সীরাহ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মুহাম্মাদ
বিষয়ের ধারাবাহিকের একটি অংশ
মুহাম্মাদ

ইসলামে আস-সিরা আন-নবুবিয়া ( নবীজির জীবনী ), [১] সিরাত আল-রাসুলাল্লাহ (আল্লাহর রাসুলের সিরাত), [২] বা সীরাহ বলতে মুহাম্মদ (সা) এর জীবনীকে বুঝায়। এই সীরাহ এর তথ্য কুরআন ছাড়াও সহীহ হাদীস, তাঁর জীবনী এবং ইসলামের প্রাথমিক যুগে সর্বাধিক বিশ্বাসযোগ্য ঐতিহাসিক তথ্য হতে পাওয়া যায়।

ইবনে ইসহাক সীরাত রাসূল আল্লাহ লিখেন যা তার ছাত্র আল-বাক্কা' সংরক্ষণ করেন, যেখান থেকে ইবনে হিশাম আরও সম্পাদনা করেন। [৩] প্রাথমিক যুগের সীরাহ নিয়ে অন্যান্য লেখকদের বই আর পাওয়া যায়নি, যেখানে শুধু বিচ্ছিন্ন কিছু উদ্ধৃতি এবং হাদিস পাওয়া গিয়েছে। [৪]

ব্যুৎপত্তি[সম্পাদনা]

আরবি ভাষায় সীরাহ বা সিরাত শব্দটি ( আরবি: سيرة‎‎) সারা ( বর্তমান কাল : ইয়াসিরু ) ক্রিয়াপদ থেকে এসেছে , যার অর্থ ভ্রমণ করা বা ভ্রমণ করে আসা। একজন ব্যক্তির সীরাহ হল সেই ব্যক্তির জীবন, বা জীবনী, তাঁর জন্ম, তার জীবনের বিভিন্ন ঘটনা, আচার-আচরণ, বৈশিষ্ট্য এবং তার মৃত্যু। আধুনিক ব্যবহারে এটি বলতে কোনও ব্যক্তির জীবনবৃত্তান্তকেও বোঝায়। এটি কখনও "সীরা", "সিরাহ" বা "সীরাত" হিসাবে লেখা হয়, যার অর্থ "জীবন" বা "যাত্রা"। ইসলামী সাহিত্যে বহুবচন রূপ, সিয়ার বলতে অমুসলিমদের সাথে যুদ্ধ-বিধিকে বুঝানো হয়। [৫]

সীরাত রাসূলাল্লাহ বা আল-সিরা আল-নবুবিযইয়া শব্দটি মুহাম্মদ (সা) এর জীবনী চর্চাকেই বুঝায়। সীরাহ শব্দটি মুহাম্মদ (সা) এর জীবনী হিসেবে প্রথম ব্যবহার করেন ইবনে শিহাব আল-যুহরী, পরে ইবনে হিশামের কাজ দ্বারা এটি পরিচিতি লাভ করে। ইসলামী ইতিহাসের প্রথম দুই শতাব্দীতে, সিরা বলতে মাগাজি (আক্ষরিক অর্থে, সামরিক অভিযানের গল্প) বুঝাতো, যা এখন কেবলমাত্র সিরাহর একটি উপ-অংশ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। [৫] যার দ্বারা - মুহাম্মদ (সা) এর সামরিক অভিযানের কাহিনী বুঝায়। [৬]

সীরাহ লেখার প্রাথমিক যুগে, একটি সীরাহ একাধিক ঐতিহাসিক রিপোর্ট, বা আখবার নিয়ে গঠিত হত, এবং প্রতিটি প্রতিবেদনকে খবর বলা হত। [৭] কখনও কখনও এসবের পরিবর্তে হাদীস শব্দটি ব্যবহৃত হত।

বিষযবস্তু[সম্পাদনা]

