হাটহাজারী উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অন্য ব্যবহারের জন্য, দেখুন হাটহাজারী (দ্ব্যর্থতা নিরসন)
হাটহাজারী
উপজেলা
হাটহাজারী বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
হাটহাজারী
হাটহাজারী
বাংলাদেশে হাটহাজারী উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২২°৩০′৩০″উত্তর ৯১°৪৮′৩০″পূর্ব / ২২.৫০৮৩° উত্তর ৯১.৮০৮৩° পূর্ব / 22.5083; 91.8083স্থানাঙ্ক: ২২°৩০′৩০″উত্তর ৯১°৪৮′৩০″পূর্ব / ২২.৫০৮৩° উত্তর ৯১.৮০৮৩° পূর্ব / 22.5083; 91.8083
দেশ  বাংলাদেশ
বিভাগ চট্টগ্রাম বিভাগ
জেলা চট্টগ্রাম জেলা
আয়তন
 • মোট ২৪৬.৩২ কিমি (৯৫.১০ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট ৪,৩১,৭৪৮
 • ঘনত্ব ১৮০০/কিমি (৪৫০০/বর্গমাইল)
স্বাক্ষরতার হার
 • মোট ৬৩.৫%
সময় অঞ্চল বিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইট www.hathazari.chittagong.gov.bd

হাটহাজারী বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা[২]

অবস্থান[সম্পাদনা]

হাটহাজারী উপজেলার অবস্থান উত্তর অক্ষাংশের ২২°৫০৮৩' এবং ৯১°৮০৮৩' পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মধ্যে। এর পশ্চিমে দীর্ঘ পাহাড়ের সারি ও পূর্বে হালদা নদী বহমান। এ উপজেলার উত্তর-পুর্বে ফটিকছড়ি উপজেলা, পূর্বে হালদা নদীরাউজান উপজেলা, দক্ষিণে চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানা ও পাঁচলাইশ থানা, পশ্চিমে সীতাকুণ্ড উপজেলাচন্দ্রশেখর পাহাড়জালালাবাদ পাহাড় অবস্থিত। এর মুল আয়তন ২৫৫ বর্গ কিলোমিটার।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

হাটহাজারী উপজেলায় মোট ১৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা আছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

হাটহাজারী উত্তর চট্টগ্রামের এক ঐতিহাসিক ও গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা। এক ঐতিহাসিক ঘটনার প্রেক্ষিতে হাটহাজারীর নামকরণ করা হয়। এর পূর্ব নাম ছিল আওরঙ্গবাদ। বর্তমান হাটহাজারী, উত্তর রাউজানফটিকছড়ি নিয়ে আওরঙ্গবাদ গঠিত। আওরঙ্গবাদ পরগনায় চট্টগ্রামে মোগল শাসনাধীন হওয়ার পর থেকেই মসনদধারী প্রথা চালু করে বারজন হাজারীকে অভ্যন্তরীণ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা ও বহিঃশত্রুর হাত থেকে রক্ষার দায়িত্ব বণ্টন করা হয়েছিল। আমলাতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার কারণে তৎকালীন কেন্দ্রীয় সরকার মুর্শিদাবাদ এর নবাবের আদেশ অমান্য ও অগ্রাহ্য করে হাজারীগণ দায়িত্ব পালনে অবহেলা করতে থাকেন এবং নবাবের বিরুদ্ধাচরণ করেন। চট্টগ্রামে নবাবের প্রতিনিধি মহাসিংহ হাজারীগণের ক্ষমতা খর্ব করতে এক কূটকৌশলের আশ্রয় নিয়ে প্রতারণা করে সীতাকুন্ডে নবাবের কাঁচারিতে দাওয়াত নিয়ে যান। তিনি বিশ্বাসঘাতকতা করে আটজন হাজারীকে বন্দি করতে সমর্থ হন। বারজন হাজারীর মধ্যে দক্ষিণ চট্টগ্রামের দুইজন নবাবের বশ্যতা স্বীকার করায় তাঁদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়। বাকি দশজনের মধ্যে আটজনকে বন্দি অবস্থায় মুর্শিদাবাদের নবাবের দরবারে পাঠিয়ে দেয়া হয়। দুইজন হাজারী পালিয়ে প্রাণরক্ষা করেন। মুর্শিদাবাদের নবাব আটজন হাজারীকে লোহার পিঞ্জরে বন্দি করে গঙ্গা নদীতে ডুবিয়ে হত্যার আদেশ দেন। ফলে উত্তর চট্টগ্রামে হাজারীদের ক্ষমতা খর্ব হয়ে পড়ে। বেঁচে যাওয়া হাজারীদের মধ্যে বীরসিংহ হাজারী যে হাট প্রতিষ্ঠা করেন তাকেই আজকের হাটহাজারী বলা হয়। তখন ফার্সি ভাষা প্রচলন ছিল বলে এই হাটটি “হাটে হাজারী” বা “হাটহাজারী” নামে পরিচিতি লাভ করে।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

