বাংলাদেশের পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বাংলাদেশ-এ পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন
Flag of Bangladesh.svg
Data
Water coverage (broad definition)87% (in 2019)[১]
Sanitation coverage (broad definition)61% (in 2019)[১]
Continuity of supplyIntermittent[২][৩]
Average urban water use (l/c/d)88 (2006–07, average of 11 cities)[৪]
Average urban water and sanitation tariff (US$/m3)0.12 (Average of main urban areas in 2007)[৫]
0.08 (in Dhaka 2007)[৬][৭]
Share of household metering18% (2007)[৪]
Annual investment in WSSUS$0.55/capita (Average 1993/95–2000/01)[৮][৯]
Share of self-financing by utilitiesFor rural areas, about one third by users themselves (2006)[১০]
Share of tax-financingFor rural areas, about one third by the government (2006)[১০]
Share of external financingFor rural areas, about one third by donors (2006)[১০]
Institutions
Decentralization to municipalitiesFull
National water and sanitation companyNone
Water and sanitation regulatorNone
Responsibility for policy settingMinistry of Local Government, Rural Development and Cooperatives
Sector lawNone
No. of urban service providersMore than 200 municipalities and 2 Water Supply and Sewerage Agencies (for Dhaka and Chittagong)
No. of rural service providersn/a

বাংলাদেশের পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন বলতে দক্ষিণ এশিয়ার রাষ্ট্র বাংলাদেশে নিরাপদ সুপেয় পানির সরবরাহ ও গৃহস্থালি বর্জ্যপানির নিষ্পত্তির পরিস্থিতিকে বোঝানো হয়েছে।

বাংলাদেশের রয়েছে অবারিত জলসম্পদ, এবং এগুলিতে দূষক পদার্থ, ব্যাকটেরিয়া ও কীটনাশকের সংক্রমণের ঝুঁকি উচ্চ।[১১] ঐতিহাসিকভাবে বাংলাদেশের পানির উৎসগুলি ছিল ভূপৃষ্ঠস্থিত, ফলে এগুলি ব্যাকটেরিয়া ও অন্যান্য অণুজীব দ্বারা সংক্রমিত ছিল। এইসব সংক্রমিত পানি পান করার ফলে নবজাতক ও শিশুরা প্রকট পাকান্ত্রিক রোগের শিকার হত এবং তাদের মৃত্যুহার এর ফলে উচ্চ ছিল।[১২] জাতিসংঘ শিশু তহবিল বা ইউনিসেফের মতে বাংলাদেশের প্রায় ৩৮% অধিবাসী ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সংক্রমিত অনিরাপদ পানি পান করে।[১৩] বাংলাদেশে বর্তমানে নির্ভরযোগ্য সুপেয় পানির প্রকট অভাবের ঝুঁকি বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশটির ভূপৃষ্ঠস্থ ও ভূগর্ভস্থ পানির উৎসগুলির লবণাক্ততা বৃদ্ধি পাচ্ছে, যার কারণ সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি।[১৪]

নিরাপদ সুপেয় পানির সুবিধাগুলির মধ্যে আছে গভীর নলকূপ, ঐতিহ্যবাহী কুয়া, ভূপৃষ্ঠস্থ পানির শোধন ও বৃষ্টির পানি সংগ্রহ।[১৫] ২০০০ থেকে ২০১০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের আর্সেনিক দূষণের শিকার অঞ্চলগুলিতে সরকার ঐসব নিরাপদ পানি সংগ্রহ প্রযুক্তি স্থাপন করে।[১৬] ২০০০ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে বাংলাদেশে আর্সেনিকযুক্ত পানি পানকারী জনগণের শতকরা হার ২৬.৬% থেকে ১২.৪%-এ নেমে আসে। এখনও প্রায় ১ কোটি ৯৪ লক্ষ বাংলাদেশী আর্সেনিকযুক্ত পানি পান করে।[১৩]

