ফরিদা ইয়াসমিন (সাংবাদিক)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফরিদা ইয়াসমিন
Farida Yasmin (3).jpg
জন্ম(১৯৬৩-০৬-০১)১ জুন ১৯৬৩
যেখানের শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাসাংবাদিক[১][২]
কার্যকাল১৯৮৯-বর্তমান
নিয়োগকারীদৈনিক ইত্তেফাক
যে জন্য পরিচিতসাধারণ সম্পাদক, জাতীয় প্রেসক্লাব (বাংলাদেশ) [৩][৪]
আদি শহরনরসিংদী
দাম্পত্য সঙ্গীনঈম নিজাম[৫]
সন্তানমাহির আবরার এবং নুজহাত পূর্ণতা
পিতা-মাতাসাখাওয়াৎ হোসেন ভুঁইয়া (বাবা), জাহানারা হোসেন (মা)
পুরস্কারবাংলাদেশ মহিলা পরিষদ পদক, উইমেন লিড দ্য নেশন পুরস্কার
স্বাক্ষর
Farida Yasmin signature.jpg

ফরিদা ইয়াসমিন (জন্ম ১ জুন ১৯৬৩) একজন বাংলাদেশী সাংবাদিক। তিনি বাংলাদেশ জাতীয় প্রেসক্লাবের প্রথম নির্বাচিত নারী সাধারণ সম্পাদক।[৬] দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় কর্মরত ইয়াসমিন এর পূর্বে জাতীয় প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।[৫][৭][৮][৯] তিনি বাংলাদেশ উইমেন জার্নালিস্ট নেটওয়ার্ক এবং বাংলাদেশ উইমেন জার্নালিস্ট ফোরামের উপদেষ্টা। এছাড়া বাংলাদেশ জার্নালিস্ট ফোরাম অ্যাগেনিস্ট ট্রাফিকিংয়ের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। মিডিয়াতে নারীর ক্ষমতায়নে কাজ করায় ২০১৭ সালের ৭ মে তারিখে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অব রিপ্রেজেন্টটেটিভ থেকে তিনি বিশেষ কংগ্রেশনার রিকোগনিশন এবং নিউ ইয়র্ক সিটির পাবলিক অ্যাডভোকেট অফিস থেকে পেয়েছেন ‘কংগ্রেসনাল স্পেশাল সার্টিফিকেট’।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ফরিদা ইয়াসমিনের জন্ম নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার দৌলতকান্দি গ্রামে। তার বাবার নাম সাখাওয়াৎ হোসেন ভুঁইয়া এবং মায়ের নাম জাহানারা হোসেন। ৫ বোন এবং ৪ ভাইয়ের মধ্যে তিনি সবার বড়। নরসিংদী জেলার শিবপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং ইডেন কলেজ থেকে এইচএসসি সম্পন্ন করেন ফরিদা ইয়াসমিন।

পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিক বিভাগ থেকে ১৯৯০ সালে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন তিনি। এছাড়া তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমা ইউনিভার্সিটি থেকে সাংবাদিকতায় উচ্চতর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। [১০]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

ফরিদা ইয়াসমিন ১৯৮৯ সালে বাংলার বানী পত্রিকার মাধ্যমে সাংবাদিকতার চাকুরী শুরু করেন। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনাকালীন সময় থেকেই তিনি বিভিন্ন সাপ্তাহিক ম্যগাজিনে নিয়মিত কাজ করতেন। বাংলার বাণী ছাড়াও তিনি মুক্তকন্ঠেও কাজ করেছেন। ১৯৯৯ সাল থেকে তিনি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় কর্মরত আছেন। ২০০১ সালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সদস্য হন ফরিদা ইয়াসমিন। ২০১২, ২০১৩ এবং ২০১৪ সালে বাংলাদেশ জাতীয় প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।[১১][১২][১৩] তিনি সাউথ এশিয়ান ওমেনস মিডিয়া ফোরামের যুগ্ম সম্পাদক এবং এ ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য।[১৪][১৫] ২০১৬ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন। [১৬]

প্রকাশিত বই[সম্পাদনা]

  • ভাষা আন্দোলন ও নারী, ২০০৫
  • উজ্জ্বল নারীর মুখোমুখি, ২০০৫
  • ইতিহাসের আয়নায় বঙ্গবন্ধু, ২০১৭

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

  • বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ পদক
  • উইমেন লিড দ্য নেশন পুরস্কার
  • জাতীয় প্রেস ক্লাব লেখক সম্মাননা

পারিবারিক জীবন[সম্পাদনা]

ফরিদা ইয়াসমিনের স্বামী প্রখ্যাত সাংবাদিক নঈম নিজাম। এ দম্পতির এক ছেলে মাহির আবরার এবং এক কণ্যা নুজহাত পূর্ণতা।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "30 female garment workers honoured"independent-bangladesh.com। Independent Bangladesh। ১৯ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  2. "Social Afforestation Improves Environ, Eradicates Poverty"highbeam.com। The New Nation। ১৭ জুলাই ২০১৩। ২৮ জুলাই ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  3. "News Details"bssnews.net। ২০১৬-১১-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  4. "Fruit festival at Press Club"websbd.net। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  5. "Journalist Farida Yasmin's father passes away"daily-sun.com। The Daily Sun। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  6. Singh, A. K.। Media Power and Press Freedom (ইংরেজি ভাষায়)। Pinnacle Technology। আইএসবিএন 9781618202659। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  7. "Media can play big role"thedailystar.net। The Daily Star। ১০ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  8. "National Press Club gets Farida Yasmin as first female general secretary; Shafiqur elected president"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৭ 
  9. "Shafique-Farida panel sweeps Jatiya Press Club polls"The Daily Star। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৭ 
  10. নারী সাংবাদিকতায় অন্যন্য অবদান। ঢাকা। জানুয়ারি ২০১৮। পৃষ্ঠা ২১।  Authors list-এ |প্রথমাংশ1= এর |শেষাংশ1= নেই (সাহায্য)
  11. "Sabuj elected press club president, Abdal GS"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  12. "Press Club poll: Sabuj, Abdal reelected president, secy"risingbd.com। Risingbd। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  13. "JPC team leaves for Agartala today"highbeam.com। The New Nation। ২৮ এপ্রিল ২০১২। ১৮ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  14. "New committee of SAWM formed"highbeam.com। The New Nation। ১০ এপ্রিল ২০১০। ১৯ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  15. "South Asian women's forum formed"highbeam.com। The New Nation। ৬ জানুয়ারি ২০০৯। ১৮ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  16. "DUMCJAA forms new committee"thedailystar.net। The Daily Star। ৩১ জুলাই ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৬