পিঁয়াজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(পেঁয়াজ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

পিঁয়াজ'
Mixed onions.jpg
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Plantae
বিভাগ: Tracheophyta
শ্রেণী: Liliopsida
বর্গ: Asparagales
পরিবার: Amaryllidaceae
গণ: Allium
প্রজাতি: Allium cepa
দ্বিপদী নাম
Allium cepa
L.
প্রতিশব্দ

Porrum cepa (L.) Rchb.
Kepa esculenta Raf.
Cepa vulgaris Garsault
Cepa rubra P.Renault
Cepa pallens P.Renault
Cepa esculenta Gray
Cepa alba P.Renault
Ascalonicum sativum P.Renault
Allium salota Dostál
Allium pauciflorum Willd. ex Ledeb.
Allium nigritanum A.Chev.
Allium napus Pall. ex Kunth
Allium esculentum Salisb.
Allium cumaria Buch.-Ham. ex Wall.
Allium commune Noronha
Allium cepaeum St.-Lag.
Allium cepa var. viviparum
Allium cepa var. tripolitanum
Allium cepa var. solaninum
Allium cepa var. sanguineum
Allium cepa var. rosum
Allium cepa var. praecox
Allium cepa var. portanum
Allium cepa var. multiplicans
Allium cepa var. luteum
Allium cepa var. lisboanum
Allium cepa var. jamesii
Allium cepa var. hispanicum
Allium cepa var. globosum
Allium cepa var. flandricum
Allium cepa var. crinides
Allium cepa var. bifolium
Allium cepa var. argenteum
Allium cepa var. anglicum
Allium cepa var. aggregatum
Allium ascalonicum var. sterile
Allium ascalonicum f. rotterianum
Allium ascalonicum var. fertile
Allium ascalonicum var. condensum
Allium aobanum Araki
Allium angolense Baker


পিঁয়াজ (ইংরেজি: Onion, অনিয়ন) হল অ্যালিয়াম গোত্রের সকল উদ্ভিদ। সাধারণ পিঁয়াজ বলতে অ্যালিয়াম কেপা কে বোঝায়।

ব্যবহার[সম্পাদনা]

মানবসভ্যতার ইতিহাসের আদিযুগ থেকেই পিঁয়াজের ব্যবহার শুরু হয়েছে। পৃথিবীর প্রায় সব খানের সমাজেই বিভিন্ন রান্নায় পিঁয়াজ ব্যবহার করা হয়ে থাকে। বর্তমানে কাচা , জমানো, আচার , চূর্ণ, কুঁচি, ভাজা, এবং শুকনো করা পিঁয়াজ ব্যবহার করা হয়। শুধু পিঁয়াজ সাধারণত সরাসরি খাওয়া হয়না, বরং পিঁয়াজ কুঁচি বা ফালি করে কাচা অবস্থায় সালাদএ , অথবা রান্নাতে উপকরণ হিসাবে ব্যবহার করা হয়। পিঁয়াজ বিভিন্ন রকমের হতে পারে - ঝাঁঝালো, মিষ্টি , তিতা।

বাংলাদেশী লাল পিঁয়াজ

পিঁয়াজকে ভিনেগার বা সিরকাতে ডুবিয়ে আচার বানানো হয়। দক্ষিণ এশিয়ার খাদ্যে পিঁয়াজ একটি মৌলিক উপকরণ, এবং প্রায় সব রান্নাতেই পিঁয়াজ ব্যবহার করা হয়। পিঁয়াজের কোষের আকার বেশ বড় বলে বিজ্ঞান শিক্ষায় মাইক্রোস্কোপের ব্যবহার ও কোষের গড়ন শেখাতে পিঁয়াজের কোষ ব্যবহার করা হয়।[১]

পুষ্টিমান[সম্পাদনা]

পিঁয়াজ, কাচা অবস্থায়
প্রতি ১০০ গ্রাম (৩.৫ আউন্স) পুষ্টিগত মান
শক্তি১৬৬ কিজু (৪০ kcal)
9.34 g
চিনি4.24 g
খাদ্যে ফাইবার1.7 g
0.1 g
1.1 g
ভিটামিনসমূহ
থায়ামিন (বি)
(4%)
0.046 mg
রিবোফ্লাভিন (বি)
(2%)
0.027 mg
ন্যায়েসেন (বি)
(1%)
0.116 mg
(2%)
0.123 mg
ভিটামিন বি
(9%)
0.12 mg
ফোলেট (বি)
(5%)
19 μg
ভিটামিন সি
(9%)
7.4 mg
চিহ্ন ধাতুসমুহ
ক্যালসিয়াম
(2%)
23 mg
লোহা
(2%)
0.21 mg
ম্যাগনেসিয়াম
(3%)
10 mg
ম্যাঙ্গানিজ
(6%)
0.129 mg
ফসফরাস
(4%)
29 mg
পটাশিয়াম
(3%)
146 mg
দস্তা
(2%)
0.17 mg
অন্যান্য উপাদানসমূহ
পানি89.11 g
Fluoride1.1 µg

Percentages are roughly approximated using US recommendations for adults.
Source: USDA Nutrient Database

উৎপাদন[সম্পাদনা]

বিশ্বে পিঁয়াজ উৎপাদনে প্রধান দেশ হচ্ছে চীন ও ভারত।

ভারতে পিঁয়াজ সবথেকে বেশি আসে মহারাষ্ট্রের নাসিক থেকে। মহারাষ্ট্র ছাড়া দক্ষিণ ভারত, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, গুজরাটে পিঁয়াজ বিপুল চাষাবাদ হয়।[২] জরুরি ক্ষেত্রে পাকিস্তান হয়ে ভারতে পিঁয়াজ আমদানি হয় আফগানিস্তান থেকে । বাংলাদেশও প্রচুর পরিমানে পিয়াজ উৎপাদন হয়

শ্রেণীবিন্যাস এবং উৎপত্তি[সম্পাদনা]

পিঁয়াজের বিভিন্ন যাতের মধ্যে মুড়িকাটা জাতের ফলন বেশ ভাল।

শিকড়, পাতা এবং কন্দ
অণুবীক্ষণ যন্ত্রে পিঁয়াজের কোষ

চাষাবাদ[সম্পাদনা]

বৃহৎ পরিসরে চাষাবাদ

গ্যালারি[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Genetics Teaching Vignettes: Elementary School"। ২০০৪-০৬-১৫। ২০০৭-১২-১৭ তারিখে মূল (html) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০১-২৮ 
  2. "Onion in India"