কাপ্তাই উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কাপ্তাই
উপজেলা
কাপ্তাই বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
কাপ্তাই
কাপ্তাই
বাংলাদেশে কাপ্তাই উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২২°২৯′৫৯″ উত্তর ৯২°১২′৫৭″ পূর্ব / ২২.৪৯৯৭২° উত্তর ৯২.২১৫৮৩° পূর্ব / 22.49972; 92.21583স্থানাঙ্ক: ২২°২৯′৫৯″ উত্তর ৯২°১২′৫৭″ পূর্ব / ২২.৪৯৯৭২° উত্তর ৯২.২১৫৮৩° পূর্ব / 22.49972; 92.21583 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগচট্টগ্রাম বিভাগ
জেলারাঙ্গামাটি জেলা
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৭৬
সংসদীয় আসন২৯৯ পার্বত্য রাঙ্গামাটি
সরকার
 • সংসদ সদস্যঊষাতন তালুকদার (স্বতন্ত্র)
আয়তন
 • মোট২৫৯ কিমি (১০০ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট৬৬,১৩৫
 • জনঘনত্ব২৬০/কিমি (৬৬০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৬০.৩০%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৪৫৩০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
২০ ৮৪ ৩৬
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

কাপ্তাই বাংলাদেশের রাঙ্গামাটি জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

আয়তন[উৎস সম্পাদনা]

কাপ্তাই উপজেলার মোট আয়তন ২৫৯ বর্গ কিলোমিটার।[২]

অবস্থান ও সীমানা[উৎস সম্পাদনা]

রাঙ্গামাটি জেলার দক্ষিণাংশে ২২°২১´ থেকে ২২°৩৫´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯২°০৫´ থেকে ৯২°১৮´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ জুড়ে কাপ্তাই উপজেলার অবস্থান।[২] রাঙ্গামাটি জেলা সদর থেকে এ উপজেলার দূরত্ব প্রায় ২৭ কিলোমিটার। এ উপজেলার উত্তরে কাউখালী উপজেলারাঙ্গামাটি সদর উপজেলা, পূর্বে রাঙ্গামাটি সদর উপজেলাবিলাইছড়ি উপজেলা, দক্ষিণে রাজস্থলী উপজেলা এবং পশ্চিমে চট্টগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়া উপজেলা অবস্থিত।

নামকরণ[উৎস সম্পাদনা]

কাপ্তাই উপজেলার নামকরণে কত্থয়কিয়ং শব্দদ্বয়ের প্রভাব রয়েছে বলে অনেকের ধারণা। কত্থয় অর্থ কোমর আর কিয়ং অর্থ খাল।[১]

ইতিহাস[উৎস সম্পাদনা]

১৮৬০ খ্রিস্টাব্দে পার্বত্য চট্টগ্রাম-কে চট্টগ্রাম জেলা থেকে আলাদা করে নতুন জেলা সৃষ্টি করার পর কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনায় এর সদর দপ্তর স্থাপন করা হয়। কাপ্তাইকে উপজেলায় রূপান্তরের পূর্ব পর্যন্ত এটি রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার একটি মহকুমা ছিল।[১]

প্রশাসনিক এলাকা[উৎস সম্পাদনা]

১৯৭৬ সালে কাপ্তাই থানা প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ১৯৮৩ সালে প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণের ফলে কাপ্তাই উপজেলায় রূপান্তরিত হয়।[২] এ উপজেলায় বর্তমানে ৫টি ইউনিয়ন রয়েছে; এর মধ্যে ২টি ইউনিয়নের প্রশাসনিক কার্যক্রম চন্দ্রঘোনা থানার আওতাধীন এবং বাকি ৩টি ইউনিয়নের প্রশাসনিক কার্যক্রম কাপ্তাই থানার আওতাধীন।

চন্দ্রঘোনা থানার আওতাধীন ইউনিয়নসমূহ:

কাপ্তাই থানার আওতাধীন ইউনিয়নসমূহ:

[৩]

জনসংখ্যার উপাত্ত[উৎস সম্পাদনা]

২০১১ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী কাপ্তাই উপজেলার জনসংখ্যা ৬৬,১৩৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৬,৬৭৭ জন এবং মহিলা ২৯,৪৫৮ জন। মোট জনসংখ্যার ৬২.৭৮% মুসলিম, ৫.৯৫% হিন্দু, ৩০.৪৯% বৌদ্ধ এবং ০.৭৮% খ্রিস্টান ও অন্যান্য ধর্মাবলম্বী রয়েছে। এ উপজেলায় চাকমা, মারমা, তঞ্চঙ্গ্যা, ত্রিপুরা, মুরং, খিয়াং, পাংখোয়া প্রভৃতি আদিবাসী জনগোষ্ঠীর বসবাস রয়েছে।[১]

শিক্ষা[উৎস সম্পাদনা]

কাপ্তাই উপজেলার সাক্ষরতার হার ৬০.৩০%।[২] এ উপজেলায় ১টি ডিগ্রী কলেজ, ১টি কারিগরী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ১টি স্কুল এন্ড কলেজ, ১০টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ২টি দাখিল মাদ্রাসা, ৬টি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৫৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ২টি এবতেদায়ী মাদ্রাসা রয়েছে।[১]

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

যোগাযোগ ব্যবস্থা[উৎস সম্পাদনা]

