মনু মিয়ার জমিদার বাড়ি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মনু মিয়ার জমিদার বাড়ি
বিকল্প নামঘোড়াশাল জমিদার বাড়ি
মৌলভি আব্দুল কবিরের বাড়ি
নাজমুল হাসানের বাড়ি
ঘোড়াশাল মিঞা বাড়ি
সাধারণ তথ্য
ধরনবাসস্থান
অবস্থানপলাশ উপজেলা
ঠিকানাঘোড়াশাল গ্রাম
শহরপলাশ উপজেলা, নরসিংদী জেলা
দেশবাংলাদেশ
খোলা হয়েছেঅজানা
স্বত্বাধিকারীআবু ইউসুফ লুৎফুল কবির (ফেনু মিয়া)
কারিগরী বিবরণ
পদার্থইট, সুরকি ও রড
তলার সংখ্যা০১ (এক)
তলার আয়তন১০ একর

মনু মিয়ার জমিদার বাড়ি বাংলাদেশ এর নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল এলাকায় অবস্থিত এক ঐতিহাসিক জমিদার বাড়ি। যা মূলত কাগজকলমে "ঘোড়াশাল জমিদার বাড়ি" হিসেবে লিপিবদ্ধ থাকলেও স্থানীয়দের কাছে "মনু মিয়ার জমিদার বাড়ি" নামেই পরিচিত। [১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

এই জমিদার বাড়িটি "মনু মিয়ার জমিদার বাড়ি" হিসেবে পরিচিত হলেও এটির প্রতিষ্ঠাতা কিন্তু জমিদার মনু মিয়া নন। এই জমিদার বংশের প্রতিষ্ঠাতা জমিদার মনু মিয়ার পিতা "আবু ইউসুফ লুৎফুল কবির।" আবার আরেকটি মতে এই জমিদার বাড়ির প্রতিষ্ঠাতা "গোলাম নবী।" এনার ডাকনাম ছিলো ফেনু মিয়া। এখানে মনু মিয়ার বাড়ির পাশাপাশি আরো দুইজনের বাড়ি রয়েছে। তারা হলেন নাজমুল হাসান ও মৌলভি আব্দুল কবির। তারাও এই জমিদার বংশধর। তবে জমিদার মনু মিয়ার পরিচিতি পাওয়ার পিছনে মূল কারণ হচ্ছে তিনি এলাকার একজন পরিচিত মুখ ছিলেন। তার পুরো নাম আহমুদুল কবির মনু মিয়া। তাই তার নামেই এখন এই জমিদার বাড়ির নাম মানুষের মুখেমুখে। কারণ তিনি এই জমিদার বংশের মধ্যে একজন সফলতম ব্যক্তি ছিলেন। শুধু তিনি নয়, তার স্ত্রী, ছেলে ও মেয়ে সকলেই তাদের কর্মদক্ষতার ফলে উল্লেখযোগ্য ব্যক্তি হিসেবে সকলের কাছে পরিচিত।

অবকাঠামো[সম্পাদনা]

এই জমিদার বাড়ি অন্যান্য জমিদার বাড়ি থেকে একদম আলাদা। মূলত এই বাড়ির অবকাঠামোর জন্যই। বাড়ির ভীষণ খোলা-মেলা ভাবটাই প্রধান বৈশিষ্ট্য। বাড়িটি একতলা বিশিষ্ট্য গ্লাসের ব্যবহারর। বাড়ির সামনে বেশ বড় মাঠ, মাঠ পেরিয়ে বেশ বড় পুকুর, সামনে একটু এগিয়ে গেলে প্রাচীন গাছের সারি। যা এই বাড়ির বহিরাগত অংশকে অনেক সৌন্দর্যের রূপ দিয়েছে। এছাড়াও বাড়ির ভিতরের নকশাও মন কাড়ার মত।

বর্তমান অবস্থা[সম্পাদনা]

অন্যান্য জমিদার বাড়ির মত এটি অবহেলিত বা অযত্নে এখনো নষ্ট হয়ে যায়নি। এখনো অনেক ভালো অবস্থাই বাড়ির ভিতরের এবং বাহিরের অংশ আছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]