ইসলামে মুহাম্মাদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মসজিদ-আল-নববীর দরজায় মুহাম্মদ (সা)-এর নামের ক্যালিগ্রাফি।

মুহাম্মদ ইবনে আব্দুল্লাহ ইবনে আব্দুল মুত্তালিব ইবনে হাশিম (সা:) (আরবিঃ محمد ا‌‌بن عبد الله بن عبد المطلب) , সংক্ষেপে মুহাম্মদ (সা:) ইসলাম ধর্মের প্রচারক। ইসলাম ধর্ম অনুযায়ী তিনি আল্লাহর প্রেরিত সর্বশেষ নবি ও রাসুল এবং তাঁর উপরই কুরআন প্রেরিত হয়েছিল। । মুসলিমরা বিশ্বাস করে দাউদ (আঃ), মুসা (আঃ), ইসা (আঃ) সহ অন্যান্য নবি-রাসুলের পর মুহাম্মদ (সা) সর্বশেষ নবী ও রাসুল। তাঁর আদর্শের ভিত্তিতেই ইসলামিক সভ্যতা গড়ে ওঠে।

মুসলিমরা তাঁকে নবী, রাসুল এবং মোহাম্মদ (সাঃ) বলে সম্ন্বোধন করে থাকে। এবং তাঁকে মানবীয় সকল গুনের অধিকারী বলে বিশ্বাস করে। মুসলিমরা তাঁর নামের শেষে সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম(আরবি-صلى الله عليه وآله وسلم‎, অর্থ- তাঁর উপর শান্তি বর্ষিত হোক, সংক্ষেপে সাঃ)উচ্চারণ করে। মুহাম্মদ (সাঃ) এর দৈনন্দিন কর্মগুলোকে সুন্নাহ বলা হয়। তিনি যা যা করার আদেশ ও উপদেশ, নিষেধ করেছেন, তাকে হাদিস বলা হয়ে থাকে। ইসলাম ধর্মে কুরআনের পরই হাদিসের স্থান। এটি প্রত্যেক মুসলমানের জন্য অনুকরণীয়, কোন কোন বিষয় অবশ্যই পালনীয়।

মুহাম্মদ (সাঃ) এর জন্ম, পরিচয়, নবুয়্যত এবং অন্যান্য[সম্পাদনা]

হেরা গুহা: এই গুহায় ধ্যানরতঃ অবস্থায় মুহাম্মদ (সাঃ)-এর উপর প্রথম কুরআন নাযিল হয়।

মুহাম্মদ (সা:) এর প্রতি বিশ্বাস স্থাপন প্রত্যেক মুসলমানের প্রতি আল্লাহর আদেশ। ইসলাম এর মূলবাক্যের প্রথমাংশে আল্লাহর অস্তিত্ব ও দ্বিতীয়াংশে মুহাম্মদ (সা:) এর প্রতি ইমান আনার কথা বলা হয়েছে। অর্থাৎ মুহাম্মদের (সা:) প্রতি বিশ্বাস না আনলে কেউ মুসলিম হতে পারে না। ইসলামে একে রিসালাত (আরবি-رِسَلَث) বলে আখ্যায়িত করা হয়েছে[১]

এগুলো হলো আল্লাহর নিদর্শন, যা আমরা তোমাকে যথাযথভাবে শুনিয়ে থাকি। আর আপনি (মুহাম্মদ) নিশ্চিতই আমার রসূলগণের অন্তর্ভুক্ত[২] - আল কুরআন

মুহাম্মদ (সা:) এর জন্ম ৫৭০ খ্রীস্টাব্দের ১২ই রবিউল আউয়াল মাসে মক্কার সম্ভ্রান্ত কুরাইশ বংশে। জন্মের পূর্বেই তাঁর পিতা আব্দুল্লাহ মারা যান। তাঁর মায়ের নাম আমিনা। তিনি শৈশবে আল-আমিন (الُ امِن- বিশ্বস্ত) উপাধি লাভ করেন। ৬১০ খ্রিস্টাব্দে ৪০ বছর বয়সে মুহাম্মদ (সাঃ) হেরা গুহায় নবুয়ত লাভ করেন। আল্লাহর নির্দেশে হযরত জিবরাঈল (আঃ) মুহাম্মদ (সাঃ) এর কাছে আল কুরআনের ৫ টি আয়াত নিয়ে আসেন[৩]। আয়াতগুলো ছিল কুরআনের ৯৬তম সূরা "আল-আলাক"- এর।

