একুশে পদক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
একুশে পদক
(ইংরেজি: Ekushey Padak)
Ekushepadak.jpg
একুশে পদকের একটি মেডেল
পুরস্কার দেওয়া হয় বাংলাদেশের বিশিষ্ট সাহিত্যিক, শিল্পী, শিক্ষাবিদ, ভাষাসৈনিক, ভাষাবিদ, গবেষক, সাংবাদিক, অর্থনীতিবিদ, দারিদ্র্য বিমোচনে অবদানকারী, সামাজিক ব্যক্তিত্ব ও প্রতিষ্ঠানকে জাতীয় পর্যায়ে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি প্রদানের উদ্দেশ্যে এ পুরস্কার দেয়া হয়।
অবস্থান ঢাকা, বাংলাদেশ
দেশ বাংলাদেশ বাংলাদেশ
পুরস্কার দাতা বাংলাদেশ
স্বাগতিক বাংলাদেশ সরকার
প্রথম পুরস্কার প্রদান ১৯৭৬
শেষ পুরস্কার প্রদান ২০১৪
অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.moca.gov.bd

একুশে পদক (ইংরেজি: Ekushey Padak) বাংলাদেশের একটি জাতীয় এবং সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার। বাংলাদেশের বিশিষ্ট ভাষাসৈনিক, ভাষাবিদ, সাহিত্যিক, শিল্পী, শিক্ষাবিদ, গবেষক, সাংবাদিক, অর্থনীতিবিদ, দারিদ্র্য বিমোচনে অবদানকারী, সামাজিক ব্যক্তিত্ব ও প্রতিষ্ঠানকে জাতীয় পর্যায়ে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি প্রদানের উদ্দেশ্যে ১৯৭৬ সাল থেকে একুশে পদক প্রদান করা হচ্ছে। ভাষা আন্দোলন এর শহীদদের স্মরণে ১৯৭৬ সালে এই পদকের প্রচলন করা হয়।[১] ২০১২ সাল পর্যন্ত ৩৬১ জন গুণী ব্যক্তি ও ২টি প্রতিষ্ঠানকে একুশে পদক প্রদান করা হয়েছে।[২]

পদক[সম্পাদনা]

ভাষা সৈনিক আবুল কাসেমকে প্রদানকৃত একুশে পদকের সনদ

প্রত্যেক পদকপ্রাপ্তকে একটি পদক, একটি সম্মাননা সনদ, একটি রেপ্লিকা এবং পুরস্কারের অর্থমূল্য প্রদান করা হয়ে থাকে।[১][৩] একুশে পদকে ১৮ ক্যারেটের সোনা দিয়ে তৈরি ৩৫ গ্রাম ওজনের একটি মেডেল প্রদান করা হয়;[৩] যার ডিজাইন করেছেন নিতুন কুণ্ডু[৪] প্রাথমিকভাবে পুরস্কারের অর্থমূল্য ২৫,০০০ টাকা দেয়া হতো; বর্তমানে এটি ২ লক্ষ টাকায় উন্নীত করা হয়েছে।[৩]

পুরস্কার প্রাপ্তদের তালিকা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ জাতীয় পুরস্কার, বাংলাপিডিয়া থেকে।.
  2. বিডিনিউজ২৪
  3. ৩.০ ৩.১ ৩.২ "১৬ কৃতী ব্যক্তি পাচ্ছেন একুশে পদক"দৈনিক ইত্তেফাক। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। সংগৃহীত : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  4. Obituary of Nitun Kundu, The Daily Star, September 16, 2006.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]