এশিয়ায় ইসলাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

সপ্তম শতাব্দীতে হযরত মুহাম্মদ (সা) এর জীবদ্দশায় এশিয়ায় ইসলামের সূচনা হয়েছিল। ২০১০ সালে এশিয়ার মোট মুসলমানের সংখ্যা ছিল প্রায় ১.১ বিলিয়ন। এশিয়া পূর্ণ সময়কাল ধরে বিশ্বব্যাপী মুসলিম জনসংখ্যাকে গঠন করেছে। [১] এবং বিশ্বের প্রায় ৬২% মুসলমান এশিয়াতে বাস করে, যেখানে ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তান, ভারত এবং বাংলাদেশে বিশ্বের বৃহত্তম মুসলিম জনসংখ্যা রয়েছে। পশ্চিম এশিয়া, মধ্য এশিয়া, দক্ষিণ এশিয়া এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া বিশেষত গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল হওয়ায় এশিয়া বৃহত্তম মুসলিম জনগোষ্ঠীর আবাসস্থল। ইসলামের ইতিহাসের শুরু থেকেই ইসলামের বেশ কিছু অনুগামী এশিয়াতে বিশেষত পশ্চিম এশিয়া এবং দক্ষিণ এশিয়ায় বাস করেছেন। পিউয়ের মতে ২০০৯ সালে হিন্দু ধর্মের পরেই ইসলাম এশিয়ার বৃহত্তম ধর্ম (২৫%) ছিল। [২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আরব উপদ্বীপের বাইরে এবং মহাদেশের অন্যান্য অঞ্চলে ইসলামের বিস্তারকে পশ্চিম এশিয়াকে চীনের সাথে সংযুক্তকারী বিস্তৃত বাণিজ্যিক রুটের সাথে যুক্ত করা যেতে পারে।

বারমাকি পরিবার উমাইয়া এবং আস-সাফাহর বিরুদ্ধে আব্বাসীয় বিপ্লবের প্রাথমিক সমর্থক ছিল। এটি খালিদ ইবনে বার্মাককে যথেষ্ট প্রভাবিত করেছিল এবং তাঁর পুত্র ইয়াহিয়া ইবনে খালিদ (মৃত্যু: ৮০৬) খলিফা আল-মাহদী এর উজির (শাসনকাল: ৭৭৫–৭৮৫) এবং হারুনুর রশিদের শিক্ষক ছিলেন (শাসনকাল: ৭৮৬-৮০৯)। ইয়াহিয়ার পুত্র আল-ফজলজাফর (৭৬৭-৮০৩) উভয়ই হারুনের অধীনে উচ্চ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। অনেক বারমাকি বিজ্ঞানের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন, যা পার্শ্ববর্তী গুন্ডিশপুর একাডেমী থেকে আরবি বিশ্বে ভারতীয় বিজ্ঞান এবং বৃত্তি প্রচারে ব্যাপকভাবে সহায়তা করেছিল। তারা জাবির এবং জিবরাইল ইবনে বুখতিশুর মতো পণ্ডিতদের পৃষ্ঠপোষকতা করেছিল। বাগদাদে প্রথম পেপার মিল প্রতিষ্ঠারও কৃতিত্ব তাদের। সেই সময়ে বারমাকিদের ওয়ান থাউজেন্ড ও ওয়ান নাইটের বইতে শক্তি প্রতিফলিত হয় ; উজির জাফরকে বেশ কয়েকটি গল্পে দেখা যায়, পাশাপাশি একটি গল্প "বার্মিসাইড ভোজন" অভিব্যক্তিটির জন্ম দিয়েছিল।

আমরা ইয়াহিয়া ইবনে খালিদ আল-বারমাকিকে (মৃত্যু খ্রিস্টপূর্ব ৮০৫) চিকিৎসকদের এবং বিশেষত হিন্দু চিকিৎসার কাজ আরবি এবং ফারসি উভয় ভাষায় অনুবাদ করার পৃষ্ঠপোষক হিসাবে কথা জানি। যাইহোক, সমস্ত সম্ভাবনার মধ্যেই, তাঁর তৎপরতা ইরাকের খলিফা আদালতের পরিমণ্ডলে সংঘটিত হয়েছিল, যেখানে হারুনুর রশিদের (৭৮৬-৮০৯) এর নির্দেশে এ জাতীয় বই আরবিতে অনুবাদ করা হয়েছিল। এভাবে খুরাসান এবং ট্রান্সস্যাকিয়ানা ভারত থেকে ইসলামে শিক্ষার এই স্থানান্তরকে কার্যকরভাবে অতিক্রম করেছিল, যদিও বারমাকিদের সাংস্কৃতিক দৃষ্টিভঙ্গি তাদের জন্মভূমি উত্তর আফগানিস্তানের প্রতি ঋণী ছিল এবং চিকিৎসার প্রতি ইয়াহিয়া আল-বারমাকির আগ্রহ অশনাক্তযোগ্য পারিবারিক ঐতিহ্য থেকে উদ্ভূত হয়ে থাকতে পারে।[৩]

