মধ্যযুগের ইসলামে মনোবিজ্ঞান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
ইবনে আল-নাফীসের একটি ডাক্তারি কাজের অংশবিশেষ, যিনি মস্তিষ্কের শারীরবিদ্যার উপর গ্যালেনইবনে সিনা রচিত বেশ কিছু ত্রুটিপূর্ণ মতবাদ সংশোধন করেছিলেন।

ইসলামী মনোবিদ্যা বা ইলম আল-নাফস[১] (আরবি,علم النفس), ‎ নফস ("আত্ম (নিজ)" বা "মন") বিষয়ক বিজ্ঞান,[২] বলতে বুঝায় ইসলামিক দৃষ্টিকোণ থেকে মনের উপর ডাক্তারি ও দার্শনিক গবেষণা; যেটি মনোবিদ্যা, স্নায়ুবিজ্ঞান, মনোদর্শন ও মনোচিকিৎসা প্রভৃতি বিষয়সমূহের উপর আলোকপাত করে।

বিগত বিংশ এবং বর্তমান একবিংশ শতক ধরে মুসলিম মনোবিজ্ঞানী ও ওলামাগণ প্রাথমিক যুগের ইসলামী চিন্তাধারা থেকে প্রাপ্ত মনোবিদ্যা বিষয়ক মতোবাদগুলো আবারো পরীক্ষা করে যাচাই করা শুরু করেছেন।[৩]

পরিভাষা[সম্পাদনা]

বিখ্যাত মুসলিম পন্ডিতগণের লেখনীসমূহে, নফস শব্দটি মানুষের নিজস্ব ব্যক্তিত্বকে বোঝাতে ব্যবহার করা হয়েছে, এবং ফিতরাত শব্দটি ব্যবহৃত হয়েছে মানব প্রকৃতিকে বোঝানোর জন্য| নফস দ্বারা বিস্তৃত পরিসরের একটি অংশকে নির্দেশ করা হয়, যার অন্তভূক্ত হল কলব(হৃদয় বা মন), রুহ(আত্মা), আকল(বুদ্ধি) এবং ইরাদা(ইচ্ছে)|

প্রধান অবদান রাখা ব্যক্তিগণ[সম্পাদনা]

মানসিক সাস্থ্যসেবা[সম্পাদনা]

মানসিক অসুস্থতার চিকিৎসা[সম্পাদনা]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. (Haque 2004, পৃ. 358)
  2. Deuraseh, Nurdeen; Mansor Abu, Talib (২০০৫), "Mental health in Islamic medical tradition", The International Medical Journal, 4 (2): 76–79. 
  3. (Haque 2004)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  • Haque, Amber (২০০৪), "Psychology from Islamic Perspective: Contributions of Early Muslim Scholars and Challenges to Contemporary Muslim Psychologists", Journal of Religion and Health, 43 (4): 357–377, doi:10.1007/s10943-004-4302-z 
  • Plott, C. (২০০০), Global History of Philosophy: The Period of Scholasticism, Motilal Banarsidass, আইএসবিএন 81-208-0551-8 
  • Youssef, Hanafy A.; Youssef, Fatma A.; Dening, T. R. (১৯৯৬), "Evidence for the existence of schizophrenia in medieval Islamic society", History of Psychiatry, 7 (25): 55–62, doi:10.1177/0957154X9600702503, PMID 11609215 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]