মুহাম্মাদের সমালোচনা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
মুহাম্মাদ
বিষয়ের ধারাবাহিকের একটি অংশ
মুহাম্মাদ

মুহাম্মাদের সমালোচনা সপ্তম শতাব্দী থেকেই শুরু হয়, যখন আরবের অমুসলিমরা মুহাম্মাদকে তার একেশ্বরবাদ প্রচারের জন্য সমালোচনা করতেন। মধ্যযুগে খ্রিস্টানরা তার প্রচার করা মতাদর্শগুলোকে খ্রিস্টানবাদে নকল এবং/অথবা শয়তান দ্বারা প্রভাবিত বলে মন্তব্য করে। পরবর্তী সমালোচনাগুলোর মধ্যে ছিলো মুহাম্মাদের নিজেকে নবী হিসেবে দাবীর সততা, তার নৈতিকতা, তার অধীনস্থ দাসী, শত্রুদের সঙ্গে তার আচরণ, তার বিয়েসমূহ, তার মতবাদসমূহের বিশ্লেষণ এবং তার মনস্তাত্ত্বিক অবস্থা।[১]

সমালোচনা[সম্পাদনা]

মুহাম্মাদ এবং সন্ন্যাসী সার্জিয়াস (বহিরা), ১৫০৮ সালে ছবিটি আঁকেন ডাচ শিল্পী লুকাস ভ্যান লেইডেন। প্রাচীন খ্রিস্টীয় সমালোচনায় দাবি করা হয় যে, বহিরা নামক প্রচলিত ধর্মমত বিরোধী খ্রিষ্টান পাদ্রী মুহাম্মাদকে এমন সব বিপথগামী কথা বলেছিলেন যা পরবর্তীতে কোরআনকে প্রভাবিত করে।[২]

প্রাক্তন মুসলিম নাস্তিক/অজ্ঞেয়বাদীদের সমালোচনা[সম্পাদনা]

ইবনে আল-রাওয়ান্দি, আল-মা’আরি এবং আবু ইসা আল-ওয়ারাক বিখ্যাত ছিলেন ধর্মের সমালোচক হিসেবে যারা মুহাম্মাদের নৈতিকতার সমালোচনা করেছিলেন।[৩]

ইহুদীদের দ্বারা সমালোচনা[সম্পাদনা]

মধ্যযুগে ইহুদীরা মুহাম্মাদকে হিব্রু ভাষায় হা-মেশুগ্গাহ্ যার অর্থ হচ্ছে পাগল বলে অভিহিত করতেন। শব্দটি মুহাম্মাদের ক্ষেত্রে বলা হত তার কর্মকাণ্ড দেখে।[৪]

খ্রিষ্টানদের দ্বারা সমালোচনা[সম্পাদনা]

মুহাম্মাদের মৃত্যুর অল্প কিছু কাল পর আরব অঞ্চলের খ্রিষ্টানরা মুহাম্মাদকে মিথ্যা নবী এবং রক্তপিপাসু বলে দাবী করেন।[৫]

জন অব দামাস্কাস (৬৭৬-৭৪৯) নামের এক ব্যক্তি মুহাম্মাদের কুরআন বিষয়ে বলেছিলেন যে, ওটি হচ্ছে বাইবেলের নকল।[৬] আরো বহু খ্রিষ্টান ধর্মগুরু মুহাম্মাদকে খুনী, ভণ্ড এবং নারীসক্ত পাগল বলে অভিহিত করতেন, তারা তাকে যীশুবিরোধী শয়তান বলে যীশুর অনুসারীদেরকে সতর্ক থাকতে বলতেন।[৭]জন অব দামাস্কাস তার 'ফাউন্ট অব উইসডোম' বইয়ের দ্বিতীয় অধ্যায় 'কনসার্নিং হেরেসিয' এ খ্রিস্টান এবং মুসলিমদের অনেক বর্ণনা করেন। অধ্যায়টিতে জন মুহাম্মাদকে মিথ্যা নবী এবং একজন যীশুবিরোধী বলেন।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Aslan, Reza, No God but God: The Origins, Evolution, and Future of Islam, Random House, 2005. আইএসবিএন ১৪০০০৬২১৩৬
  2. From Writings, by St John of Damascus, The Fathers of the Church, vol. 37 (Washington, DC: Catholic University of America Press, 1958), pp. 153–60. Posted 26 March 2006 to The Othordox Christian Information Center – St. John of Damascus’s Critique of Islam
  3. The Clash of Fundamentalisms: Crusades, Jihads and Modernity; Ali, T., Verso, 2003, Pages 55-56
  4. Norman A. Stillman (১৯৭৯)। The Jews of Arab lands: a history and source book। Jewish Publication Society। পৃষ্ঠা 236। আইএসবিএন 978-0-8276-0198-7। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ডিসেম্বর ২০১১ 
  5. Walter Emil Kaegi, Jr., "Initial Byzantine Reactions to the Arab Conquest", Church History, Vol. 38, No. 2 (Jun., 1969), p. 139–49, p. 139–42, quoting from Doctrina Jacobi nuper baptizati 86–87
  6. http://orthodoxinfo.com/general/stjohn_islam.aspx
  7. Husain, Ed (২০০৭)। The Islamist। Penguin। পৃষ্ঠা 146। On a personal level, my relationship with God had deteriorated. ... as I had become more active in the Hizb, my inner consciousness of God had hit an all-time low. "We sermonized about the need for Muslims to return to Islam, but many of the shabab [activists] did not know how to pray. I witnessed at least four new converts to Islam at different university campuses, convinced of the superiority of the `Islamic political ideology` ... but lacking basic knowledge of worship.