি শামসুর রহমান, সাহিত্যিক, প্রাবন্ধিক ও সমলোচক ড. আলাউদ্দিন আল-আজাদ, স্বাধীনবাংলা বেতার কেন্দ্রের বরনীয় শিল্পী মুক্তিযোদ্ধা আপেল মাহমুদ, গবেষক ও পবিত্র কোরআনের প্রথম বাংলা অনুবাদক ভাই গিরিশ চন্দ্র সেন ।

সিভিল সার্ভিসসহ অন্যান্য পেশায় যারা স্বমহিমায় উদ্ভাসিত তারা হলেন

উপমহাদেশের প্রথম বাঙ্গালী আই সি এস স্যার কে,জি,গুপ্ত, সাবেক সচিব মোহাম্মদ আলী, সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান মো: নূরউদ্দিন খান প্রমূখ।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে জেলা"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগৃহীত ২৬ জুন, ২০১৪ 
  2. ২.০ ২.১ বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "প্রখ্যাত ব্যাক্তিত্ব"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগৃহীত ২৬ জুন, ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]