সোনাহাট সেতু

স্থানাঙ্ক: ২৬°০৫′৫২″ উত্তর ৮৯°৪৩′২০″ পূর্ব / ২৬.০৯৭৬৭° উত্তর ৮৯.৭২২২৭° পূর্ব / 26.09767; 89.72227
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সোনাহাট সেতু
পাটেশ্বরী সেতু
স্থানাঙ্ক ২৬°০৫′৫২″ উত্তর ৮৯°৪৩′২০″ পূর্ব / ২৬.০৯৭৬৭° উত্তর ৮৯.৭২২২৭° পূর্ব / 26.09767; 89.72227
অতিক্রম করেদুধকুমার নদী
স্থানভুরুঙ্গামারী উপজেলা, কুড়িগ্রাম জেলা, বাংলাদেশ
বৈশিষ্ট্য
মোট দৈর্ঘ্য১,২০০ ফুট (৩৬৬ মিটার)
ইতিহাস
চালু১৮৮৭
অবস্থান

সোনাহাট সেতু বাংলাদেশের কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলা সদর থেকে ৬ কিঃ মিঃ পূর্ব দিকে পাইকেরছড়া ইউনিয়নে দুধকুমার নদীর উপর অবস্থিত একটি সেতু। স্থানীয়ভাবে এটি পাটেশ্বরী সেতু নামে পরিচিত। এটি রেল সেতু হিসেবে তৈরি করা হলেও বর্তমানে সড়ক সেতু হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৮৭ সালে ইংরেজ সরকার তাদের সৈন্য ও রসদ চলাচলের জন্য লালমনিরহাট থেকে ভুরুঙ্গামারী হয়ে ভারতের মনিপুররাজ্যে যাবার জন্য গোয়াহাটি পর্যন্ত রেলপথ স্থাপন করে। তারই অংশ হিসাবে সোনাহাট রেলওয়ে সেতু তৈরী করা হয়।[১] ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্তিযোদ্ধারা পাকিস্তান বাহিনীর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করতে এই সেতুর একটি অংশ গুড়িয়ে দেয়। পরবর্তীকালে তা এরশাদ সরকারের সময় সেতুটিকে মেরামত করা হয়।

গঠন[সম্পাদনা]

সেতু ১,২০০ ফুট (৩৬৬ মিটার) দীর্ঘ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. রেজাউল করিম রেজা (২ আগস্ট ২০১৮)। "ঝুঁকিতে সোনাহাট সেতু : যেকোনো মুহূর্তে ঘটতে পারে দুর্ঘটনা"দৈনিক নয়া দিগন্ত। কুড়িগ্রাম। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৯