পানির দাম কম ও অর্থনৈতিক কর্মদক্ষতা কম হবার জন্য বাংলাদেশের খরচ পুনরুদ্ধারের মাত্রা কম। বিশেষ করে পৌর বা নগর এলাকাগুলিতে পানি বিক্রি করে লব্ধ অর্থ দিয়ে পানি সরবরাহের খরচ মেটানো যায় না।

২০১০ সাল নাগাদ বাংলাদেশের প্রায় ৫৬% লোকের কাছে পর্যাপ্ত পয়ঃনিষ্কাশন সুবিধার লভ্য ছিল।[১৭] তবে গ্রামীণ অঞ্চলে পয়ঃনিষ্কাশনের আওতা উন্নত করার ক্ষেত্রে সম্প্রদায়ের নেতৃত্বে পূর্ণাঙ্গ পয়ঃনিষ্কাশন নামের একটি নতুন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয় এবং এটি পয়ঃনিষ্কাশনের আওতা বৃদ্ধিতে তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে বলে মনে করা হয়।[১৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. WHO/UNICEF (2015) Progress on sanitation and drinking water - 2015 update and MDG assessment ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে, Joint Monitoring Programme for Water Supply and Sanitation. pp. 56–57.
  2. Asian Development Bank (জানুয়ারি ২০০৪)। Water in Asian Cities – Utilities Performance and Civil Society Views (PDF)। Manila: Asian development bank (ADB)। পৃষ্ঠা 38–39। আইএসবিএন 971-561-524-4। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৩ 
  3. Kuroda 2007, পৃ. 34।
  4. Water and Sanitation Program (জুন ২০০৯)। "Bangladesh Water Utilities Data Book, 2006–07. Benchmarking for Improving Water Supply Delivery." (PDF)। পৃষ্ঠা 12। ৮ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ নভেম্বর ২০১২ 
  5. "International Benchmarking Network for Water and Sanitation Utilities:Bangladesh Country Report"। ১৫ এপ্রিল ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০০৯ 
  6. Dhaka Water Supply; Sewerage Authority। "Tariff of water – Metered connection"। ২ মার্চ ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ এপ্রিল ২০০৮  অজানা প্যারামিটার |name-list-style= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  7. 1 Bangladeshi Taka = US$0.08223 (10 May 2007); source: oanda.com
  8. Ministry of Water Resources 2001, পৃ. 62।
  9. Bangladeshi population 1995–2001 source: World Development Indicators database: http://devdata.worldbank.org/query/ ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩ মে ২০০৮ তারিখে
  10. Ministry of Foreign Affairs of Denmark (নভেম্বর ২০০৭)। Evaluation of Danish Support to Water Supply and Sanitation (1999–2005) (PDF)Evaluation। পৃষ্ঠা 54। আইএসএসএন 1399-4972আইএসবিএন 978-87-7667-821-0। ১৫ জুন ২০১৩ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০০৮ 
  11. Hasan, Md. Khalid; Shahriar, Abrar; Jim, Kudrat Ullah (আগস্ট ২০১৯)। "Water pollution in Bangladesh and its impact on public health"Heliyon (ইংরেজি ভাষায়)। 5 (8): e02145। ডিওআই:10.1016/j.heliyon.2019.e02145পিএমআইডি 31406938পিএমসি 6684462অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  12. Smith AH, Lingas EO, Rahman M. "Contamination of drinking-water by arsenic in Bangladesh: a public health emergency." Bulletin of the World Health Organization. 2000, 78-87.
  13. "UNICEF: Better Access to Safe Drinking Water" 
  14. "Participatory Research and Development Initiative-PRDI:"Increasing Salinity Threatens Productivity of Bangladesh"" (PDF) 
  15. Das NK, Sengupta SR. "Arsenicosis: Diagnosis and treatment." Seminar: Chronic Arsenicosis in India. 2008. 74, 571-581.
  16. "Arsenic Mitigation in Bangladesh" (PDF)। UNICEF Bangladesh। ১১ মার্চ ২০১০। 
  17. "Bangladesh"The World Factbook। Central Intelligence Agency। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  18. Kar ও Bongartz 2006