লালমনিরহাট জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লালমনিরহাট জেলা
জেলা
বাংলাদেশে লালমনিরহাট জেলার অবস্থান
বাংলাদেশে লালমনিরহাট জেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৬°০০′উত্তর ৮৯°১৫′পূর্ব / ২৬.০০° উত্তর ৮৯.২৫° পূর্ব / 26.00; 89.25
দেশ  বাংলাদেশ
বিভাগ রংপুর বিভাগ
আয়তন
 • মোট ১২৪০.৯৩ কিমি (৪৭৯.১৩ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (2011)
 • মোট ১২,৫১,৯৯৪[১]
স্বাক্ষরতার হার
 • মোট ৬৫%
সময় অঞ্চল বিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইট জেলা তথ্য বাতায়ন


লালমনিরহাট জেলা বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রংপুর বিভাগের একটি প্রশাসনিক অঞ্চল।

ভৌগোলিক সীমানা[সম্পাদনা]

লালমনিরহাট জেলার উত্তরে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, দক্ষিণে রংপুর জেলা ও কুড়িগ্রাম জেলা, পূর্বে কুড়িগ্রাম জেলা এবং পশ্চিমে নীলফামারী জেলা অবস্থিত।

তিস্তা নদী

প্রশাসনিক এলাকাসমূহ[সম্পাদনা]

লালমনিরহাট জেলায় ৫টি উপজেলা রয়েছে; এগুলো হলোঃ

ইতিহাস[সম্পাদনা]

এ জেলার নাম কেন লালমনিরহাট হলো সে সম্পর্কে বেশ কয়েকটি মত চালু আছে। সেগুলো হলো-

  • মাতির নিচে লাল পাথর দেখতে পায়। সেই থেকে এ জায়গার নাম হয়েছে লালমনি
  • স্বীকৃতিস্বরূপ এলাকার লোকজন নামে রাখে লালমনি
  • ১৭৮৩ সালে সাধারণ কৃষকদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য লালমনি নামে এক মহিলা কৃষক নেতা নুরুলদিনকে সাথে নিয়ে বৃটিশ সৈন্য ও জমিদারদের বিরুদ্ধে লড়াই করে নিজেদের জীবন উৎসর্গ করে। সেই থেকে এ জায়গার নাম হয় 'লালমনি'।

কালের বিবর্তনে 'হাট' শব্দটি 'লালমনি' শব্দের সাথে যুক্ত হয়ে 'লালমনিরহাট' নামকরন হয়েছে।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

লালমনিরহাট জেলায় ২০টি কলেজ, ৮৭টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ১৭টি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৩৪টি মা্দ্রাসা, ৭৫৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৩টি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, এবং প্রায় ২০০টি কিন্ডারগার্ডেন রয়েছে।[২] জেলার শিক্ষার হাট ৬৫%।

জেলার গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠিান-

স্বাস্থ্য[সম্পাদনা]

কৃষি[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

যোগাযোগ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

কৃতি ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

  • ফকির মজনু শাহ।

চিত্তাকর্ষক স্থান[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসুত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে লালমনিরহাট"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগৃহীত ২২ জুন, ২০১৪ 
  2. লালমনিরহাট জেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]