পাঠ করুন আপনার পালনকর্তার নামে যিনি সৃষ্টি করেছেন

সৃষ্টি করেছেন মানুষকে জমাট রক্ত থেকে।

পাঠ করুন, আপনার পালনকর্তা মহান দয়ালু নামে,

যিনি কলমের সাহায্যে শিক্ষা দিয়েছেন,

শিক্ষা দিয়েছেন মানুষকে, যা সে জানত না।

(সূরা আল-আলাক, আয়াত ১-৫[৪])

ইসলাম প্রচার, হিজরত, ইসলামের জন্য যুদ্ধ এবং মক্কা বিজয়[সম্পাদনা]

ইসলাম প্রচার ও মদিনায় হিজরত[সম্পাদনা]

নবুয়্যত লাভের পর প্রথমে নিকটাত্মীয়দের কাছে ইসলামের দাওয়াত দেন মুহাম্মদ (সাঃ)। সর্বপ্রথম মুহাম্মদ (সাঃ) এর স্ত্রী খাদিজা (রাঃ) ইসলাম গ্রহণ করেন। এরপর মুহাম্মদ (সাঃ) আল্লাহর নির্দেশে মক্কায় সরাসরি ইসলাম প্রচার শুরু করেন। কিন্তু তৎকালীন মক্কাবাসীরা এই নতুন ধর্মকে মেনে নিতে পারেনি। তারা মুহাম্মদ (সাঃ) ও তাঁর অনুসারীদের প্রতি নির্যাতন শুরু করে। তাই আল্লাহর নির্দেশে মুহাম্মদ (সাঃ) ও তাঁর অনুসারীরা মক্কা থেকে মদিনায় হিজরত করেন। এই হিজরতইক আরবী বর্ষপঞ্জীর (হিজরি) ভিত্তি। এটি ছিল মুম্মদের (সাঃ) এর জীবনের অন্যতম উল্ল্যেখ যোগ্য ঘটনা। মদিনায় মুহাম্মদ (সাঃ) ও তাঁর সহচররা পূর্ণ উদ্দমে ইসলাম প্রচার শুরু করেন।

মদিনায় শান্তি আনয়ন[সম্পাদনা]

মুহাম্মদ (সাঃ) এর মদিনায় গমনের পর মদিনাবাসী কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে যায়-

  1. মুসলিম: মক্কা থেকে আসা মুসলমান এবং মদিনার আনসার।
  2. বানু আউস এবং বনু খাজারাজ গোত্র; বস্তুত মুশরিক হলেও ইসলামের সহকারী
  3. ইহুদি: তৎকালীন মদিনার বৃহত্তর ধর্মগোষ্ঠী
  4. নামে ইসলামের সহকারী হলেও বস্তুত ইসলামবিরোধী।

ভিন্নধর্মী মানুষের মধ্যে শান্ত্বি স্থাপনের লক্ষ্যে মুহাম্মদ (সঃ)মদিনার নানা শ্রেনীর নেতাদের একটি চুক্তিপত্র স্বাক্ষরের আহ্বান জানান। এটি ছিল ঐতিহাসিক মদিনার সনদ[৫]। এই সনদ মদিনার মুসলিম-ইহুদি এবং বহিঃগত শত্রুদের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়। এটি ছিল বিশ্বের সর্বপ্রথম লিখিত চুক্তি[৬]। এটি ছিল তৎকালীন সময়ের অন্যতম ফলপ্রসূ চুক্তি। এটি মদিনাবাসীদের শান্তি স্থাপনে অপরিসীম ভূমিকা পালন করেছিল[৭]

মদিনায়-কুরাইশীদের শত্রুতা[সম্পাদনা]

