বাংলাদেশের মন্ত্রিসভা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(বাংলাদেশের মন্ত্রণালয় থেকে পুনর্নির্দেশিত)
শেখ হাসিনার চতুর্থ মন্ত্রিসভা
Flag of Bangladesh.svg
বাংলাদেশ-এর বিংশ মন্ত্রিসভা
৭ জানুয়ারি ২০১৯
Sheikh Hasina - 2009 cropped.jpg
শেখ হাসিনা
গঠনের তারিখ৭ জানুয়ারি ২০১৯ (2019-01-07)
ব্যক্তি ও সংস্থা
রাষ্ট্রপ্রধানআবদুল হামিদ
সরকারপ্রধানশেখ হাসিনা
মন্ত্রী সংখ্যা২৫ জন মন্ত্রী
১৯ জন প্রতিমন্ত্রী
৩ জন উপমন্ত্রী
মোট মন্ত্রী সংখ্যা৪৮ (প্রধানমন্ত্রীসহ)
সদস্য দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
আইনসভায় অবস্থা
২৫৭ / ৩০০
বিরোধী দলজাতীয় পার্টি
বিরোধী নেতারওশন এরশাদ
ইতিহাস
নির্বাচনএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন
সর্বশেষ নির্বাচনদশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন
আইনসভার মেয়াদএকাদশ জাতীয় সংসদ
পূর্বতনহাসিনার তৃতীয় মন্ত্রিসভা

বাংলাদেশের মন্ত্রিসভা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নির্বাহী বিভাগের প্রধান প্রতিষ্ঠান। আইনসভায় প্রণীত আইনের আলোকে মন্ত্রিসভা প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সরকারের নীতি ও সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করে এবং সম্পাদিত কার্যাবলীর জন্য সম্মিলিতভাবে জাতীয় সংসদের নিকট দায়বদ্ধ থাকে। বাংলাদেশের সংবিধানের ৭০নং অনুচ্ছেদ প্রধানমন্ত্রীর হাতে অনিয়ন্ত্রণীয় অপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্ষমতা ন্যস্ত করেছে বলে সমালোচনা রয়েছে।[১]

বাংলাদেশের বিশতম মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্যতীত মন্ত্রিসভার পূর্ণ মন্ত্রী ২৫ জন, প্রতিমন্ত্রী ১৯ জন ও উপমন্ত্রী হলেন ৩ জন।[২][৩] ৩০শে ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে বাংলাদেশের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ৬ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গঠিত মন্ত্রিসভার মন্ত্রীদের নাম ঘোষণা করে। ৭ জানুয়ারি নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যগণ শপথ নেন।

মন্ত্রিসভা[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের সংবিধানের চতুর্থ ভাগের দ্বিতীয় পরিচ্ছেদে প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রিসভা সংক্রান্ত বিধিমালা রয়েছে।

মন্ত্রিসভার মন্ত্রীদের মর্যাদাক্রম নিম্নলিখিত,

  • মন্ত্রী বা পূর্ণাঙ্গ মন্ত্রী: মন্ত্রিসভার সদস্য; একটি মন্ত্রণালয়ের কার্যনির্বাহক।
  • প্রতিমন্ত্রী (মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে): নিম্নপদস্থ মন্ত্রী; একটি মন্ত্রণালয়ের কার্যনির্বাহক।
  • প্রতিমন্ত্রী: নিম্নপদস্থ মন্ত্রী; একটি মন্ত্রণালয়ের কার্যনির্বাহক মন্ত্রীর নিকট দায়বদ্ধ।
  • উপমন্ত্রী: সর্বাধিক নিম্নপদস্থ মন্ত্রী; একটি মন্ত্রণালয়ের কার্যনির্বাহক মন্ত্রী কিংবা কার্যনির্বাহক প্রতিমন্ত্রীর নিকট দায়বদ্ধ।

মন্ত্রিসভার সদস্যগণ[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রীগণের বাইরে বাংলাদেশ সরকারের ‘রুলস অব বিজনেস-১৯৯৬’-এর ৩(বি)১ ধারা অনুযায়ী সংসদ সদস্য হবার যোগ্য এমন যেকোন ব্যক্তিকে তার উপদেষ্টা নিয়োগ করতে পারেন। উপদেষ্টাগণ সাধারণ মন্ত্রী পদমর্যাদা সম্পন্ন। ৭ জানুয়ারি সরকারের শপথ নেওয়ার দিন থেকে উপদেষ্টাদের নিয়োগ কার্যকরা ধরা হয়েছে।[৫]

