বিষয়বস্তুতে চলুন

মধুমতি এক্সপ্রেস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মধুমতি এক্সপ্রেস
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
পরিষেবা ধরনআন্তঃনগর ট্রেন
অবস্থাপরিচালিত হচ্ছে
প্রথম পরিষেবা১৫ আগস্ট ২০০৩; ২০ বছর আগে (15 August 2003)
বর্তমান পরিচালকপশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে
যাত্রাপথ
শুরুরাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন
বিরতি২০ টি
শেষকমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন
যাত্রার গড় সময়৭ ঘন্টা ৪০ মিনিট
পরিষেবার হারসপ্তাহে ৬ দিন। (বৃহস্পতিবার বন্ধ)
রেল নং৭৫৫/৭৫৬
যাত্রাপথের সেবা
শ্রেণীশোভন চেয়ার,প্রথম সীট,স্নিগ্ধা তাপানুকূল চেয়ার
আসন বিন্যাসআছে
ঘুমানোর ব্যবস্থাআছে
খাদ্য সুবিধাআছে
বিনোদন সুবিধানেই
মালপত্রের সুবিধানেই
কারিগরি
গাড়িসম্ভার
  • আমেরিকার ৬৬০০ সিরিজের লোকোমোটিভ বা ভারতের ৬৫০০ সিরিজের লোকোমোটিভ
  • প্রথম সীট কোচ ১ টি
  • এসি চেয়ার কোচ ১ টি
  • নন এসি চেয়ার কোচ ৭ টি
  • পাওয়ার কার কোচ ১ টি
  • গার্ডব্রেক এবং খাবার গাড়ি কোচ ২ টি
  • গাড়ির মোট লোড ১২/২৪
ট্র্যাক গেজব্রডগেজ
পরিচালন গতি৮০-১০০-৮৫-১১৫-১০০

মধুমতি এক্সপ্রেস (ট্রেন নাম্বার- ৭৫৫/৭৫৬) বাংলাদেশ রেলওয়ের অধীনে পরিচালিত পশ্চিমাঞ্চলের একটি জনপ্রিয় আন্তঃনগর ট্রেন। ট্রেনটি বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চল এর সদর দপ্তর ও বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গের বড় শহর রাজশাহী থেকে ভাঙ্গা ও পদ্মা সেতু দিয়ে রাজধানী ঢাকা রুটে চলাচল করে।[১] এটি উদ্বোধন করা হয় ১৫ই আগস্ট ২০০৩ সালে যা সেই সময় রাজশাহী-গোয়ালন্দ ঘাট রুটে চলাচল করতো। যা পরবর্তী সময়ে ২০২০ সালের ৩০ অক্টোবর থেকে রুট পরিবর্তন করে ভাঙ্গা রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়। পরবর্তীতে ২০২৩ সালের ১ ডিসেম্বর তা ঢাকা পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়। এটি রাজশাহী - ঢাকা রুটের পঞ্চম ট্রেন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। বর্তমানে ট্রেনটি ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা "পিটি ইনকা ২০১৬" নিয়ে রাজশাহী ও ঢাকার মঝে পদ্মা সেতু হয়ে চলাচল করছে।

সময়সূচী[সম্পাদনা]

ট্রেন

নং

উৎস প্রস্থান গন্তব্য প্রবেশ সাপ্তাহিক

ছুটি

৭৫৫ ঢাকা ১৫:০০ রাজশাহী ২২:৪০ বৃহস্পতিবার
৭৫৬ রাজশাহী ০৬:৪০ ঢাকা ১৪:০০ বৃহস্পতিবার

যাত্রাবিরতি[সম্পাদনা]

অনেকসময় বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক কোনো ট্রেনের যাত্রাবিরতি পরিবর্তিত হতে পারে। নিম্নোক্ত তালিকাটি অনির্দিষ্টকাল পর্যন্ত কার্যকর। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ রেলওয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে সর্বশেষ তথ্যাদি জানা যেতে পারে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]