শরিয়াহ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

শরিয়াহ কি?[সম্পাদনা]

শরিয়াহ , (আরবি: شريعة‎ (আইপিএ: [ʃaˈriːʕa])) ।

শরিয়াহ এর সংজ্ঞাঃ

এমন সুদৃঢ় ও সুস্পষ্ট পথ, যা অনুসরন করলে মানুষ সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে নিজ গন্তব্যে পৌছতে পারে। [১]

ইসলামিক পরিভাষায় শরিয়াহঃ

ইসলামি কার্যনীতি বা জীবনপদ্ধতিকে শরিয়ত বলা হয়। অন্যকথায়, ইসলামি আইন কানুন বা বিধি-বিধানকে একত্রে শরিয়াহ বলে। অর্থাৎ মহান আল্লাহ ও তার রাসুল (সা) যেসব আদেশ-নিষেধ ও পথ নির্দেশনা মানুষের জীবন পরিচালনার জন্য প্রদান করেছেন তাকে শরিয়ত বলে।[২]

কুরআন মাজীদে শরিয়াহ[সম্পাদনা]

  • ثُمَّ جَعَلْنَاكَ عَلَىٰ شَرِيعَةٍ مِّنَ الْأَمْرِ فَاتَّبِعْهَا وَلَا تَتَّبِعْ أَهْوَاءَ الَّذِينَ لَا يَعْلَمُونَ

অর্থঃ অতঃপর আমি আপনাকে শরিয়তের উপর প্রতিষ্ঠিত করেছি। সুতরাং আপনি তার অনুসরন করুন। আর আপনি অজ্ঞদের খেয়াল খুশির অনুসরন করবেন না।[৩]

  • اتَّبِعُوا مَا أُنزِلَ إِلَيْكُم مِّن رَّبِّكُمْ وَلَا تَتَّبِعُوا مِن دُونِهِ أَوْلِيَاءَ ۗ قَلِيلًا مَّا تَذَكَّرُونَ

অর্থঃ তোমরা অনুসরণ কর, যা তোমাদের প্রতি পালকের পক্ষ থেকে অবতীর্ণ হয়েছে এবং আল্লাহকে বাদ দিয়ে অন্য সাথীদের অনুসরণ করো না।[৪]

  • وَأَنزَلْنَا إِلَيْكَ الْكِتَابَ بِالْحَقِّ مُصَدِّقًا لِّمَا بَيْنَ يَدَيْهِ مِنَ الْكِتَابِ وَمُهَيْمِنًا عَلَيْهِ ۖ فَاحْكُم بَيْنَهُم بِمَا أَنزَلَ اللَّهُ ۖ وَلَا تَتَّبِعْ أَهْوَاءَهُمْ عَمَّا جَاءَكَ مِنَ الْحَقِّ ۚ لِكُلٍّ جَعَلْنَا مِنكُمْ شِرْعَةً وَمِنْهَاجًا ۚ وَلَوْ شَاءَ اللَّهُ لَجَعَلَكُمْ أُمَّةً وَاحِدَةً وَلَٰكِن لِّيَبْلُوَكُمْ فِي مَا آتَاكُمْ ۖ فَاسْتَبِقُوا الْخَيْرَاتِ ۚ إِلَى اللَّهِ مَرْجِعُكُمْ جَمِيعًا فَيُنَبِّئُكُم بِمَا كُنتُمْ فِيهِ تَخْتَلِفُونَ

অর্থঃ আমি আপনার প্রতি অবতীর্ণ করেছি সত্যগ্রন্থ, যা পূর্ববতী গ্রন্থ সমূহের সত্যায়নকারী এবং সেগুলোর বিষয়বস্তুর রক্ষণাবেক্ষণকারী। অতএব, আপনি তাদের পারস্পারিক ব্যাপারাদিতে আল্লাহ যা অবতীর্ণ করেছেন, তদনুযায়ী ফয়সালা করুন এবং আপনার কাছে যে সৎপথ এসেছে, তা ছেড়ে তাদের প্রবৃত্তির অনুসরণ করবেন না। আমি তোমাদের প্রত্যেককে একটি আইন ও পথ দিয়েছি। যদি আল্লাহ চাইতেন, তবে তোমাদের সবাইকে এক উম্মত করে দিতেন, কিন্তু এরূপ করেননি-যাতে তোমাদেরকে যে ধর্ম দিয়েছেন, তাতে তোমাদের পরীক্ষা নেন। অতএব, দৌড়ে কল্যাণকর বিষয়াদি অর্জন কর। তোমাদের সবাইকে আল্লাহর কাছে প্রত্যাবর্তন করতে হবে। অতঃপর তিনি অবহিত করবেন সে বিষয়, যাতে তোমরা মতবিরোধ করতে।[৫]

