চিরিরবন্দর উপজেলা

স্থানাঙ্ক: ২৫°৩৯′৪৭″ উত্তর ৮৮°৪৬′৪৫″ পূর্ব / ২৫.৬৬৩০৬° উত্তর ৮৮.৭৭৯১৭° পূর্ব / 25.66306; 88.77917
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
চিরিরবন্দর
উপজেলা
চিরিরবন্দর রংপুর বিভাগ-এ অবস্থিত
চিরিরবন্দর
চিরিরবন্দর
চিরিরবন্দর বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
চিরিরবন্দর
চিরিরবন্দর
বাংলাদেশে চিরিরবন্দর উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৫°৩৯′৪৭″ উত্তর ৮৮°৪৬′৪৫″ পূর্ব / ২৫.৬৬৩০৬° উত্তর ৮৮.৭৭৯১৭° পূর্ব / 25.66306; 88.77917 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশবাংলাদেশ
বিভাগরংপুর বিভাগ
জেলাদিনাজপুর জেলা
সংসদীয় আসনদিনাজপুর-৪ (চিরিরবন্দর- খানসামা)
সরকার
 • এমপিআবুল হাসান মাহমুদ আলী (বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ)
আয়তন
 • মোট৩১২.৮৫ বর্গকিমি (১২০.৭৯ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট২,৯২,৫০০
 • জনঘনত্ব৯৩০/বর্গকিমি (২,৪০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৫২৪০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৫৫ ২৭ ৩০
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

চিরিরবন্দর উপজেলা বাংলাদেশের দিনাজপুর জেলার অন্তর্গত একটি প্রশাসনিক কেন্দ্র।

অবস্থান[সম্পাদনা]

জেলা সদর হতে ১৬ কি.মি পূর্বে এর অবস্থান। এই উপজেলার উত্তরে খানসামা উপজেলা, পূর্বে পার্বতীপুর উপজেলা, দক্ষিণে ফুলবাড়ী উপজেলাভারত এবং পশ্চিমে দিনাজপুর সদর উপজেলা

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ব্রিটিশ আমলে চিরির নদীর তীরে সওদাগররা বড় বড় নৌকায় করে পণ্য আনা নেয়া করত। ব্যবসার কারণে এ নদীর তীরে একটি বন্দর গড়ে ওঠে। চিরির নদীর নামানুসারে এ বন্দরটির নাম হয় চিরিরবন্দর। ১৯১৪ সালে চিরিরবন্দর থানা গঠিত হয়। এরপর ১৯৮৩ সালে চিরিরবন্দর উপজেলায় পরিণত হয়।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

২০১১ সালের জরিপ অনুযায়ী মোট জনসংখ্যা ২,৯২,৫০০ জন; এর মধ্যে পুরুষ - ১,৪৬,৬১৯ জন এবং মহিলা - ১,৪৫,৮৮১ জন। জনসংখ্যার ঘনত্ব ৮৫৯।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

প্রধান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে:

স্কুল
কলেজ

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

কৃষি

চিরিরবন্দর উপজেলার অধিকাংশ মানুষই কোন না কোনভাবে কৃষি কাজের সাথে জড়িত। ধান, গম, ভুট্টা, কলা ও আলু প্রধান অর্থকরী ফসল। এছাড়া পেঁয়াজ, রসুন, লিচুও অন্যতম। নদীতে প্রাপ্ত মাছ ছাড়াও এ অঞ্চলে বাণিজ্যিকভাবে মাছ চাষ করা হয়।

শিল্প

উপজেলার ৩নং ফতেজংপুর ইউনিয়ন পরিষদে নির্মাণাধীন রপ্তানী প্রক্রিয়াকরণ এলাকা "ট্রিলিয়ন গোল্ড লিমিটেড" বেকার সমস্যা সমাধানের সাথে সাথে এলাকার উন্নয়নেও ভূমিকা রাখবে।

নদীসমূহ[সম্পাদনা]

চিরিরবন্দরের কাছে রেলসেতু থেকে তোলা কাঁকড়া নদীর দৃশ্য।

চিরিরবন্দরে তিনটি নদী রয়েছে। নদী তিনটি হচ্ছে আত্রাই নদী, ছোট যমুনা নদী এবং কাঁকড়া নদী[২]

বিবিধ[সম্পাদনা]

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

চিরিরবন্দর উপজেলায় ইউনিয়ন রয়েছে ১২ টি।

গ্যালারি[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন ২০১৪)। "এক নজরে চিরিরবন্দর"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। ২৯ জুলাই ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৫ 
  2. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৪০৪।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]