খেলাফতের প্রথম দিকের গভর্নরেরা ছিলেন বারমাকি। খালিদ ইবনে বার্মাক সিন্ধুর মনসুরা এবং পরবর্তীকালে বাগদাদ নির্মাণ করেছিলেন । তাঁর পুত্র বর্তমান আজারবাইজান প্রদেশের গভর্নর ছিলেন।

জনমিতি[সম্পাদনা]

মধ্য এশিয়া[সম্পাদনা]

এশিয়াতে সুন্নি, শিয়া, কুরআনবাদী, মাহদিয়া/আহমদিয়া, ইবাদি, এবং আহলে হাদিস শাখার বিন্যাস
রেগিস্তান এবং এর তিনটি মাদ্রাসা, সমরকন্দ, উজবেকিস্তান
দেশ মোট জনসংখ্যা শতকরা মুসলমান মুসলিম জনসংখ্যা
 কাজাখস্তান ১৮,৭৪৪,৫৪৮ ৭০.২% [৪] ১৩,১৫৮,৬৭২
 কিরগিজিস্তান ৬,০১৯,৪৮০ ৮৬.৩% [৫] ৫,১৯৪,৮১১
 তাজিকিস্তান ৮,৭৩৪,৯৫১ ৯৮.০% [৬] ৮,৫৬০,২৫১
 তুর্কমেনিস্তান ৫,৮৫১,৪৬৬ ৯৩.৩% ৫,৪৫৯,৪১৭
 উজবেকিস্তান ৩২,৬৫৩,৯০০ ৯৬.৫% [৭] ৩১,৫১১,০১৩
মধ্য এশিয়া ৭২,০০৪,৩৪৫ ৮৮.৭% ৬৩,৮৮৪,১৬৪

পূর্ব এশিয়া[সম্পাদনা]

চীনের প্রাচীনতম মসজিদ হুয়াশেং মসজিদ, কুয়াংচৌ
দেশ মোট জনসংখ্যা শতকরা মুসলমান মুসলিম জনসংখ্যা
 চীন ১,৩৯৪,৬২০,০০০ ১.৮–৩.৬% [৮][৯][১০] ২৫,০০০,০০০-৫০,০০০,০০০
 হং কং ৭,৪৪৮,৯০০ ৪.১% ৩০৫,৪০৪
 ম্যাকাও ৬৫৮,৯০০ ১.৫% ১০,০০০ [১১]
 জাপান ১২৬,৪২০,০০০ ০.১% [১২] ১২৬,৪২০
 উত্তর কোরিয়া ২৫,৬১০,৬৭২ ০.৪% ১০০,০০০
 দক্ষিণ কোরিয়া ৫১,৬৩৫,২৫৬ ০.২% ১০০,০০০
 মঙ্গোলিয়া ৩,২৩১,২০০ ৫.০% ১৬১,৫৬০
 তাইওয়ান ২৩,৫৭৭,৪৮৮ ০.৩% ৭০,৭৩২
পূর্ব এশিয়া ১,৬৩৩,২০২,৪১৬ ৩.১৩% ৫১,০৮০,৪৩৬

দক্ষিণ এশিয়া[সম্পাদনা]

