রৌমারী উপজেলা

স্থানাঙ্ক: ২৫°৩৩′৪৩″ উত্তর ৮৯°৫১′০″ পূর্ব / ২৫.৫৬১৯৪° উত্তর ৮৯.৮৫০০০° পূর্ব / 25.56194; 89.85000
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রৌমারী
উপজেলা
রৌমারী রংপুর বিভাগ-এ অবস্থিত
রৌমারী
রৌমারী
রৌমারী বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
রৌমারী
রৌমারী
বাংলাদেশে রৌমারী উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৫°৩৩′৪৩″ উত্তর ৮৯°৫১′০″ পূর্ব / ২৫.৫৬১৯৪° উত্তর ৮৯.৮৫০০০° পূর্ব / 25.56194; 89.85000 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশবাংলাদেশ
বিভাগরংপুর বিভাগ
জেলাকুড়িগ্রাম জেলা
আসনকুড়িগ্রাম-৪
সরকার
 • সাংসদজাকির হোসেন (বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ)
আয়তন
 • মোট১৯৭.৮০ বর্গকিমি (৭৬.৩৭ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট২,০৩,৯৪৯
 • জনঘনত্ব১,০০০/বর্গকিমি (২,৭০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৪৩%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৫৬৪০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৫৫ ৪৯ ৭৯
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

রৌমারী উপজেলা বাংলাদেশের কুড়িগ্রাম জেলার একটি প্রশাসনিক এলাকা।

অবস্থান ও সীমানা[সম্পাদনা]

কুড়িগ্রাম জেলার দক্ষিণাংশে ২৫°২৭´ থেকে ২৫°৪৩´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৯°৪৫´ থেকে ৮৯°৫৩´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ জুড়ে রৌমারি উপজেলার অবস্থান। এ উপজেলার উত্তরে উলিপুর উপজেলাভারতের আসাম রাজ্য, দক্ষিণে চর রাজিবপুর উপজেলা, পূর্বে ভারতের আসাম রাজ্য এবং পশ্চিমে চর রাজিবপুর, চিলমারীউলিপুর উপজেলা অবস্থিত।

নামকরণ[সম্পাদনা]

ধারণা করা হয়, প্রাচীনকালে এ অঞ্চলে প্রচুর পরিমাণে রুই মাছ পাওয়া যেত, এ কারণে এ অঞ্চলটি 'রুইমারী' নামে পরিচিত ছিলো; যা কালক্রমে রৌমারী নামে রুপান্তরিত হয়।

আয়তন[সম্পাদনা]

রৌমারী উপজেলার মোট আয়তন ১৯৭.৮০ বর্গ কিলোমিটার।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৪৭ সালের ভারত বিভাগের প্রাক্কালে আসামের মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ গোয়ালপাড়া জেলা পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত করার দাবিতে রৌমারী সীমান্তের নিকট বড়াইবাড়ি নামক স্থানে মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী ও মানকাচরের আবদুল কাশেম মিয়া পাকিস্তান কেল্লা প্রতিষ্ঠা করেন এবং স্থানীয় যুবকদের সংঘবদ্ধ করে একটি মিলিশিয়া বাহিনী গঠন করেন। এই স্থানে একটি বিশাল মঞ্চ স্থাপন করে সাত দিন ধরে ঐ উঁচু মঞ্চে উঠে মওলানা ভাসানী লক্ষ লক্ষ মানুষের সমাবেশে ভাষণ দেন।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

রংপুর জেলার অধীনে রৌমারী থানা গঠিত হয় ১৯০৮ সালে এবং ১৯৮৩ সালের ১ আগস্ট থানাকে উপজেলায় রূপান্তর করা হয়। এ উপজেলায় কোনো পৌরসভা নাই ও ৬টি ইউনিয়ন রয়েছে। উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের প্রশাসনিক কার্যক্রম রৌমারী থানার আওতাধীন।

ইউনিয়নসমূহ:

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

২০১১ সালের আদশুমারী অনুযায়ী রৌমারী উপজেলার মোট জনসংখ্যা ২,০৩,৯৪৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৯৯,৪৫৬ জন এবং মহিলা ১,০৪,৪৯৩ জন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