মদিনায় মুহাম্মদ (সাঃ) এর আগমনের পূর্বে মদিনাবাসীরা বিভিন্ন যুদ্ধের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ ছিল। তাই মদিনাবাসীরা শান্তি পুনঃস্থাপনের উদ্দেশ্যে আব্দুল্লাহ ইবন্‌ উবাই- কে নিজেদের প্রতিনিধি নির্বাচন করে। কিন্তু ইবন্‌ উবাই মুহাম্মদ (সাঃ) এরাগমনে অখুশি হয়ে এবং তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্বরযন্ত্রে মেতে ছিল। মদিনায় মুহাম্মদ (সাঃ) এর প্রতিষ্ঠার পর ইবন্‌ উবাইকে কুরাইশরা একটি চরমপত্র দিয়েছিল- যেন মুহাম্মদকে (সাঃ) মদিনা থেকে বিতাড়িত করা হয় অথবা তাঁর বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করা হয়[৮]। সেই সময় বনু আউস এর দলপতি সা'দ ইবন্‌ মু'আদ ওমরাহ্‌ করতে মক্কায় গিয়াছিলেন। পারস্পরিক বন্ধুত্বের কারণে মক্কার একজন প্রধান উমাইয়া ইবনে খালাফ ইবনে মুয়াদকে আশ্রয় ও পাহারার ব্যাবস্থা করে দেন। কিন্তু তবু-ও তারা ইসলামবিরোধী আবু-জাহলের নোটিসের কথা গোপন করতে পারল না। আবু জাহল রাগান্বিত হয়ে ইবনে সাদ-কে হুমকি দিল যেন তারা (মদিনাবাসী) ওমরাহ্‌ করতে মক্কায় আসা বন্ধ করে যেহেতু তাঁরা মুহাম্মদকে (সাঃ) আশ্রয় দিয়েছে। সাদ ইবনে মুয়াদ-ও তাদের কাফেলা সম্পর্কে হুমকি দিল।

এভাবেই মদীনাবাসী ও মক্কার কুরাইশ বংশীয়দের মধ্যে শত্রুতা সৃষ্টি হল। তখন পর্যন্ত মুসলিমরা সংখ্যায় অল্প, পর্যাপ্ত সম্পদের অভাব ও শত্রুদের আক্রমনের কারণে ভীত ছিল।[৯][১০][১১]

ইসলামী যুদ্ধের কারণ ও প্রস্তুতি[সম্পাদনা]

মক্কাবাসীরা মক্কায় আগত মুসলিম মুহাজিরদের সম্পত্তি দখল করে নেয়[১২]। কুরাইশরা নতুন মুসলিমদের উপর নির্যাতন শুরু করে এবং তাদের বাধ্য করে মক্কা ত্যাগ করেমদিনায় হিজরত করতে[১৩]

(কাজ চলছে...)

  1. "Surah Al-Fath [48:29]" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১৮ 
  2. "Surah Al-Baqarah [2:252]" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১৭ 
  3. "BBC - Religions - Islam: Prophet Muhammad (570-632)"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১৭ 
  4. "Surah Al-'Alaq [96]" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১৮ 
  5. IslamKotob। Ar-Raheeq Al-Makhtum [The Life History Of Muhammad(SAW)] (ইংরেজি ভাষায়)। Islamic Books। 
  6. Al-Mubarakpuri, Safi-ur-Rahman; Mubārakfūrī, Ṣafī al-Raḥmān (২০১৭-০২-১৮)। الرحيق المختوم: بحث في السيرة النبوية على صاحبها افضل الصلاة و السلام: Biography of the Noble Prophet (ইংরেজি ভাষায়)। Darussalam। আইএসবিএন 9789960899558 
  7. When The Moon Split (ইংরেজি ভাষায়)। Darussalam। আইএসবিএন 9789960897288 
  8. The History Of Muhammad (PBUH) The Prophet And Messenger (ইংরেজি ভাষায়)। ideas4islam। 
  9. Al-Mubarakpuri, Safi-ur-Rahman; Mubārakfūrī, Ṣafī al-Raḥmān (২০১৭-০২-১৮)। الرحيق المختوم: بحث في السيرة النبوية على صاحبها افضل الصلاة و السلام: Biography of the Noble Prophet (ইংরেজি ভাষায়)। Darussalam। আইএসবিএন 9789960899558 
  10. Khan, Muhammad Zafrulla (১৯৮০-০১-০১)। Muhammad, Seal of the Prophets (ইংরেজি ভাষায়)। Routledge & Kegan Paul। আইএসবিএন 9780710006103 
  11. Numani, Muhammad Shibli; Nadvī, Sayyid Sulaimān; Rehman, Rafiq Abdur (২০০৩-০১-০১)। Siratun Nabi ...: Miracles (ইংরেজি ভাষায়)। Darul Ishaat। 
  12. "Faith | The Times" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১৯ 
  13. Sir, Khan, Muhammad Zafrulla (১৯৮০-০১-০১)। Muhammad, seal of the prophets। London, Boston: Routledge & Kegan Paul। আইএসবিএন 0710006101