ঈদুল ফিতরের সময় পাকিস্তানের লাহোরের বাদশাহী মসজিদ । এটি দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম মসজিদ
দেশ মোট জনসংখ্যা শতকরা মুসলমান মুসলিম জনসংখ্যা
 আফগানিস্তান ৩১,৫৭৫,০১৮ ৯৯.০% [১৩] ৩১,২৫৯,২৬৭
 বাংলাদেশ ১৬৫,০০০,০০০ ৯০.৪% ১৪৯,১০০,০০০
 ভুটান ৭২৭,১৪৫ ০.২% [১৪] <১০,০০০
 ভারত ১,৩৩৮,২৭০,০০০ ১৪.২% [১৫] ১৯৪,৬০০,০০০
 মালদ্বীপ ৩৭৮,১১৪ ১০০% [১৬] ৩৭৮,১১৪
   নেপাল ২৯,২১৮,৮৬৭ ৪.৪% ১,২৮৫,৬৩০
 পাকিস্তান ২১২,৭৪২,৬৩১ ৯৬.২% ২০৪,৮২৮,৬০৫
 শ্রীলংকা ২১,৪৪৪,০০০ ৯.৭% ২,০৮০,০৬৮
দক্ষিণ এশিয়া ১,৭৮৯,৩০৯,১৪৪ ৩৬.৩৯% ৬৫১,০৯০,৪৫৬

দক্ষিণ - পূর্ব এশিয়া[সম্পাদনা]

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বৃহত্তম মসজিদ, ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তার ইস্তিকালাল মসজিদে ঈদুল ফিতরের সময় প্রার্থনারত মুসলমান
দেশ মোট জনসংখ্যা শতকরা মুসলমান মুসলিম জনসংখ্যা
 ব্রুনেই ৪৪৩,৫৯৩ ৮২.৭% ৩৬৬,৮৫১
 কম্বোডিয়া ১৬,২০৪,৪৮৬ ১.৯% [১৭] ৩১২,৫৪০
 পূর্ব তিমুর ১,২৯১,৩৫৮ ০.৩% ৪,০০০
 ইন্দোনেশিয়া ২৬০,৫৮০,৭৩৯ ৮৭.২% ২২৭,২২৬,৪০৪
 লাওস ৭,১২৬,৭০৬ ০.০১% ৮,০০০
 মালয়েশিয়া ৩১,৩৮১,৯৯২ ৬১.৩% ১৯,৫০০,০০০
 মায়ানমার ৫৫,১২৩,৮১৪ ৪.১৫% ২,৩০০,০০০
 ফিলিপাইন ১০৬,০০০,০০০ ৫–১১.০% [১৮][১৯] ৫,৩০০,০০০–১০,৬০০,০০০
 সিঙ্গাপুর ৫,৮৮৮,৯২৬ ১৫.০% ৮৮৩,৩৩৮
 থাইল্যান্ড ৬৮,৪১৪,১৩৫ ৫.০% ৩,৪২০,৭০৬
 ভিয়েতনাম ৯৬,১৬০,১৬৩ ০.১% ৬৫,০০০
দক্ষিণ - পূর্ব এশিয়া ৬৪১,৭৭৫,৭৯৭ ৪১.৩% ২৬৪,৭৮৬,৮৩৯

পশ্চিম এশিয়া[সম্পাদনা]

সৌদি আরবের মক্কার কাবা এর পাশে হজ পালনকারীগন
ইরানের মাশহাদে ইমাম রেজা মাজারটি বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মসজিদ
দেশ মোট জনসংখ্যা শতকরা মুসলমান মুসলিম জনসংখ্যা
 আর্মেনিয়া ২,৯৭৫,০০০ ০.০৩% ১,০০০
 আজারবাইজান ১০,০২৭,৮৭৪ ৯৬.৯% [২০] ৯,৭২৭,০৩৮
 বাহরাইন ১,৪৯৬,৩০০ ৮১.২% [২১] ১,২১৪,৯৯৫
 বাহরাইন ৮৫৪,৮০০ ২৫.৪% ২১৭,১১৯
 জর্জিয়া ৩,৭২৩,৪৬৪ ১০.৭% ৪৬৩,০৬২
 ইরান ৮১,৮৭১,৫০০ ৯৯% [২২] ৮১,০৫২,৭৮৫
 ইরাক ৩৯,৩৩৯,৭৫৩ ৯৮.০% [২৩] ৩৮,৫৫২,৯৫৭
 ইসরায়েল ৮,৯৩০,৬৮০ ১৭.৭% ১,৫৮০,৭৩০
 জর্ডান ১০,২৬১,৩০০ ৯৪.০% ৯,৬৪৫,৬২২
 কুয়েত ৪,২২৬,৯২০ ৮৫.০% ৩,৫৯২,৮৮২
 লেবানন ৬,০৯৩,৫০৯ ৫৪.০% ৩,২০০,০০০
 ওমান ৪,৬৫১,৭০৬ ৯৯.০% [২৪] ৪,৬০৫,১৮৮
 ফিলিস্তিন ৪,৮১৬,৫০৩ ৯৩.০%,[২৫] ৪,৪৭৯,৩৪৭
 কাতার ২,৫৬১,৬৪৩ ৭৭.৫% [২৬] ১,৯৮৫,২৭৩
 সৌদি আরব ৩৩,৪১৩,৬৬০ ১০০.০% [২৭] ৩৩,৪১৩,৬৬০
 সিরিয়া ১৮,২৮৪,৪০৭ ৮৭.০% [২৮] ১৫,৯০৭,৪৩৪
 তুরস্ক ৮০,৮১০,৫২৫ ৯৯.৮% [২৯] ৮০,৬৪৮,৯০৩
 সংযুক্ত আরব আমিরাত ৯,৫৮২,৩৪০ ৮০.০% ৭,৬৬৫,৮৭২
 ইয়েমেন ২৮,৯১৫,২৮৪ ৯৯.৫% [৩০] ২৮,৯১৫,২৮৪
পশ্চিম এশিয়া ৩৫২,৮৩৭,১৬৮ ৭৯.৪৫% ২৮০,৩৫১,৫৯০