কাপ্তাই উপজেলায় যোগাযোগের প্রধান সড়ক চট্টগ্রাম-কাপ্তাই সড়ক এবং রাঙ্গামাটি-কাপ্তাই সড়ক। সব ধরণের যানবাহনে যোগাযোগ করা যায়।

অর্থনীতি[উৎস সম্পাদনা]

কাপ্তাইয়ের কৃষি, মৎস্যসম্পদ, বনজ সম্পদ, রেয়নশিল্প ও বিভিন্ন শিল্পকারখানা এর অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। দেশের প্রধান জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র, উপমহাদেশের সর্ববৃহৎ কাগজের কল কর্ণফুলী পেপার মিলস, ওয়াজ্ঞা টি এস্টেট, কাঠ প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানা ও বাংলাদেশ টিম্বার এই উপজেলায় অবস্থিত। ১৯৬২ খ্রিষ্টাব্দে নির্মিত কাপ্তাই জলবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের ৫টি ইউনিটের সাহায্যে উৎপাদিত ২৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ দেশের ক্রমবর্ধমান বিদ্যুৎ চাহিদা মেটাতে ব্যাপক ভূমিকা রেখে চলেছে। মূলত জলবিদ্যুৎ উৎপন্ন করার জন্য কর্ণফুলি নদীতে বাঁধ দিয়ে কাপ্তাই হ্রদ সৃষ্টি করা হলেও, এই জলাধারে প্রচুর পরিমাণে মিঠাপানির মাছ চাষ হয়। নৌবিহার, বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও কৃষি আবাদ ইত্যাদিতেও এর অবদান উল্লেখযোগ্য।

প্রধান রপ্তানি দ্রব্য

কলা, কাঁঠাল, আদা, মাছ, বিদ্যুৎ, তুলা, বাঁশ, বেতশিল্প

নদ-নদী[উৎস সম্পাদনা]

কাপ্তাই উপজেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে কর্ণফুলি নদী। এছাড়া রয়েছে কাপ্তাই হ্রদ। আরো রয়েছে কাপ্তাই খাল।[৪]

হাট-বাজার[উৎস সম্পাদনা]

কাপ্তাই উপজেলায় ১১টি হাট-বাজার রয়েছে। এর মধ্যে কাপ্তাই নতুন বাজার, রাইখালী বাজার, চিৎমরম বাজার, শীলছড়ি বাজার, বড়ইছড়ি বাজার, বারঘোনিয়া বাজার উল্লেখযোগ্য।[৫]

দর্শনীয় স্থান[উৎস সম্পাদনা]

[৬]

জনপ্রতিনিধি[উৎস সম্পাদনা]

সংসদীয় আসন
সংসদীয় আসন জাতীয় নির্বাচনী এলাকা[৭] সংসদ সদস্য[৮][৯][১০][১১][১২] রাজনৈতিক দল
২৯৯ পার্বত্য রাঙ্গামাটি রাঙ্গামাটি জেলা দীপংকর তালুকদার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসন
ক্রম নং পদবী নাম
০১ উপজেলা চেয়ারম্যান[১৩] মোহাম্মদ দিলদার হোসেন
০২ ভাইস চেয়ারম্যান[১৪] সুব্রত বিকাশ তঞ্চঙ্গ্যা
০৩ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান[১৫] নূর নাহার বেগম
০৪ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা[১৬] তারিকুল আলম

আরও দেখুন[উৎস সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[উৎস সম্পাদনা]

  1. http://kaptai.rangamati.gov.bd/site/page/8554c7a0-2144-11e7-8f57-286ed488c766
  2. "কাপ্তাই উপজেলা - বাংলাপিডিয়া"bn.banglapedia.org 
  3. "কাপ্তাই উপজেলা-"kaptai.rangamati.gov.bd 
  4. "নদ নদী - কাপ্তাই উপজেলা - কাপ্তাই উপজেলা"kaptai.rangamati.gov.bd 
  5. "হাট বাজারের তালিকা - কাপ্তাই উপজেলা - কাপ্তাই উপজেলা"kaptai.rangamati.gov.bd 
  6. "দর্শনীয়স্থান - কাপ্তাই উপজেলা - কাপ্তাই উপজেলা"kaptai.rangamati.gov.bd 
  7. "Election Commission Bangladesh - Home page"www.ecs.org.bd 
  8. "বাংলাদেশ গেজেট, অতিরিক্ত, জানুয়ারি ১, ২০১৯" (PDF)ecs.gov.bdবাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ১ জানুয়ারি ২০১৯। ২ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০১৯ 
  9. "সংসদ নির্বাচন ২০১৮ ফলাফল"বিবিসি বাংলা। ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  10. "একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল"প্রথম আলো। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  11. "জয় পেলেন যারা"দৈনিক আমাদের সময়। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  12. "আওয়ামী লীগের হ্যাটট্রিক জয়"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  13. "কাপ্তাই উপজেলা-"kaptai.rangamati.gov.bd 
  14. "জনাব সুব্রত বিকাশ তনচংগ্যা - কাপ্তাই উপজেলা - কাপ্তাই উপজেলা"www.kaptai.rangamati.gov.bd 
  15. "জনাব নুর নাহার বেগম - কাপ্তাই উপজেলা - কাপ্তাই উপজেলা"www.kaptai.rangamati.gov.bd। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ মার্চ ২০১৮ 
  16. "তারিকুল আলম - কাপ্তাই উপজেলা - কাপ্তাই উপজেলা"kaptai.rangamati.gov.bd 

বহিঃসংযোগ[উৎস সম্পাদনা]