কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
পরিষেবা ধরনআন্তঃনগর
অবস্থাপরিচালিত হচ্ছে
প্রথম পরিষেবা১ ডিসেম্বর ২০১৩; ৬ বছর আগে (1 December 2013)
বর্তমান পরিচালকপূর্বাঞ্চল রেলওয়ে
যাত্রাপথ
শুরুকমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন
বিরতি১১টি স্টেশনে
শেষকিশোরগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন
ভ্রমণ দূরত্ব১৩৫ কিলোমিটার (৮৪ মাইল)
যাত্রার গড় সময়৪ ঘণ্টা ১০ মিনিট
পরিষেবার হারসপ্তাহে ৬ দিন (শুক্রবার বন্ধ)
রেল নং৭৮১/৭৮২
যাত্রাপথের সেবা
শ্রেণীএসি কোচ, শোভন শ্রেণি ও শোভন চেয়ার
আসন বিন্যাসআছে
ঘুমানোর ব্যবস্থাআছে
খাদ্য সুবিধাআছে
বিনোদন সুবিধাআছে
কারিগরি
ট্র্যাক গেজমিটারগেজে

কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস (ট্রেন নং ৭৮১/৭৮২) বাংলাদেশ রেলওয়ের অধীনে পরিচালিত ঢাকা থেকে কিশোরগঞ্জ পর্যন্ত চলাচলকারী একটি আন্তঃনগর ট্রেন। এটি একটি জনপ্রিয় দ্রুতগামী ও বিলাসবহুল আন্তঃনগর ট্রেন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস মিটারগেজ রেললাইনে চলে। এটি উদ্বোধন হয় ১লা ডিসেম্বর ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দে।[১] এর আগে ১৭ নভেম্বর ট্রেনটি পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়। কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস ছাড়াও এ রুটে এগারো সিন্ধুর প্রভাতীএগারো সিন্ধুর গোধুলী চলাচল করে।

সময়সূচী[সম্পাদনা]

(বাংলাদেশ রেলওয়ের সময়সূচী পরিবর্তনশীল। বাংলাদেশ রেলওয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে সর্বশেষ সময়সূচী যাচাই করার জন্য অনুরোধ করা হলো। নিম্নোক্ত সময়সূচীটি বাংলাদেশ রেলওয়ের ৫২তম সময়সূচী অনুযায়ী, যা ২০২০ সালের ১০ই জানুয়ারি হতে কার্যকর।)

ট্রেন

নং

উৎস প্রস্থান গন্তব্য প্রবেশ সাপ্তাহিক

ছুটি

৭৮১ কমলাপুর ১০:৪৫ কিশোরগঞ্জ ১৫:০০ শুক্রবার
৭৮২ কিশোরগঞ্জ ১৬:০০ কমলাপুর ২০:১০

যাত্রাবিরতি[সম্পাদনা]

(অনেকসময় বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক কোনো ট্রেনের যাত্রাবিরতি পরিবর্তিত হতে পারে। নিম্নোক্ত তালিকাটি ২০২০ সাল অব্দি কার্যকর।)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "কিশোরগঞ্জ-ঢাকা রেলপথে কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস চালু"প্রথম আলো। কিশোরগঞ্জ। ২ ডিসেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