সীরাহ সাহিত্যে বিভিন্ন রকমের বিষয় রয়েছে যা মূলত মুহাম্মদ (সা) ও তাঁর সাহাবিদের দ্বারা পরিচালিত সামরিক অভিযানের বিবরণ থাকে। এই সীরাহতে বিভিন্ন রাজনৈতিক চুক্তি (যেমন হুদায়বিয়াহ চুক্তি বা মদিনার সংবিধান ), সামরিক তালিকাভুক্তি, কর্মকর্তাদের নিয়োগ, বিদেশি শাসকদের চিঠিপত্র ইত্যাদির মতো লিখিত নথিও রয়েছে। এটিতে বিদায় হজ্জ্বের মত মুহাম্মদ (সা) এর করা কিছু বক্তৃতা ও খুতবাও বর্ণিত রয়েছে। কিছু কিছু জায়গায় বিভিন্ন ঘটনা ও যুদ্ধের সময়ের অনেক কবিতার শ্লোকও রয়েছে। [৫]

পরবর্তী সময়কালে, নির্দিষ্ট ধরণের ঘটনা নিয়ে তাদের নিজস্ব পৃথক ঘরানা(genre) বিকশিত হয়েছিল। একটি ঘরানা হলো ;রাসুলের অলৌকিক ঘটনা', যাকে আলাম আল-নুবুওয়া বলা হয় (আক্ষরিক অর্থে, "নবুওয়াতের প্রমাণ)। আরেকটি ঘরানা হল, ফাদা'ইল ওয়া মাসালিব - এমন ঘটনা যা তার সাহাবি, শত্রু এবং মুহাম্মদ (সা) এর সময়কালের মানুষদের নিয়ে বলে। [৫] কিছু কিছু সীরাহতে মুহাম্মদ (সা) - এর কাহিনী ছাড়াও তার মধ্যে পূর্ববর্তী নবী, পারস্য রাজা, প্রাক-ইসলামিক আরব উপজাতি এবং খোলাফায়ে রাশিদীনেরর ঘটনাও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

কুরআনে বর্ণিত বিভিন্ন ঘটনার আলোকে সীরাহ গঠিত হয়। এই অংশগুলি প্রায়শই তাফসির এবং শানে নুযূলের লেখকরা ব্যবহার করেন। [৫]

সীরাহর প্রাথমিক সংকলন[সম্পাদনা]

নিচে প্রাথমিক যুগের হাদীস সংগ্রহকারীদের কয়েকজনের তালিকা দেওয়া হয়েছে যারা সীরাহ ও মাগাজি রিপোর্ট সংগ্রহ ও সংকলনে বিশেষজ্ঞ ছিলেন:

