বিরল উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিরল
উপজেলা
বিরল বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
বিরল
বিরল
বাংলাদেশে বিরল উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৫°৩৮′১২″ উত্তর ৮৮°৩২′১৭″ পূর্ব / ২৫.৬৩৬৬৭° উত্তর ৮৮.৫৩৮০৬° পূর্ব / 25.63667; 88.53806স্থানাঙ্ক: ২৫°৩৮′১২″ উত্তর ৮৮°৩২′১৭″ পূর্ব / ২৫.৬৩৬৬৭° উত্তর ৮৮.৫৩৮০৬° পূর্ব / 25.63667; 88.53806 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগরংপুর বিভাগ
জেলাদিনাজপুর জেলা
আয়তন
 • মোট৩৫৩.৫৮ কিমি (১৩৬.৫২ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০০১)[১]
 • মোট২,৫৭,৯২৫
 • জনঘনত্ব৭৩০/কিমি (১৯০০/বর্গমাইল)
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড২৫১০
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৫৫ ২৭ ১৭
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

বিরল বাংলাদেশের দিনাজপুর জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

অবস্থান[সম্পাদনা]

এই উপজেলার উত্তরে বোচাগঞ্জ উপজেলাকাহারোল উপজেলা, দক্ষিণে দিনাজপুর সদর উপজেলা ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য, পূর্বে দিনাজপুর সদর উপজেলা ও পুনর্ভবা নদী, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য ও বোচাগঞ্জ উপজেলা

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

বিরল উপজেলায় ১২টি ইউনিয়ন রয়েছে।

  1. বিরল
  2. আজিমপুর
  3. ফরক্কাবাদ
  4. ধামইর
  5. শহরগ্রাম
  6. ভান্ডারা
  7. বিজোড়া
  8. ধর্মপুর
  9. মঙ্গলপুর
  10. রাণীপুকুর
  11. পলাশবাড়ী
  12. রাজারামপুর

ইতিহাস[সম্পাদনা]

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

কলেজ[সম্পাদনা]

ক্রমিক নং নাম প্রতিষ্ঠাকাল
মুন্সিপাড়া আদর্শ কলেজ ১৯৯৯
মাইনুল হাসান মহাবিদ্যালয় ১৯৯৪
ধুকুরঝাড়ী কলেজ
আজিতপুর টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ ২০০৪ খ্রীঃ
জগতপুর কলেজ ১৯৯৫
কাঞ্চন নিউ মডেল কলেজ ১৯৯৯ সাল
পূনর্ভবা টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজ ২০১১ সাল।
বিরল সরকারী কলেজ ১৯৫৯

মাধ্যমিক বিদ্যালয়[সম্পাদনা]

ক্রমিক নং নাম স্থাপিত
রুদ্রপুর মেসনা এস.সি. দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৬৯
ধুকুরঝাড়ী দ্বি- মুখি উচ্চ বিদ্যালয়
ফরক্কাবাদ এন.আই উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৬৩
আজিমপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়। ০১/০১/১৯৯৩ ইং
বালান্দোর উচ্চ বিদ্যালয়।
বেতুড়া দ্বি-মুখি উচ্চ বিদ্যালয়। ১৯৬৪
মোহনা মঙ্গলপুর উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৫৪
উত্তর বিষ্ণুপুর ভি,এম.এস.সি উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৪৫
উত্তর মাধবপুর উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৯৫
১০ জিনইর উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৯২
১১ রাজুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়
১২ পাকুড়া উচ্চ বিদ্যালয় ২০০২
১৩ রামপুর উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়।
১৪ মুন্সিপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৬০
১৫ কালিয়াগঞ্জ এস, সি উচ্চ বিদ্যালয় ০১/০১/১৯৮২ ইং
১৬ চৌধুরীডাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৯৩
১৭ কামদেবপুর উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৬৭
১৮ কাশিডাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৯৪
১৯ দঃমাধবপুর উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৯৪
২০ বিস্তইড় উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৯৪
২১ ধর্মপুর্ ইউ,সি,উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৬৬
২২ মির্জাপুর উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৯৫
২৩ ঢেরাপাটিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়
২৪ তেঘরা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২০০০
২৫ কানাইবাড়ী মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১৯৮১
২৬ সারাঙ্গাই পলাশবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৭১
২৭ চকের হাট উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৯৩
২৮ করলা মাধববাটী উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৬৮
২৯ বিরল পাইলা মঠেল উচ্চ বিদ্যালয় ১৪২০
৩০ মখলেশপুর উচ্চবিদ্যালয় ১৯৬২

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

এ অঞ্চলের অর্থনীতি কৃষি নির্ভর।ধান,ভুট্টা,গম, লিচু এখানকার প্রধান উৎপাদনকারী ফসল। এ উপজেলার মাধববাটী গ্রাম লিচু চাষের জন্য বিখ্যাত।

নদীসমূহ[সম্পাদনা]

বিরল উপজেলায় ৩ টি নদী রয়েছে। নদীগুলো হচ্ছে পুনর্ভবা নদী , টাঙ্গন নদী এবং তুলাই নদী।[২]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

ছতিশ চন্দ্র রায় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ১৯৯৬। অধ্যাপক ইউসুফ আলী। প্রথম শিক্ষা মন্ত্রী।

বিশেষ জায়গা[সম্পাদনা]

১। কড়ই বিল ২। ধর্মপুরের শালবন ৩। দীপশিখা মেটিস্কুল।

তথ্যসুত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে বিরল উপজেলা"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। ১১ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  2. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৪০৫।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]