২০১১ সালের আদমশুমারী অনুযায়ী রৌমারী উপজেলার সাক্ষরতার হার ৪৩%। এ উপজেলায় ৮টি কলেজ, ২টি কারিগরি কলেজ, ২৬টি উচ্চ বিদ্যালয়, ১০৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১টি ফাজিল মাদ্রাসা, ১টি আলিম মাদ্রাসা ও ১৩টি দাখিল মাদ্রাসা রয়েছে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

কলেজ
  • রৌমারী ডিগ্রি কলেজ (১৯৭৯)
  • রৌমারী মহিলা ডিগ্রি কলেজ (১৯৯৫)
  • যাদুর চর মডেল কলেজ (১৯৯৯)
  • চর শৌলমারী ডিগ্রী কলেজ
  • চর শৌলমারী আদর্শ মহিলা কলেজ
উচ্চ বিদ্যালয়
  • যাদুর চর উচ্চ বিদ্যালয় (১৯৪৬)
  • রৌমারী সিজি জামান উচ্চ বিদ্যালয় (১৯৪৮)
  • বড়াইকান্ধি এম আর উচ্চ বিদ্যালয় (১৯৮৬)
  • কজিকাটা জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয়
প্রাথমিক বিদ্যালয়
  • রৌমারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (১৮৯৮)
  • চাকতাবাড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয় (১৯৩২)
  • মির্জাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (১৯৩৬)
মাদ্রাসা
  • ফুলুয়ার চর জুনিয়র মাদ্রাসা (১৯৩৩)
  • রৌমারী কেরামতিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা (১৯৩৭)

স্বাস্থ্য[সম্পাদনা]

রৌমারী উপজেলায় ১টি সরকারি হাসপাতাল, ২৭টি কমিউনিটি ক্লিনিক, ২টি পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র রয়েছে।

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

রৌমারী উপজেলায় মোট আবাদি জমির পরিমাণ ১৫,৫৫৫ হেক্টর। এ উপজেলার জনগোষ্ঠীর আয়ের প্রধান উৎস কৃষি ৭৭.৪০%, অকৃষি শ্রমিক ৩.৫৭%, শিল্প ০.৮০%, ব্যবসা ৬.৪০%, পরিবহন ও যোগাযোগ ০.৫৭%, চাকরি ৩.২৫%, নির্মাণ ০.৪৯%, ধর্মীয় সেবা ০.১৫%, রেন্ট অ্যান্ড রেমিটেন্স ০.০৭% এবং অন্যান্য ৭.৩০%।

ভূমিমালিক ৫৫.০৫%, ভূমিহীন ৪৪.৯৫%। শহরে ৪৫.৩৪% এবং গ্রামে ৫৬.৪৮% পরিবারের কৃষিজমি রয়েছে।

প্রধান কৃষি ফসল ধান, পাট, গম, আখ, ভুট্টা, সরিষা, বাদাম, তিল, শাকসবজি।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় ফসলাদি খেসারি, ছোলা, অড়হর, তিসি, কাউন, চীনা, শন।

প্রধান ফল-ফলাদি আম, জাম, কাঁঠাল, কলা, পেঁপে।

যোগাযোগ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

রৌমারী উপজেলায় ৬৫ কিলোমিটার পাকা রাস্তা, ৪৮৯ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা ও ৩০ নটিক্যাল মাইল নদীপথ রয়েছে।

ধর্মীয় উপাসনালয়[সম্পাদনা]

রৌমারী উপজেলায় ৩৪৫টি মসজিদ, ৫টি মন্দির রয়েছে ও কোনো গির্জা নাই।

নদ-নদী[সম্পাদনা]

রৌমারী উপজেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে ব্রহ্মপুত্র নদী, হলহলি নদী, সোনাভরী নদী, জিনজিরাম নদী। এছাড়াও এ উপজেলায় অনেক বিল রয়েছে, তন্মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিল হল নটান বিল, ইছাকুড়ি বিল, ভেড়ামারী বিল, আলীর ডোবা, মাদাইডাঙ্কার বিল, বাউশমারীর বিল, দেওকুড়া বিল। ধারণা করা হয়, এ উপজেলায় অনেক চর রয়েছে যার মধ্যে থেকে এ অঞ্চলটি জেগে উঠেছে।[২]

