শরিয়াহ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

শরীয়া (/ʃəˈriːə/, Arabic: شريعة‎ [ʃaˈriːʕa]) বা ইসলামিক আইন বা শরীয়া আইন হচ্ছে ধর্মীয় আইন যা ইসলামিক ঐতিহ্যের একটি অনুষঙ্গ। এটি ইসলাম ধর্মের নিয়ম-কানুন হতে উৎসরিত, প্রধানত কুরান ও হাদিস হতে । আরবিতে, স্রষ্টার অমোঘ স্বর্গীয় আইন বুঝাতে শরীয়া শব্দটি ব্যবহৃত হয় । শরীয়া শাস্ত্র ও ফিকহ শাস্ত্র পরষ্পর বিপরীত। ফিকহ শাস্ত্র দিয়ে যেখানে সীমিত মানব জ্ঞানে ধর্মের বিভিন্ন বিষয়ের ব্যাখা বিশ্লেষণ করা হয় (যা বিভিন্ন ফিকহ শাস্ত্রবিদদের দৃষ্টিভঙ্গির কারণে কিছুটা ভিন্নতা পেতে পারে) , সেখানে শরীয়া শাস্ত্র বা আইন হচ্ছে অপরিবর্তনশীল ও অবশ্য পালনীয়। তবে, আধুনিক যুগে এর প্রায়োগিক পদ্ধতির কারণে এটি মুসলিম মৌলবাদী তথা গোঁড়াপন্থীদের সাথে আধুনিকতাবাদীদের মতবিরোধের একটি বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ঐতিহ্যগতভাবে ইসলামিক আইনশাস্ত্রে  চারটি উৎসকে শরীয়ার স্বীকৃত উৎস হিসাবে বিবেচনা করা হয়। এগুলো হচ্ছে ধর্মীয় গ্রন্থ কুরান, সুন্নাহ (বিশুদ্ধ হাদিস), কিয়াস (যৌক্তিক সাদৃশ্য) এবং ইজমা (আইনজ্ঞদের ঐক্যমত)। বিভিন্ন মাযহাব (ব্যবহারশাস্ত্র মতবাদ)  যাদের মধ্যে হানাফি, মালিকী, শাফিঈ, হাম্বলী এবং জাফরি মাযহাব প্রসিদ্ধ, শাস্ত্রীয় উৎস সমূহ হতে শরীয়ার আইন নির্ণয়ের জন্য যে পদ্ধতি ব্যবহার করে থাকে, তা ইজতিহাদ নামে পরিচিত। প্রথাগত ব্যবহারশাস্ত্র বা ফিকহশাস্ত্রে শরীয়া আইনসমূহকে দুইটি প্রধান ভাগে ভাগ করে থাকে। এ দুটি বিভাগ হচ্ছে ইবাদত (প্রার্থনা) সম্পর্কিত শরীয়া এবং মুয়ামালাত ( সামাজিক সম্পর্ক ও মিথষ্ক্রিয়া) সম্পর্কিত শরীয়া ।  শরীয়া আইনে কোন কর্ম সংঘটনকে বিচারিক বিশ্লেষণ করতে আইনগত অবস্থার পাশাপাশি  নৈতিক মানদন্ডেও বিবেচনা করা হয় এবং এ কারণে শরীয়তের সিদ্ধান্তসমূহ আবশ্যিক, প্রণোদনামূলক,নিরপেক্ষ,ঘৃণ্য ও নিষিদ্ধ –এই পাঁচ শ্রেণির যে কোন একটির অন্তর্ভুক্ত হয়ে থাকে। এ কারণে, শরীয়া সিদ্ধান্তসমূহের কিছু কিছু ক্ষেত্র পাশ্চাত্যের আইনশাস্ত্রের সিদ্ধান্তসমূহের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ এবং অন্যান্য সিদ্ধান্তসমূহ, বিশেষত প্রাত্যহিক জীবনাচার সম্পর্কিত বিষয়গুলো স্রষ্টার নির্দেশনা অনুযায়ী গ্রহণ করা হয়ে থাকে।