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The Global Religious Landscape" (PDF)। Pewforum.org। ২৫ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ মে ২০২০ 
  2. [১] accessed April 3, 2012. ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত জানুয়ারি ১৮, ২০১৩ তারিখে
  3. History of Civilizations of Central Asia, Volume 4, Part 2 By C. E. Bosworth, M.S. Asimov, page 300
  4. "The results of the national population census in 2009"। Agency of Statistics of the Republic of কাজাখস্থান। ১২ নভেম্বর ২০১০। ২২ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১০ 
  5. MAPPING THE GLOBAL MUSLIM POPULATION ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১১-০৫-১৯ তারিখে. A Report on the Size and Distribution of the World’s Muslim Population. Pew Research Center. October 2009
  6. "Tajikistan"U.S. Department of State। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  7. "The Future of World Religions: Population Growth Projections, 2010–2050"Pew Research। সংগ্রহের তারিখ ২ এপ্রিল ২০১৫ 
  8. "East Asia/Southeast Asia :: China — The World Factbook – Central Intelligence Agency"www.cia.gov। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  9. "China Religion Facts & Stats"www.nationmaster.com। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  10. Refugees, United Nations High Commissioner for। "Refworld | 2010 Report on International Religious Freedom - China (includes Tibet, Hong Kong, Macau)"Refworld (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  11. "MACAU DAILY TIMES - Being a Muslim in Macau: Indonesian community holds triple celebration"। ২০১৩-১০-১৬। ২০১৩-১০-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  12. Editors। "From 2 Mosques to 200: Growth of Islam in Japan"Muslim Ink (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-১২-১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  13. "Afghanistan Religion | Afghanistan's Web Site"www.afghanistans.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  14. Pew Research Center's Religion & Public Life Project: Bhutan. Pew Research Center. 2010.
  15. "Muslim Population in India - Muslims in Indian States"www.indiaonlinepages.com। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১০-০৪ 
  16. "The World Factbook — Central Intelligence Agency"www.cia.gov (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  17. "East Asia/Southeast Asia :: Cambodia — The World Factbook – Central Intelligence Agency"www.cia.gov। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  18. "Table 1.10; Household Population by Religious Affiliation and by Sex; 2010" (PDF)Philippine Statistics Authority। অক্টোবর ২০১৫: 1–30। আইএসএসএন 0118-1564। ১১ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ আগস্ট ২০১৬ 
  19. "Philippines" 
  20. "Mapping The Global Muslim Population" (PDF)। ১৯ মে ২০১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০১১ 
  21. "Bahrain Religion Facts & Stats"www.nationmaster.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  22. https://www.nationmaster.com/country-info/profiles/Iran/Religion  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  23. "The World Factbook — Central Intelligence Agency"www.cia.gov (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৮ 
  24. "Oman Religion Facts & Stats"www.nationmaster.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  25. "Are all Palestinians Muslim?"Institute for Middle East Understanding। ১৩ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  26. "Qatar | The World Almanac of Islamism"almanac.afpc.org (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-১০-১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  27. "Saudi Arabia"U.S. Department of State (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  28. "Syria Religions - Demographics"www.indexmundi.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৫ 
  29. "Turkey"World FactbookCIA। ২০০৭। 
  30. "Yemen"WikiShia (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-১৮ 

 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]