বাংলাদেশে ইসলাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

ইসলাম বাংলাদেশের প্রধান ধর্ম। বাংলাদেশে মুসলমান জনসংখ্যা প্রায় ১৪৮.৬ মিলিয়ন (১৪.৮৬ কোটি), যা বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম মুসলমান জন-অধ্যুষিত দেশ (ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তান এবং ভারতের পরে)। ২০১০ সালের আদমশুমারী অনুসারে, বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৯০.৪% মুসলমান।[১][২][৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

শাহ জালাল (রহঃ)[সম্পাদনা]

ঐতিহাসিক মসজিদসমূহ[সম্পাদনা]

  • আবু আক্কাস মসজিদ-৬৪৮
  • শাহবাজ খান মসজিদ-১৬৭৯
  • সোনা মসজিদ-১৪৯৩
  • বাঘা মসজিদ-১৫২৩
  • নয়াবাদ মসজিদ-১৭৫৫
  • খান মোহাম্মদ মৃধা মসজিদ-১৭০৩
  • ষাট গম্বুজ মসজিদ-১৫শ শতক
  • সাত মসজিদ-১৬৬৯
  • লালবাগ কেল্লা-১৬৬৪

সূফীতত্ত্বের ভূমিকা[সম্পাদনা]

১৩ শতকের শুরুতে,মুঘলদের বাংলা বিজয় উত্তর ভারতের ঘটে ১১৯২ সালে । প্রধানত মহম্মদ ঘোরী এর অভিযানের পরিণাম হিসাবে জায়গা নেয়। সৈয়দ শাহ নাসিরুদ্দিন ইরাকের ছিলেন কিন্তু ইসলাম ছড়াতে বাংলাদেশ এসেছিলেন।

মতবাদ ও মাজহাব[সম্পাদনা]

Muslims in Bangladesh[৪]
religion percent
Sunni Muslim
  
৯৪%
Shia Muslim
  
১%
Nondenominational Muslim
  
৪%
Other Muslim
  
১%

বাংলাদেশের বেশির ভাগ মুসলমান সুন্নি [20] তারা হানাফি মাযহাবের অনুসারী। এ দলের দেওবন্দী এবং বেরলভি আন্দোলন অন্তর্ভুক্ত. বিশ্ব ইজতেমা (বিশ্ব ধর্মসভা) বাংলাদেশ এবং দক্ষিণ এশিয়া জুড়ে ৫ মিলিয়ন মানুষ আকৃষ্ট, প্রার্থনা এবং ধ্যান উপর গুরুত্ত্ব দেয়, যা তাবলিগ জামাত দ্বারা বার্ষিক অনুষ্ঠিত একটি ঘটনা ।

আহলে হাদীসের [21] বৃহৎ অনুগামী বাংলাদেশে আছে। [22] আহলে হাদীস তিনটি প্রধান দল আছে, অধিকাংশ মুহাম্মদ আসাদুল্লাহ আল গালিব দ্বারা আহলে হাদীস আন্দেলন বাংলাদেশ পরিচালিত. অন্যান্য দলের জামাতে আহলে হাদীস, ও আহলে হাদীস তাবলীগ ই ইসলাম.দেশে ১৫০০ টি আহলে হাদীস মসজিদ, এবং দেশে ৫০ টি মাদ্রাসা রয়েছে. [23]