রাজনৈতিক দল
Government Seal of Bangladesh.svg বাংলাদেশ সরকারের সিলমোহর
মন্ত্রী মন্ত্রণালয় এবং অফিস উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী এবং উপমন্ত্রী
শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ
জনপ্রশাসন
প্রতিরক্ষা
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ
সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ
মসিউর রহমান (প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা)
তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী (প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা)
গওহর রিজভী (প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা)
তারিক আহমেদ সিদ্দিক (প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টা)
সালমান এফ রহমান (প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা)
সজীব ওয়াজেদ জয় (প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা)

ফরহাদ হোসেন (প্রতিমন্ত্রী - জনপ্রশাসন)
নসরুল হামিদ (প্রতিমন্ত্রী - বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ)

আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়
ওবায়দুল কাদের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়
আব্দুর রাজ্জাক কৃষি মন্ত্রণালয়
আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়
মোহাম্মদ হাছান মাহমুদ তথ্য মন্ত্রণালয়
আনিসুল হক আইন ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়
আ হ ম মোস্তফা কামাল অর্থ মন্ত্রণালয়
তাজুল ইসলাম স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় (মন্ত্রী– স্থানীয় সরকার বিভাগ) স্বপন ভট্টাচার্য্য (প্রতিমন্ত্রী- পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ)
ডা: দীপু মনি শিক্ষা মন্ত্রণালয় মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল (উপমন্ত্রী)
আবুল কালাম আব্দুল মোমেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শাহরিয়ার আলম (প্রতিমন্ত্রী)
এম. এ. মান্নান পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় ড. শামসুল আলম (প্রতিমন্ত্রী)
নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন শিল্প মন্ত্রণালয় কামাল আহমেদ মজুমদার (প্রতিমন্ত্রী)
গোলাম দস্তগীর গাজী বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়
জাহিদ মালেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়
সাধন চন্দ্র মজুমদার খাদ্য মন্ত্রণালয়
টিপু মুনশি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়
নুরুজ্জামান আহমেদ সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় আশরাফ আলী খান খসরু (প্রতিমন্ত্রী)
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় শরীফ আহমেদ (প্রতিমন্ত্রী)
শাহাব উদ্দিন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় হাবিবুন নাহার (উপমন্ত্রী)
বীর বাহাদুর উশৈ সিং পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়
সাইফুজ্জামান চৌধুরী ভূমি মন্ত্রণালয়
নূরুল ইসলাম সুজন রেলপথ মন্ত্রণালয়
ইয়াফেস ওসমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়
ইমরান আহমদ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়
মোস্তাফা জব্বার ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় জুনাইদ আহমেদ পলক (প্রতিমন্ত্রী - তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ)
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় জাহিদ আহসান রাসেল (প্রতিমন্ত্রী)
শ ম রেজাউল করিম মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় মন্নুজান সুফিয়ান (প্রতিমন্ত্রী)
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় খালিদ মাহমুদ চৌধুরী (প্রতিমন্ত্রী)
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় জাকির হোসেন (প্রতিমন্ত্রী)
(প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীর দায়িত্বে) পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় জাহিদ ফারুক শামীম (প্রতিমন্ত্রী)
এ কে এম এনামুল হক শামীম (উপমন্ত্রী)
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় কেএম খালিদ বাবু (প্রতিমন্ত্রী)
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা (প্রতিমন্ত্রী)
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় এনামুর রহমান (প্রতিমন্ত্রী)
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় মাহবুব আলী (প্রতিমন্ত্রী)
(প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে) ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ফরিদুল হক খান (প্রতিমন্ত্রী)

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "নির্বাহী - বাংলাপিডিয়া"bn.banglapedia.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০৫ 
  2. "কে কোন মন্ত্রণালয় পেলেন (পুরো তালিকা)"যুগান্তর। ৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ জানুয়ারি ২০১৯ 
  3. "নতুন সরকারের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী-উপমন্ত্রী হচ্ছেন যারা"ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ৬ জানুয়ারি ২০১৯ 
  4. "গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান"bdlaws.minlaw.gov.bd। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জানুয়ারি ২০১৯ 
  5. "প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাগণের নিয়োগ প্রজ্ঞাপন"মন্ত্রী পরিষদ বিভাগ। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