হাট-বাজার[সম্পাদনা]

রৌমারী উপজেলায় ১৯টি হাটবাজার রয়েছে ও ২টি মেলা হয়ে থাকে।

উল্লেখযোগ্য হাটবাজার
  • রৌমারী হাট বাজার
  • দাঁতভাঙ্গা হাট বাজার
  • আমবাড়ি হাট বাজার
  • শিমুলতলী হাট বাজার
  • সোনাবাড়ি হাট বাজার
  • পাখুরিয়া হাট বাজার
  • চর শৌলমারী হাট বাজার
  • টাপুরচর হাজীর হাট বাজার
  • শেখের হাট বাজার
  • চুলিয়ার চর হাট বাজার
  • কর্ত্তিমারী হাট বাজার
  • সায়দাবাদ হাট বাজার
  • সোনাপুর হাট বাজার
  • বড়াইকান্দি হাট বাজার
  • বাইটকামারী হাট বাজার
  • কাজাইকাটা গাছবাড়ী হাট বাজার
  • গোয়ালগ্রাম হাট বাজার
  • খেওয়ার চর হাট বাজার
  • কাজাইকাটা লাউবাড়ী হাট বাজার

পত্র-পত্রিকা ও সাময়িকী[সম্পাদনা]

  • পাক্ষিক: দ্বীপ দেশ
  • মাসিক: উত্তর চিত্র
  • অবলুপ্ত: অগ্রদূত

মুক্তিযুদ্ধের ঘটনাবলি[সম্পাদনা]

মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময় সেক্টর কামান্ডার মেজর জিয়াউর রহমান, কর্নেল তাহের, উইং কমান্ডার হামিদুল্লাহ খান এবং আরও অনেকে পর্যায়ক্রমে এখান থেকে ১১নং সেক্টরে গেরিলা যুদ্ধ সংগঠন ও পরিচালনা করেন। এখানে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হতো এবং এখান থেকে চিলমারী, উলিপুর ও গাইবান্ধা জেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হতো। রৌমারীকে মুক্তাঞ্চল বলা হয় কারণ পাক হানাদাররা এ অঞ্চলে আসতে সাহস পায়নি।

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

  • বড়াইবাড়ি - ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যকার সীমান্ত যুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থান ও ৩ জনের "শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ"
  • রৌমারী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার
  • তুরা রোড
  • তুরা স্থলবন্দর
  • চানমারী
  • ফলুয়ার চর নৌকা ঘাট
  • গোয়ালপাঁড়া রাজার ঘোড়দৌড় মাঠ

উল্লেখযোগ্য ব্যক্তি[সম্পাদনা]

জনপ্রতিনিধি[সম্পাদনা]

সংসদীয় আসন
সংসদীয় আসন জাতীয় নির্বাচনী এলাকা সংসদ সদস্য রাজনৈতিক দল
২৮ কুড়িগ্রাম-৪ রৌমারী উপজেলা, চর রাজিবপুর উপজেলা, চিলমারী উপজেলার অষ্টমীরচর ইউনিয়ননয়ারহাট ইউনিয়ন এবং উলিপুর উপজেলার আলগা ইউনিয়ন মোহাম্মদ জাকির হোসেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসন
ক্রম নং পদবী নাম
০১ উপজেলা চেয়ারম্যান[৩] মোহাম্মদ শেখ আব্দুল্লাহ
০২ ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মোজাফ্ফর হোসেন
০৩ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ মাহমুদা আক্তার স্মৃতি
০৪ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবদুল হান্নান

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "এক নজরে রৌমারী"বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। জুন ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৫ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "নদ-নদী - রৌমারী উপজেলা"www.rowmari.kurigram.gov.bd 
  3. "জনাব মোঃ শেখ আব্দুল্যাহ্ - রৌমারি উপজেলা"www.rowmari.kurigram.gov.bd 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]