ঢালারচর সাটল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ঢালারচর সাটল
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
পরিষেবা ধরনসাটল ট্রেন
প্রথম পরিষেবা২৬ জানুয়ারী ২০২০
বর্তমান পরিচালকবাংলাদেশ রেলওয়ে
যাত্রাপথ
শুরুঢালারচর রেলওয়ে স্টেশন
শেষঈশ্বরদী রেলওয়ে স্টেশন
ভ্রমণ দূরত্ব?
যাত্রার গড় সময়৩ ঘণ্টা ৩০ মিনিট।
পরিষেবার হার৬ দিন (সোমবার বন্ধ)
রেল নং
  • ঢালারচর সাটল-১
  • ঢালারচর সাটল-২
যাত্রাপথের সেবা
শ্রেণীআছে
আসন বিন্যাসআছে
ঘুমানোর ব্যবস্থানাই
অটোরেক ব্যবস্থানাই
খাদ্য সুবিধানাই
পর্যবেক্ষণ সুবিধাআছে
বিনোদন সুবিধাআছে
মালপত্রের সুবিধাআছে
কারিগরি
ট্র্যাক গেজ১,৬৭৬ মিলিমিটার (৫ ফুট ৬ ইঞ্চি)

ঢালারচর সাটল বাংলাদেশ রেলওয়ের অধীনে চলা একটি সাটল ট্রেন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

পাবনা বাসীর বহুর প্রত্যাসিত মাঝগ্রাম-পাবনা-ঢালারচর লাইন চালু হলে এই পথের ট্রেন হিসেবে ঢালারচর সাটলঢালারচর এক্সপ্রেস চালু করা হয়।[১]

উদ্ভোধন[সম্পাদনা]

ঢালারচর সাটল ২৬ জানুয়ারী ২০২০ তারিখে উদ্ভোধন করা হয়। একই দিন ঢালারচর এক্সপ্রেস ট্রেনটিও উদ্ভোধন করা হয়।[২]

যাত্রাপথ[সম্পাদনা]

ঢালারচর সাটল মাঝগ্রাম-পাবনা-ঢালারচর লাইনে চলাচল করে এবং যাত্রাপথে থাকা সকল স্টেশনে যাত্রাবিরতি দেয়।[৩]

স্টেশন তালিকা[সম্পাদনা]

ঢালারচর সাটল যেসকল রেলওয়ে স্টেশন দিয়ে চলাচল করে নিম্নে তা উল্লেখ করা হলো:

সময়সূচি[সম্পাদনা]

  • ঢালারচর সাটল-১ ঈশ্বরদী থেকে ঢালারচরের উদ্দেশ্যে ছাড়ে ভোর ৪টা ৩০ মিনিটে, ঢালারচর পৌঁছায় সকাল ৭ টায়।

(এরপর ট্রেনটি ঢালারচর এক্সপ্রেস নাম নিয়ে ঢালারচর-রাজশাহী-ঢালারচর পথে চলে)

  • ঢালারচর সাটল-২ ঢালারচর থেকে ঈশ্বরদীর উদ্দেশ্যে ছাড়ে রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে, ঈশ্বরদী পৌঁছায় রাত ১১টা ১৫ মিনিটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]