শিশুনাগ রাজবংশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
শিশুনাগ রাজবংশ

৪১৩ খ্রিস্টপূর্ব–৩৪৫ খ্রিস্টপূর্ব
রাজধানী রাজগির, বৈশালী, পরবর্তীতে পাটলীপুত্র
ভাষাসমূহ সংস্কৃতি
ধর্ম জৈন[১]
বৌদ্ধ[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]
সরকার রাজতন্ত্র
রাষ্ট্রপতি
 -  413–৩৯৫ খ্রিস্টপূর্ব শিশুনাগ
 -  367–৩৪৫ খ্রিস্টপূর্ব মহানন্দিন
ইতিহাস
 -  সংস্থাপিত ৪১৩ খ্রিস্টপূর্ব
 -  ভাঙ্গিয়া দেত্তয়া হয়েছে ৩৪৫ খ্রিস্টপূর্ব
সতর্কীকরণ: "মহাদেশের" জন্য উল্লিখিত মান সম্মত নয়
শিশুনাগ রাজবংশকে ধরা প্রাচীন ভারতের মগধ রাজ্যের তৃতীয় শাসক রাজবংশ। পুরাণ অনুযায়ী, এই রাজবংশ ছিল মগধের দ্বিতীয় রাজবংশ, যা ছিল বৃহদ্রথের প্রতিষ্ঠিত রাজবংশের পরে শাসন করে। [২]
শিশুনাগ ছিলেন এই রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা। তিনি ছিলেন হারিয়াঙ্কা রাজবংশের শেষ শাসক নাগাদাসকের আমাত্য অথবা মন্ত্রী এবং ৪১৩ খ্রিস্টপূর্বে একটি জনবিদ্রোহে সিংহাসন আরোহণ করেন।[৩] প্রথমে এই সাম্রাজ্যের এই রাজধানী ছিল রাজগির এবং পরে কাকাবর্ণের আমলে পাটালীপুত্রে(বর্তমান পাটনার কাছাকাছি) স্থানান্তর করা হয়। রীতি অনুযায়ী, কাকাবর্ণের পর তাঁর দশ ছেলে উত্তসুরী হয়।[৪] এই সাম্রাজ্যের পর ৩৪৫ খ্রিস্টপূর্বে নন্দ সাম্রাজ্য শাসন শুরু করে।[৫] 

শিশুনাগ[সম্পাদনা]

শিশুনাগ ছিলেন এই সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা। তিনি ৪১৩ খ্রিস্টপূর্বে এই সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। প্রথমে এই সাম্রাজ্যের এই রাজধানী ছিল রাজগির এবং পরে কাকবর্ণের আমলে পাটালীপুত্রে(যেটি বর্তমানে বিহার) স্থানান্তর করা হয়। বৌদ্ধসূত্র অনুযায়ী, তাঁর দ্বিতীয় রাজধানী ছিল বৈশালীতে[৬], যেটি মগধদের রাজ্য দখলের পূর্বে বৃজির রাজধানী ছিল। এই রাজবংশ ভারতীয় উপমহাদেশের একটি বড় অংশ শাসন করেছিল। 

কাকবর্ণ কালাশোকা [সম্পাদনা]

পুরাণ অনুসারে, শিশুনাগের পর সিংহাসনে বসেন তাঁর পুত্র কাকবর্ণ এবং সিংহল বংশাবলী অনুযায়ী তাঁর পুত্র কালাশোক। অশোক বন্দনার সাক্ষ্য অনুযায়ী, হারমান জ্যাকোবি, উইলাম গেইজার এবং রামকৃষ্ণ গোপাল ভান্ডারকার এই সিদ্ধান্তে আসেন যে, কালোশোকা ও কাকবর্ণ একই মানুষ ছিলেন। শিশুনাগের শাসনকালে তিনি ছিলেন বারাণসীর রাজ্যপাল। তাঁর সময়কালে দুইটি উল্লেখযোগ্য ঘটনার একটি হলো ৩৮৩ খ্রিস্টপূর্বে বৈশালীতে দ্বিতীয় বৌদ্ধ সম্মেলন এবং অপরটি পাটলীপুত্রে রাজধানী স্থানান্তর।[৭] হরষাচরিত অনুযায়ী, রাজধানীর নিকটে তিনি গলায় ছুরির আঘাতে নিহত হন।[৮]

পরবর্তী শাসকগণ [সম্পাদনা]

শাস্ত্র অনুযায়ী, কালাশোর মৃত্যুর পর তাঁর দশ পুত্র পর্যায়ক্রমে মগধ শাসন করেন। তাঁদের মধ্যে মহানন্দিন ছিলেন এই রাজবংশের শেষ শাসক।[৪] পরে তাঁর অবৈধ পুত্র মহাপদ্ম নন্দ সাম্রাজ্যের উত্তরাধিকারী হন। 

শিশুনাগ রাজবংশের শাসকগণ [সম্পাদনা]

  • শিশুনাগ (৪১৩ খ্রিস্টপূর্ব - ৩৯৫ খ্রিস্টপূর্ব)
  • কাকবর্ণ কালাশোকা (৩৯৫ খ্রিস্টপূর্ব - ৩৬৭ খ্রিস্টপূর্ব)
  • মহানন্দিন(৩৬৭ খ্রিস্টপূর্ব - ৩৪৫ খ্রিস্টপূর্ব)

তথ্যসূত্র [সম্পাদনা]