গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী
বাংলাদেশ আনসার ভিডিপি.jpg
বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি লোগো
সক্রিয় ১৯৭৬–বর্তমান
দেশ বাংলাদেশ বাংলাদেশ (১৯৭৬–বর্তমান)
আনুগত্য বাংলাদেশ
ধরন অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা, আইন প্রয়োগ
গ্যারিসন/সদরদপ্তর গাজীপুর, বাংলাদেশ
বার্ষিকীসমূহ ২৬ মার্চ
যুদ্ধসমূহ বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ
সজ্জা ১. বীর শ্রেষ্ঠ
২. বীর উত্তম
৩. বীর বিক্রম
৪. বীর প্রতীক
কমান্ডার
ডিরেক্টর জেনারেল মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান খান[১]

গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীঃ (ভিডিপি) বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা, আইন প্রয়োগ ও সংরক্ষণের জন্য গঠিত একটি বাহিনী, বিশেষভাবে গ্রাম এবং শহরাঞ্চলের শান্তি ও শৃঙ্খলা নিশ্চিত করাই এদের মূল দায়িত্ব। এটি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দ্বারা পরিচালিত হয়। নিরাপত্তা বাহিনী হিসাবে নিয়োজিত হলেও গ্রামের যেকোন উন্নয়নমূলক ও কল্যাণকর কর্মকাণ্ডে সরাসরি অংশগ্রহণ করে থাকে।[২][৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

স্বনির্ভর গ্রাম প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষে ১৯৭৬ সালে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী প্রতিষ্ঠা করেন। ছোট শহরাঞ্চলে ভিডিপি এর সমমর্যাদার প্রতিরক্ষা বাহিনী "শহর প্রতিরক্ষা বাহিনী" নামে পরিচিত।[২][৩] ১৯৮১ সালে জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর প্রতিরক্ষা বাহিনীটির কার্যক্রম সীমিত হয়ে যায় কিন্তু রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ এর বিকেন্দ্রীকরণ নীতি গ্রহনের পর গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর কার্যপরিধি পুনরায় বৃধি পেতে থাকে এবং ১৯৮৮ সালে সারাদেশে ভিডিপি এর সদস্যসংখ্যা ১০ মিলিয়ন।[২]

সাংগঠনিক কার্যক্রম[সম্পাদনা]

গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর বর্তমান সদস্য সংখ্যা ৫.৬ মিলিয়ন যার শতকরা ৫০ ভাগ মহিলা[৩][৪] প্রতিটি ভিডিপি ইউনিট সমান সংখ্যক নারী ও পুরুষ নিয়ে গঠিত।[৩] প্রতিটি গ্রামের জন্যেই, এক প্লাটুন পুরুষ এবং এক প্লাটুন মহিলা সদস্য থাকে[৩] অনুরুপভাবে, বাংলাদেশের প্রতিটি মহানগরের প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি পুরুষ ও একটি নারী প্লাটুন থাকে।[৩] ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতৃত্বে, প্রতিটি ইউনিয়নে একটি পুরুষ ও একটি নারী ইউনিয়ন লিডার থাকে।[৩] বাংলাদেশ আনসার এর ডিরেক্টর জেনারেল গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীরও প্রধান হয়ে থাকেন।[৫] বর্তমানে প্রধানের দায়িত্বে আছেন মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান খান

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ALERT, SECURITY Eerie experience for school-goers"thedailystar.net। দ্যা ডেইলি স্টার। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৬ অক্টোবর ২০১৬ 
  2. Taru Bahl, M.H. Syed (২০০৩)। মুসলিম বিশ্বের এনসাইক্লোপেডিয়া। Anmol Publications Pvt. Ltd.। পৃষ্ঠা 184–89। আইএসবিএন 978-81-261-1419-1  line feed character in |title= at position 16 (সাহায্য)
  3. "About Bangladesh Ansar & VDP"। Bangladesh Ansar & VDP - Government of Bangladesh। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৯-২৭ 
  4. Henrik Alffram (২০০৯)। Ignoring executions and torture: impunity for Bangladesh's security forces। Human Rights Watch। পৃষ্ঠা 23। আইএসবিএন 978-1-56432-483-2 
  5. "বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি"। বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি - বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৯-২৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]