জেলা অনুযায়ী মুসলমান জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

বাংলাদেশে ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী বিভিন্ন জেলার মুসলিম জনসংখ্যা
জেলা শতকরা হার(%)
বরগুনা ৯১.০১%
বরিশাল ৮৬.১৯%
ভোলা ৯৩.৪২%
ঝালকাঠি ৮৭.৩১%
পটুয়াখালী ৯১.৪৫%
পিরোজপুর ৭৯.০১%
ঢাকা ৯২.০০%
ফরিদপুর ৮৮.০০%
গাজীপুর ৯১.৯০%
গোপালগঞ্জ ৬৩.৫১%
জামালপুর ৯৭.৭৪%
কিশোরগঞ্জ ৯২.১০%
মাদারীপুর ৮৫.৬৭%
মানিকগঞ্জ ৮৭.০০%
মুন্সীগঞ্জ ৯০.৭৮%
ময়মনসিংহ ৯৪.৭৩%
নারায়ণগঞ্জ ৯২.৫৭%
নরসিংদী ৯৩.২৮%
নেত্রকোনা ৮৩.০০%
রাজবাড়ী ৮৬.৭৩%
শরীয়তপুর ৯৫.৫৪%
শেরপুর ৯৫.০০%
টাঙ্গাইল ৯১.৫২%
চাঁদপুর ৯৯.৫৫%
চট্টগ্রাম ৮৩.৯২%
কুমিল্লা ৯৩.৮৫%
কক্সবাজার ৯২.১৩%
ফেনী ৯২.৮০%
লক্ষ্মীপুর ৯৫.৩১%
নোয়াখালী ৯৩.৪১%
ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৯০.৭৩%
বাগেরহাট ৭৭.৪৫%
চুয়াডাঙ্গা ৯৬.৭৩%
যশোর ৮৫.৫০%
ঝিনাইদহ ৮৮.০৭%
খুলনা ।৭৩.৩৯%
কুষ্টিয়া ৯৫.৭২%
মাগুরা ৭৭.৮৯%
মেহেরপুর ৯৭.৫০%
নড়াইল ৭৫.৫৬%
সাতক্ষীরা ৭৮.০৮%
বগুড়া ৯১.০০%
জয়পুরহাট ৮৮.১৮%
নওগাঁ ৮৪.৫১%
নাটোর ৯০.৪৭%
চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৯৪.২৭%
পাবনা ৯৫.১২%
রাজশাহী ৯৩.০০%
সিরাজগঞ্জ ৯২.০০%
দিনাজপুর ৭৬.৬৫%
কুড়িগ্রাম ৯১.৬৫%
লালমনিরহাট ৮৩.২০%
নীলফামারী ৮২.৬৪%
পঞ্চগড় ৮১.৭৯%
রংপুর ৮৯.৬০%
ঠাকুরগাঁও ৭৪.৯৭%
হবিগঞ্জ ৮০.২৩%
মৌলভীবাজার ৭০.৫৯%
সুনামগঞ্জ ৮৩.৬২%
সিলেট ৯২.৫৭%
খাগড়াছড়ি ৫৩.৪৫%
বান্দরবান ৪৭.৬২%
রাঙামাটি ৩৯.২৮%
বাংলাদেশ '৮৯ .৪০% '

উৎস:[৫]

ধর্মীয় স্বাধীনতা[সম্পাদনা]

ইসলামী রাজনীতি[সম্পাদনা]

১৯৭১ পরে, সরকার মানুষের ধর্মীয় জীবনের প্রতিষ্ঠানের মধ্যে তার ভূমিকা বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে. ধর্ম বিষয়ক, সমর্থন এবং মসজিদ এবং প্রার্থনা প্রতিনিধি সমাজ সহ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, আর্থিক সহায়তা মন্ত্রণালয়. মক্কা থেকে বার্ষিক তীর্থযাত্রা আয়োজন কারণ সৌদি আরব কিংডম এবং বাংলাদেশ সরকার এর নিয়ন্ত্রণমূলক বিদেশী বিনিময় নিয়ম সরকার হাজীদের সংখ্যার উপর বিধিনিষেধ মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে আসে. এ মন্ত্রণালয়ের সংগঠন এবং ইসলামী বিষয়ের উপর গবেষণা ও প্রকাশনা সমর্থনের জন্য দায়িত্বশীলযা বাংলাদেশের ইসলামী ফাউন্ডেশন, কাজের কাজগুলোও. এসোসিয়েশন বায়তুল মোকাররম (জাতীয় মসজিদ) এবং সংগঠন ও ইমাম প্রশিক্ষণ বজায় রাখার জন্য দায়ী. প্রায় 18,000 ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, লাইব্রেরি, একটি জাতীয় নেটওয়ার্ক তৈরি করার জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে. ইসলামিক ফাউন্ডেশন পৃষ্ঠপোষকতা অধীন দেরি আটের দশকের মধ্যে বাংলা ইসলাম এনসাইক্লোপিডিয়া রচনা করা হয়েছে.

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ - বিশ্ব মুসলিম জনসংখ্যার ভবিষ্যৎ পিউ ফোরাম
  2. মিলার, ট্রেসি, সম্পাদক (অক্টোবর ২০০৯)। বিশ্ব মুসলিম জনসংখ্যার অবস্হা : সংখ্যা এবং অবস্হানের ভিত্তিতে বিশ্ব মুসলিম জনসংখ্যার উপর প্রতিবেদন (PDF)। পিউ রিসার্স সেন্টার। সংগৃহীত ২০০৯-১০-০৮  |month= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)[অকার্যকর সংযোগ]
  3. "বাংলাদেশ আদমশুমারী ২০০১" (PDF)। বাংলাদেশ আদমশুমারী। সংগৃহীত ২০০১ 
  4. "Chapter 1: Religious Affiliation"The World's Muslims: Unity and DiversityPew Research Center's Religion & Public Life Project। ২০১২-০৮-০৯। সংগৃহীত ২০১৩-০৯-০৪ 
  5. বাংলাদেশ#জনসংখ্যা উপাত্ত

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]