বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো.jpg
নীতিবাক্যমহাকাশ ও তা পেরিয়ে
ধরনসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯; ৩ বছর আগে (2019-02-28)
আচার্যরাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ
উপাচার্যএয়ার ভাইস মার্শাল নজরুল ইসলাম
অবস্থান,
শিক্ষা ব্যবস্থাসহ শিক্ষা
স্বীকৃতিইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ
পোশাকের রঙধাতব স্বর্ণালী এবং মধ্যরাতের নীলাভ          
অধিভুক্তিবিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন
ওয়েবসাইটwww.bsmraau.edu.bd

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়, লালমনিরহাট বাংলাদেশের একটি বিশেষায়িত সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়।[১] এটি বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে নির্মিত হয়। এটি আকাশ বিজ্ঞান প্রকৌশল সম্পর্কিত বাংলাদেশের প্রথম উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।[২] বিশ্ববিদ্যালয়টি ঢাকার আশকোনায় ১১ একর জমির উপর অস্থায়ী ভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়। স্থায়ী ক্যাম্পাস লালমনিরহাটে স্থাপনের প্রক্রিয়া চলছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০১৮ সালের ১১ জুলাই এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য ইউজিসি খসড়া আইন তৈরি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সালে মন্ত্রী পরিষদের বৈঠকে বিএসএমআরএএইউ প্রতিষ্ঠার জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল, একই দিনে আরও তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় নীতিগত অনুমোদন পায়। ২০১৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে একটি বিল পাশ হয়।[৩] বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ঢাকার তেজগাঁওয়ে অবস্থিত পুরাতন বিমানবন্দরে অস্থায়ী কার্যালয় স্থাপন করা হয়েছে। ২০১৯ সালের ৬ মে এয়ার ভাইস মার্শাল এএইচএম ফজলুল হককে ভাইস চ্যাঞ্জেলর হিসেব নিয়োগ দেওয়া হয়।[৪][৫] রাজধানীর তেজগাঁওয়ে পাবলিক সার্ভিস কমিশনের পুরোনো ভবনের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয়টির আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয় ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০[৬]

একাডেমিক কার্যক্রম[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়টিতে উড়োজাহাজ নিয়ে গবেষণার পাশাপাশি এগিয়ে চলছে স্যাটেলাইট তৈরির কাজও। এর অন্যতম গবেষণা প্রজেক্ট ‘পিকো-স্যাটেলাইট ফর বাংলাদেশ’। পিকো-স্যাটেলাইট দিয়ে বাংলাদেশেই তাত্ক্ষণিক বন্যা পরিস্থিতি বা ট্রাফিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব হবে বলে জানান এ প্রজেক্টের কো-অর্ডিনেটর ও ইনভেস্টিগেটর, স্পেস কমিউনিকেশন অ্যান্ড নেভিগেশন টেকনোলজি বিভাগের প্রভাষক মো. সামিন রহমান। প্রজেক্টের প্রিন্সিপ্যাল ইনভেস্টিগেটর ও সুপারভাইজার অধ্যাপক ড. নাজমুল উলার তত্ত্বাবধানে ৩২ জন শিক্ষার্থী ও শিক্ষক একসঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন একটি আশা নিয়ে, একদিন এ গ্রাউন্ড স্টেশনেই, নিজেদের তৈরি স্যাটেলাইটের বিভিন্ন ছবি সংরক্ষিত হবে।[৭]

স্নাতক (সম্মান)[সম্পাদনা]

  • বিএসসি ইন এভিয়েশন (ফ্লাইং)
  • বিএসসি ইন এভিয়েশন অপারেশন ম্যানেজমেন্ট
  • বিএসসি ইন এভিয়েশন সায়েন্স (এয়ার স্পেস এন্ড ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট)
  • বিমানবন্দর প্রকৌশলে বিএসসি
  • বিএসসি ইন আরো নটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং
  • বিএসসি ইন এভিয়েশন সেফটি এন্ড সিকিউরিটি
  • এয়ারক্রাফট ব্যবস্থাপনা প্রকৌশলে বিএসসি
  • কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশলে বিএসসি
  • ইলেক্ট্রিক্যাল ও ইলেক্ট্রনিক প্রকৌশলে বিএসসি
  • ম্যাকানিকাল প্রকৌশলে বিএসসি
  • তথ্য ও কম্পিউটার প্রকৌশলে বিএসসি
  • ব্যাচেলর ইন সোসাল সায়েন্স

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Ahmed, Bulbul। "Bangabandhu aviation university in Lalmonirhat soon" (ইংরেজি ভাষায়)। Bangladesh Sangbad Sangstha (BSS)। ২০১৯-০৯-১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-০৯ 
  2. "অনুমোদন পাচ্ছে এভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেসসহ ৪ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়"নয়া দিগন্ত। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-০৯ 
  3. "এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়সহ তিনটি বিল পাস"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-১৬ 
  4. "'২০২০ সালে চালু হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়'"banglatribune.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-১৭ 
  5. "Country's first aviation univ will be in Lalmonirhat"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৮-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-০৯ 
  6. নিউজ, সময়। "Somoy Tv News"Somoy News। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০১-০৯ 
  7. BonikBarta। "এভিয়েশনে উচ্চশিক্ষার নতুন দিগন্ত"এভিয়েশনে উচ্চশিক্ষার নতুন দিগন্ত (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০১-০৯