  • উরওয়াহ ইবনুয যুবায়ের (মৃত্যু ৭১৩)। তিনি উমাইয়া খলিফা আবদুল-মালেক ইবনে মারওয়ান এবং আল-ওয়ালিদের নবীর সময়ে ঘটা ঘটনা নিয়ে জানতে চাওয়া চিঠির জবাবে লিখতেন। আবদুল আল মালিক যেহেতু মাগাযি সাহিত্যকে তেমন মুল্যায়ন করেতেন না, তাই সে তার চিঠিতে ঘটনাগুলো গল্প আকারে লিখতেন না। তিনি এই বিষয়ে কোনও বই লিখেছেন বলে জানা যায়নি।
  • ওয়াহাব ইবনে মুনাব্বিহ ( মৃত্যু: ৭২৫ থেকে ৭৩৭)। বেশ কয়েকটি বই তিনি লিখেছিলেন তবে সেগুলির কোনটিই এখন বিদ্যমান নেই। ইবনে ইসহাক, ইবনে হিশাম, মুহাম্মদ ইবনে জারির আল-তাবাবি এবং আবু নাঈম আল-ইফাহানী এর লেখায় তার কিছু উদ্ধৃতি রয়েছে।
  • ইবনে শিহাব আল জুহরি (মৃত্যু ৭৩৭), সীরাহ সাহিত্যে একটি কেন্দ্রীয় ব্যক্তিত্ব তিনি, যিনি হাদীস ও আখবর উভয়ই সংগ্রহ করেছিলেন। তাঁর আখবরেও বর্ণনার শিকল বা ইসনাদ রয়েছে। তাকে উমাইয়া আদালত পৃষ্ঠপোষকতা করেছিলো এবং তাকে দুটি বই লিখতে বলা হয়েছিল, একটি বংশপরিচয়বিদ্যা নিয়ে এবং অন্যটি মাগাজি নিয়ে। প্রথমটি বাতিল করা হয়েছিল এবং মাগাজি সম্পর্কিত হয় আর খুজে পাওয়া যায়নি বা আদোও কখনও লেখা হয়নি।
  • আল-যুহরির ছাত্র মুসা ইবনে উক্ববা কিতাব আল-মাগাজি লিখেছিলেন, একটি বইটি তার ছাত্রদের পড়ানোর জন্য ব্যবহৃত হত; তা এখন হারিয়ে গেছে, তবে তাঁর কিছু অংশ সংরক্ষিত হয়েছিল, যদিও সেগুলো নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। [৪]
  • মুহাম্মদ ইবনে ইসহাক (মৃত্যু ৭৬৭ বা ৭৬১), আল-যুহরির আরেক শিক্ষার্থী তিনি, যিনি মৌখিক বর্ণনা সংগ্রহ করেছিলেন যা নবীজির জীবনীর বিষয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভিত্তি তৈরি করেছিল। তাঁর বর্ণনা বেশ কয়েকটি সূত্র ধরে বেঁচে ছিল, বিশেষত ইবনে হিশাম এবং ইবনে জারির আল-তাবারি তা সংরক্ষণ করেছিল।
  • ইবনে জুরাইজ কে ( মৃত্যু: ১৫০) ইবনে ইসহাকের "সমসাময়িক" এবং "মক্কা ভিত্তিক কর্তৃত্বের প্রতিদ্বন্ধী " হিসাবে বিবেচনা করা হত। [৮]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. আরবি: السيرة النبوية‎‎
  2. আরবি: سيرة رسول الله‎‎
  3. Guillaume, A. The Life of Muhammad, translation of Ibn Ishaq's Sira Rasul Allah, (Oxford, 1955)
  4. Encyclopaedia of the Qurʾān 
  5. Encyclopaedia of Islam 
  6. "Maghazi"Oxford Islamic Studies। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৯ 
  7. Humphreys 1991
  8. AL-Azraqi, Akhbar Makka, ed. Ferdinand Wustenfelf (Leipzig: F.A. Brockhaus, 1858) 65, 1. 16: thumma raja'a ila hadith Ibn Jurayj wa-ibn Ishaq; quoted in book review by Conrad, Lawrence I. of "Making of the Last Prophet: A Reconstruction of the Earliest Biography of Muhammad by Gordon Darnell Newby", in Journal of the American Oriental Society, 113, n.2 258-263

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  • Humphreys, R. Stephen (১৯৯১)। Islamic History: A framework for Inquiry (Revised সংস্করণ)। Princeton University Press। আইএসবিএন 0-691-00856-6 
  • Donner, Fred McGraw (মে ১৯৯৮)। Narratives of Islamic Origins: The Beginnings of Islamic Historical Writing। Darwin Press, Incorporated। আইএসবিএন 0878501274 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  • M. R. Ahmad (১৯৯২)। Al-sīra al-nabawiyya fī ḍawʾ al-maṣādir al-aṣliyya: dirāsa taḥlīliyya (1st সংস্করণ)। Riyadh: King Saud University। 
  • 'Arafat, W. (১৯৫৮-০১-০১)। "Early Critics of the Authenticity of the Poetry of the "Sīra""। Bulletin of the School of Oriental and African Studies, University of London21 (1/3): 453–463। আইএসএসএন 0041-977Xজেস্টোর 610611ডিওআই:10.1017/s0041977x00060110 
  • Hagen, Gottfried, Sira, Ottoman Turkish, in Muhammad in History, Thought, and Culture: An Encyclopedia of the Prophet of God (2 vols.), Edited by C. Fitzpatrick and A. Walker, Santa Barbara, ABC-CLIO, 2014, Vol. II, pp. 585–597. আইএসবিএন ১৬১০৬৯১৭৭৬.
  • Jarar, Maher, Sira (Biography), in Muhammad in History, Thought, and Culture: An Encyclopedia of the Prophet of God (2 vols.), Edited by C. Fitzpatrick and A. Walker, Santa Barbara, ABC-CLIO, 2014, Vol. II, pp. 568–582. আইএসবিএন ১৬১০৬৯১৭৭৬.
  • Williams, Rebecca, Sira, Modern English, in Muhammad in History, Thought, and Culture: An Encyclopedia of the Prophet of God (2 vols.), Edited by C. Fitzpatrick and A. Walker, Santa Barbara, ABC-CLIO, 2014, Vol. II, pp. 582–585. আইএসবিএন ১৬১০৬৯১৭৭৬