  • اتَّبِعْ مَا أُوحِيَ إِلَيْكَ مِن رَّبِّكَ

অর্থঃ আপনি পথ অনুসরণ করুন, যার আদেশ পালনকর্তার পক্ষ থেকে আসে।[৬]

উক্ত আয়াত গুলোর পর্যালোচনা করলে দেখা যায় মুসলিমরা সেটাই মানে যা তাদের আল্লাহ তায়ালা নাযিল করেছেন , মোট কথা আল্লাহ তায়ালা যে আইন কানুন নিয়ম বিধিবিধান নাযিল করেছেন তাই শরিয়াহ এবং তাকে একনিষ্ঠ ভাবে মেনে চলা প্রত্যেক মুসলিমের উপর ফরয।[৭]

শরিয়াহ এর উৎস[সম্পাদনা]

শরিয়াহ এর প্রধানতম উৎস ২ টি।[৮] কুরআন মাজীদ থেকেঃ

  • وَأَنزَلَ اللَّهُ عَلَيْكَ الْكِتَابَ وَالْحِكْمَةَ

অর্থঃ আল্লাহ তোমার উপর অবতির্ন করেছেন কিতাব (কুরআন) এবং হিকমাহ (হাদিস)[৯]

  • وَاذْكُرُوا نِعْمَتَ اللَّهِ عَلَيْكُمْ وَمَا أَنزَلَ عَلَيْكُم مِّنَ الْكِتَابِ وَالْحِكْمَةِ يَعِظُكُم بِهِ

অর্থঃ আল্লাহর সে অনুগ্রহের কথা স্মরণ কর, যা তোমাদের উপর রয়েছে এবং তাও স্মরণ কর, যে কিতাব (কুরআন) ও হিকমার (হাদিস) কথা তোমাদের উপর নাযিল করা হয়েছে যার দ্বারা তোমাদেরকে উপদেশ দান করা হয়।[১০]

  • لَقَدْ مَنَّ اللَّهُ عَلَى الْمُؤْمِنِينَ إِذْ بَعَثَ فِيهِمْ رَسُولًا مِّنْ أَنفُسِهِمْ يَتْلُو عَلَيْهِمْ آيَاتِهِ وَيُزَكِّيهِمْ وَيُعَلِّمُهُمُ الْكِتَابَ وَالْحِكْمَةَ وَإِن كَانُوا مِن قَبْلُ لَفِي ضَلَالٍ مُّبِينٍ

অর্থঃ আল্লাহ ঈমানদারদের উপর অনুগ্রহ করেছেন যে, তাদের মাঝে তাদের নিজেদের মধ্য থেকে নবী পাঠিয়েছেন। তিনি তাদের জন্য তাঁর আয়াতসমূহ পাঠ করেন। তাদেরকে পবিত্র করেন এবং তাদেরকে কিতাব (কুরআন) ও হিকমাহ (হাদীস) শিক্ষা দেন। বস্তুতঃ তারা ছিল পূর্ব থেকেই পথভ্রষ্ট।[১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "British & World English: sharia" (ইংরেজি ভাষায়)। Oxford: Oxford University Press। সংগৃহীত ৪ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  2. Esposito, John (১৯৯৯)। The Oxford history of Islam (ইংরেজি ভাষায়)। New York: Oxford University Press। আইএসবিএন 978-0-19-510799-9 [পৃষ্ঠা নম্বর]
  3. সুরা-জাসিয়া ১৮
  4. সুরা-আরাফ ০৩
  5. সুরা-মায়িদাহ ৪৮
  6. সুরা-আনাম ১০৬
  7. Nomani and Rahnema (1994), p. 3–4 (ইংরেজি ভাষায়)
  8. Mutahhari, Morteza"Jurisprudence and its Principles" (ইংরেজি ভাষায়)। Tahrike Tarsile Qur'an। সংগৃহীত ২০০৮-০৭-২৬ 
  9. সুরা-নিসা ১১৩
  10. সুরা-বাকারা ২৩১
  11. সুরা-আলে ইমরান ১৬৪

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]