হাটহাজারী উপজেলার মোট জনসংখ্যা ৪,৩১,৭৪৮ জন। এর মধ্যে ২,১৫,২০১ জন পুরুষ ও ২,১৬,৫৪৭ জন মহিলা। জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ১৭৫৩ জন। মোট ভোটার সংখ্যা ২,৬৯,২৬১ জন। যার মধ্যে পুরুষ ১,৩৫,৫৫৯ জন ও মহিলা ১,৩৩,৭০২ জন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

হাটহাজারী উপজেলায় মোট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ১১৮টি, বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ২৭টি, কমিউনিটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ২টি, জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয় ৩টি, উচ্চ বিদ্যালয় (সহ শিক্ষা) ৩৫টি, বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ৮টি, দাখিল মাদ্রাসা ৯টি, আলিম মাদ্রাসা ০৫ টি, ফাজিল মাদ্রাসা ৪টি, কামিল মাদ্রাসা ১টি, কলেজ (সহপাঠ) ৭টি, কলেজ (বালিকা) ১টি, বিশ্ববিদ্যালয় ১টি।

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

প্রাচীন মসজিদ সমূহ[সম্পাদনা]

  • রাস্তিখানের মসজিদ (প্রকাশ-আলাউল মসজিদ), প্রতিষ্ঠা সন-১৪৭৩ খ্রিঃ
  • হাটহাজারী বাজার সংলগ্ন ফকিরা মসজিদ, প্রতিষ্ঠা সন-১৪৮৫ খ্রিঃ
  • ফতেয়াবাদ ফকির তাকিয়া মসজিদ,প্রতিষ্ঠা সন- ১৫০৫ খ্রিঃ
  • ফতেয়াবাদ নসরত শাহ মসজিদ, প্রতিষ্ঠা সন- ১৫২৫ খ্রিঃ
  • হাটহাজারী বাজারস্থ হাজারী মসজিদ (প্রকাশ-খানসামা মসজিদ),প্রতিষ্ঠা সন-১৭৫৩ খ্রিঃ

প্রাচীন দীঘি সমূহ[সম্পাদনা]

  • ফতেপুর মজলিশে আলা-রাস্তিখানের দিঘী (প্রকাশ-আলাউলের দিঘী),খননকাল- ১৪৭৩ খ্রিঃ
  • সুলতান নসরত শাহ এর দিঘী (প্রকাশ-বড় দিঘী), খননকাল-১৬৬৭ খ্রি:
  • ফতেপুর মজলিশে বিবির দিঘী, খননকাল- ১৬৬৭ খ্রিঃ
  • বুড়িশ্চর মইস্যা বিবির দিঘি, খননকাল-১৭৬৪ খ্রি:

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

গ্যালারি[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগৃহীত ২০ জুন, ২০১৫ 
  2. হাটহাজারী উপজেলা

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]