উবায়দুল কবীর চৌধুরী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অধ্যাপক ডাঃ

উবায়দুল কবীর চৌধুরী
জন্ম
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
পেশাচিকিৎসাবিদ্যা
পুরস্কারস্বাধীনতা পুরস্কার (২০২০)

ডাঃ উবায়দুল কবীর চৌধুরী হলেন বাংলাদেশের একজন প্রখ্যাত চর্মরোগ চিকিৎসক। চিকিৎসা শাস্ত্রে অনন্য সাধারণ অবদানের জন্য ২০২০ সালে তাকে “চিকিৎসাবিদ্যায় স্বাধীনতা পুরস্কার” প্রদান করা হয়।[১][২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৭৪ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন। পরবর্তীতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত ছিলেন। ১৯৮৫ সালে ভিয়েনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চর্মবিজ্ঞান এবং ভেনেরোলজি বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি নেন।ভিয়েনা ইউনিভার্সিটি হাসপাতাল, আমেরিকান একাডেমি অফ ডার্মাটোপাথোলজিস্ট, হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুল, কানাডার ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়া, ভারতের অল ইন্ডিয়া মেডিকেল ইনস্টিটিউট থেকে চর্ম ও যৌনরোগের উপরে উচ্চতর প্রশিক্ষণ নেন। অবসরের পর শমরিতা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন। ২০০৩ সালের পর ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ডার্মাটোলজি বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত। তিনি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক।[৩][৪]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের চিকিৎসা ক্ষেত্রে অসাধারণ অবদানের জন্য ২০২০ সালে দেশের “সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার”[৫][৬] হিসাবে পরিচিত “স্বাধীনতা পুরস্কার” প্রদান করা হয় তাকে।[২]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "স্বাধীনতা পদক পাচ্ছেন ৯ বিশিষ্ট ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠান"ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  2. "কমান্ডার রউফ, আনোয়ার পাশাসহ ১০ জন পাচ্ছেন স্বাধীনতা পদক"bangla.bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  3. "স্বাধীনতা পদক পুরস্কারের আলোচনায় সুনামগঞ্জের শাহ আবদুল করিম ও ডা. কবীর চৌধুরী"haor24.net। সংগ্রহের তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  4. "স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন খ্যাতিমান দুই চিকিৎসক"medivoicebd.com। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  5. সানজিদা খান (জানুয়ারি ২০০৩)। "জাতীয় পুরস্কার: স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার"। সিরাজুল ইসলাম[[বাংলাপিডিয়া]]ঢাকা: এশিয়াটিক সোসাইটি বাংলাদেশআইএসবিএন 984-32-0576-6। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুন ২০১৯স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার।  ইউআরএল–উইকিসংযোগ দ্বন্দ্ব (সাহায্য)
  6. "স্বাধীনতা পদকের অর্থমূল্য বাড়ছে"কালেরকন্ঠ অনলাইন। ২ মার্চ ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুন ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]