রংপুর এক্সপ্রেস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রংপুর এক্সপ্রেস
771 Rangpur Express.jpg
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
পরিষেবা ধরনআন্তঃনগর ট্রেন
বর্তমান পরিচালকবাংলাদেশ রেলওয়ে
যাত্রাপথ
শুরুকমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন
শেষরংপুর রেলওয়ে স্টেশন
ভ্রমণ দূরত্ব৪০৫ কিলোমিটার (২৫২ মাইল)[১]
যাত্রার গড় সময়১০ ঘণ্টা
পরিষেবার হারদৈনিক
রেল নং৭৭১ / ৭৭২
যাত্রাপথের সেবা
শ্রেণীএসি, নন-এসি, শোভন, সুলভ
আসন বিন্যাসহ্যাঁ
ঘুমানোর ব্যবস্থাহ্যাঁ
খাদ্য সুবিধাহ্যাঁ
কারিগরি
গাড়িসম্ভার১১
ট্র্যাক গেজ১,০০০ মিলিমিটার (৩ ফুট   ইঞ্চি)

রংপুর এক্সপ্রেস হল বাংলাদেশ রেলওয়ে পরিষেবার একটি আন্তঃনগর ট্রেন, যা রাজধানী ঢাকা এবং উত্তরাঞ্চলের রাজধানী রংপুরের মধ্যে চলাচল করে। এ ট্রেনটি ২০১১ সালে চালু হয়। এটি বাংলাদেশের দ্রুত ও বিলাসবহুল ট্রেনগুলোর একটি। ট্রেনটি সপ্তাহে একদিন অর্থাৎ রবিবার চলাচল করে না।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০১১ সালের ২০ মার্চ তৎকালীন যোগাযোগ মন্ত্রী আবুল হোসেন রংপুর সফরকালে ঢাকা ও রংপুরের মধ্যে একটি নতুন ট্রেন চালু প্রতিশ্রুতি দেন। সেই ঘোষণা মোতাবেক ২১ আগস্ট ২০১১ সালে রংপুর এক্সপ্রেস চালু হয়।[২] ২০১৯ সালে কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস উদ্বোধনের সময় প্রধানমন্ত্রী একইসাথে লালমনি এক্সপ্রেস ও রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের পুরাতন বগি বাদ দিয়ে নতুন বগি সংযোজনের উদ্বোধন করেন।[৩]

রুট ও বিরতিস্থান[সম্পাদনা]

রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেন নং ৭৭১ ০৯:০০ এ ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে রওনা করে ১৯:০০ এ রংপুর পৌঁছায়। ট্রেন নং ৭৭২ ২০:০০ এ রংপুর থেকে কমলাপুর এর উদ্দেশ্যে রওনা করে ভোর ০৬:০৫ এ ঢাকায় পৌঁছে। স্টপেজ সমূহ :-

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ঢাকা-রংপুর রেলপথে ১১২ কিলোমিটার দূরত্ব কমবে"www.dailyinqilab.com। দৈনিক ইনকিলাব। ১৪ এপ্রিল ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  2. "'রংপুর এক্সপ্রেস' চালু হচ্ছে আজ"prothom-alo.com। প্রথম আলো। ২১ আগস্ট ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  3. "রেলকে লাভজনক করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী"দ্য ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০১৯