কাশিয়ানী উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কাশিয়ানী
উপজেলা
কাশিয়ানী বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
কাশিয়ানী
কাশিয়ানী
বাংলাদেশে কাশিয়ানী উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°১২′৫৪″ উত্তর ৮৯°৪২′৯″ পূর্ব / ২৩.২১৫০০° উত্তর ৮৯.৭০২৫০° পূর্ব / 23.21500; 89.70250স্থানাঙ্ক: ২৩°১২′৫৪″ উত্তর ৮৯°৪২′৯″ পূর্ব / ২৩.২১৫০০° উত্তর ৮৯.৭০২৫০° পূর্ব / 23.21500; 89.70250 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগঢাকা বিভাগ
জেলাগোপালগঞ্জ জেলা
আয়তন
 • মোট২৯৯.৬৪ কিমি (১১৫.৬৯ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট২,০৭,৬১৫
 • জনঘনত্ব৬৯০/কিমি (১৮০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৫২%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৮১৩০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৩০ ৩৫ ৪৩
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

কাশিয়ানী বাংলাদেশের গোপালগঞ্জ জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

অবস্থান[সম্পাদনা]

কাশিয়ানী উপজেলা ৩০১৪' উত্তর অক্ষাংশ এবং  ৮৯১২' পূর্ব দ্রাঘিমাংশে অবস্থিত। কাশিয়ানী উপজেলার উত্তরে ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলা, পশ্চিমে আলফাডাংগা, পূর্বে গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলা এবং দক্ষিণে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা ।  মধুমতি ও  বারাশিয়া নদী কাশিয়ানীকে অন্য উপজেলা হতে পৃথক করেছে ।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

কাশিয়ানী উফজেলায় মোট ১৪ ইউনিয়ন ও ১৫৩ টি মৌজা আছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

এককালের একটি বিখ্যাত গ্রাম৷ এখন গোপালগঞ্জ জেলার একটি উপজেলা৷ এটি ৩০°১৪' উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৯°১২' পূর্ব দ্রাঘিমাংশে অবস্থিত৷ কাশিয়ানী-ভাটিয়াপাড়া রেলপথ এই উপজেলার যোগাযোগের একটি বড় মাধ্যম৷ মধুমতি নদী এবং বারাশিয়া নদীও এই উপজেলার মুখ্য নৌপথ৷ নওয়াব আলীবর্দি খাঁর আমলে এই গ্রামের জমিদার ছিলেন বাবু দর্পনারায়ণ সেন৷ নিজ গ্রামে তিনি স্থাপন করেছিলেন কাশীনাথ দেবের ৫টি মূর্তি সহ ৫টি সুদৃশ্য মন্দির৷ কাশীনাথ দেবের নামানুসারে দর্পনারায়ণ সেনের গ্রামটির নাম হয়ে যায় কাশিয়ানী৷ অন্যমতে শোনা যায় যে, এ অঞ্চলে পূর্বে প্রচুর কাশফুল হতো, এজন্য এ উপজেলার নাম হযেছে কাশিয়ানী৷ ভটিয়াপাড়া ও ফুকরা মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত স্থান, ওড়াকান্দি ঠাকুরবাড়ী সমধিক পরিচিত তীর্থস্থান৷ ১৯০৮ সালে মুকসুদপুরকে ভেঙ্গে কাশিয়ানী একটি সতন্ত্র থানা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়৷ ১৯৮৩ সালে কাশিয়ানী মানউনি্নত থানায় রম্নপান্তরিত হয়৷

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

জনসংখ্যা ২,২৮,৬৪৭ জন। ঘনত্ব- ৭৬২ জন (প্রতি ব:কি:মি:)৷

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

° সাজাইল গোপী মোহন উচ্চ বিদ্যাল, সাজাইল, কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ- ১৯২৯।

  • পিংগলিয়া সিদ্দিকিয়া সিনিয়র ফাযিল মাদ্রাসা

(কাশিয়ানি গোপালগঞ্জ)

  • বাথান ডাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়

(বাথান ডাঙ্গা বাজার, কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ)

  • গোয়ালগ্রাম কামিল মাদ্রাসা(গোয়ালগ্রাম, কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ)
  • জয়নগর ইয়ার আলী খাঁন ডিগ্রি কলেজ(জয়নগর বাজার, কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ)
  • জয়নগর উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়(জয়নগর বাজার,কাশিয়ানী,গোপালগ)
  • জয়নগর বালিকা বিন্যালয়(জয়নগর বাজার, কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ)
  • জয়নগর এম ইউ সিনিয়র মাদ্রাসা(জয়নগর বাজার, কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ)
  • ফুকরা মদনমোহন একাডেমী।
  • কাশিয়ানী জি সি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়।
  • রামদিয়া সরকারি এস কে কলেজ।
  • এম এ খালেক কলেজ, কাশিয়ানী।
  • ভাটিয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়, ভাটিয়াপাড়া, কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ। স্থাপিতঃ ১৯৬১ সাল
  • এম. এ. খালেক সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ।

নদনদী[সম্পাদনা]

কাশিয়ানী উপজেলায় দুটি নদী আছে। সেগুলো হচ্ছে মধুমতি নদী এবং চন্দনা-বারাশিয়া নদী[২][৩]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

  1. হরিচাঁদ ঠাকুর, মতুয়া ধর্মের প্রবর্তক
  2. কাজী হায়াৎ পরিচালক, কাহিনীকার, চিত্রনাট্যকার, প্রযোজক এবং অভিনেতা[৪]
  3. ফিরোজা বেগম প্রখ্যাত নজরুল শিল্পী।
  4. রকিবুল হাসান বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রথম অধিনায়ক
  5. হানিফ মাহমুদ : কাশিয়ানীর প্রথম সংবাদপত্র ‘কাশিয়ানী বার্তা’র প্রকাশক ও সম্পাদক।
  6. সুফী আব্দুস সাত্তার: প্রতিষ্ঠাতা গোয়ালগ্রাম কামিল মাদ্রাসা।
  7. গুরুচাঁদ ঠাকুর, নমঃ শুদ্র জাতির জনক
  8. মোঃ ফায়েকুজ্জামান। সাংবাদিক ও সমাজসেবক।
  9. জয়া আহসান - মডেল ও অভিনেত্রী

বিবিধ[সম্পাদনা]

  • নির্বাচনী এলাকা- ২১৫ গোপালগঞ্জ- ১, ২১৬ গোপালগঞ্জ-২
  • ইউনিয়ন - ১৪টি৷
  • মৌজা-১৫৩ টি৷
  • সরকারি হাসপাতাল- ১টি৷
  • স্বাস্থ্যকেন্দ্র/ক্লিনিক- ০৯টি৷
  • পোস্ট অফিস- ১৩টি৷
  • নদ-নদী- ০৩টি৷
  • হাটবাজার- ১৭টি৷
  • ব্যাংক- ০৮টি৷

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন ২০১৪)। "এক নজরে কাশিয়ানী"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। ২৪ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই, ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  2. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৩৯৮, আইএসবিএন ৯৭৮-৯৮৪-৮৯৪৫-১৭-৯
  3. মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক (ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। বাংলাদেশের নদনদী: বর্তমান গতিপ্রকৃতি। ঢাকা: কথাপ্রকাশ। পৃষ্ঠা ৬০৬। আইএসবিএন 984-70120-0436-4 
  4. http://www.bmdb.com.bd/person/26/

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]