দ্বীন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

দ্বীন (دين), একটি আরবি শব্দ, যা প্রধাণত ইসলাম ধর্মের সাথে অধিক সম্পৃক্ত, পাশাপাশি আরব খ্রিস্টানরাও তাদের উপাসনার ক্ষেত্রে এই শব্দটি ব্যবহার করে |একে প্রায়শই "ধর্ম" হিসেবে অনুবাদ করা হয়, কিন্তু ইসলামী প্রধান ধর্মগ্রন্থ কুরআনে শব্দটির দ্বারা একজন ন্যায়নিষ্ঠ মুসলিমের জন্য পালনীয় পূর্ণাঙ্গ জীবন ব্যবস্থাকে [১] বোঝানো হয়েছে, যা কুরআনহাদীস হতে প্রাপ্ত শিক্ষা, আদর্শ ও নির্দেশাবলী দ্বারা পরিচালিত হবে[২]। ইসলামী শরীয়াহ আইনকেও অনেক সময় দ্বীন হিসেবে নির্দেশ করা হয়| কিছু মুসলিমের মতে, দ্বীন শব্দটির প্রয়োগ পরিসর হল শুধুমাত্র মুসলিমদের ধর্মীয় জীবন। আবার কিছু মুসলিমের মতে, দ্বীনের প্রয়োগ সামষ্টিকভাবে মুসলিমদের জীবনের সকল শাখায় প্রযোজ্য হতে পারে। [৩]

শব্দতত্ত্ব[সম্পাদনা]

ইসলাম ধর্মে দ্বীন শব্দের ব্যবহার[সম্পাদনা]

বহু হাদিসে, দ্বীনকে মধ্যমপন্থী জীবনব্যবস্থা হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে:

আবু হুরায়রা বর্ণিত, নবী (সাঃ) বলেছেন, "ধর্ম (দ্বীন) খুব সহজ এবং যে ব্যক্তি তার ধর্মে সাধ্যের অতিরিক্ত বোঝা নিজের উপর চাপিয়ে নেয়, সে তা উক্ত পন্থায় অব্যহত রাখতে পারে না। তাই তোমাদের চরমপন্থী হওয়া উচিৎ নয়, কিন্তু পূর্ণ সঠিকতার নিকটবর্তী হওয়ার চেষ্টা করা উচিৎ এবং ভালো কিছু পাওয়ার আশা করা উচিৎ, এবং দিনে ও রাতে উপাসনার মাধ্যমে (মানসিক) শক্তি অর্জন করা উচিৎ।"

— সহীহ বুখারী, ১:২:৩৯ (ইংরেজি), (ফাতহ-উল-বারি, পৃষ্ঠা ১০২, ভলিউম ১)

ইহুদি ধর্মে দ্বীন শব্দের ব্যবহার[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. For instance, translations of the Qur'an by Marmaduke Pickthall, Shakir, and others (ইংরেজি ভাষায়)
  2. e.g. 1:4, 2:256, 4:46, 8:72, 9:11, 9:122, 15:35, 22:78, etc. (ইংরেজি ভাষায়)
  3. "Inside the Gender Jihad", p. 92, Amina Wadud, Oneworld Publications, 2006 (ইংরেজি ভাষায়)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]