জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ
প্রতিষ্ঠাতাআল্লামা হযরত মাওলানা শাব্বির আহমেদ উসমানি রহ.
সদর দপ্তরঢাকা, বাংলাদেশ
ছাত্র শাখাছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ
মতাদর্শইসলামী
জাতীয় সংসদের আসন
০ / ৩০০
নির্বাচনী প্রতীক
জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের লোগো ২.jpg
বাংলাদেশের রাজনীতি
রাজনৈতিক দল
নির্বাচন

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ নামকরণে ২২ মার্চ ১৯৭১ সালে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের একটি ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল হিসেবে কার্যক্রম শুরু করে। দলটির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শায়খ জিয়া উদ্দিন ও মহাসচিব নূর হুসাইন কাসেমী[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯১৯ সনে দারুল উলূম দেওবন্দ কেন্দ্রিক সর্বপ্রথম[২] ইসলামী রাজনৈতিক দল জমিয়তের কার্যক্রম শুরু হয়, তখন উপমহাদেশ কেন্দ্রিক এ দলের নাম ছিল জমিয়ত উলামায়ে হিন্দ। পরবর্তীতে মুসলমানদের স্বতন্ত্র জাতি হিসাবে তাদের নিজস্ব আবাসভূমি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে অবিভক্ত ভারতে মাওলানা শাব্বীর আহমদ উসমানী রহ. এর নেতৃত্বে পুর্নগঠিত হয়ে এর নাম জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম হয়।[৩] বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভ করলে দলটির বাংলাদেশ অংশকে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ নামে নামকরণ করা হয় ও একক ইসলামী দল হিসেবে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম স্বাধীন বাংলাদেশে এর যাত্রা শুরু হয়।[৪][৫]

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নির্বাচন কমিশন কর্তৃক নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর নিবন্ধন নং ২৩। স্বাধীন বাংলার প্রথম সভাপতি নির্বাচিত হন তাজাম্মুল আলী এরপর মরহুম আজিজুল হক। পরবর্তি সভাপতি আব্দুল করীম শায়খে কৌড়িয়া। তার পর সভাপতি নির্বাচিত হন মরহুম আশরাফ আলী বিশ্বনাথী। ২০০৫ সালে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হন মাসিক মদীনা সম্পাদক মুহিউদ্দীন খান। পরবর্তীতে সভাপতি ছিলেন শায়খ আব্দুল মোমিন। বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির পদে আছেন শায়খুল হাদিস জিয়া উদ্দিন।[৪]

যুব সংগঠন[সম্পাদনা]

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর সহযোগী সংগঠন “যুব জমিয়াত বাংলাদেশ”। বর্তমান সভাপতি মাওলানা তাফহীমুল হক্ব, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইসহাক কামাল।

ছাত্র সংগঠন[সম্পাদনা]

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সহযোগী সংগঠন ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ ১৯৯২ সনের ২৪ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠা লাভ করে।বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুফতি এখলাছুর রহমান রিয়াদ, সাধারণ সম্পাদক হুজাইফা ইবনে ওমর।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Bangladesh Election Commission - Home page"। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০১৪ 
  2. "Why did the Pak Maulana visit Deoband?"। Rediff India Abroad। জুলাই ১৮, ২০০৩। সংগ্রহের তারিখ মে ১৯, ২০১২ 
  3. "মাওলানা শাব্বীর আহমদ উসমানী ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম"দৈনিক ইনকিলাব। ১২ জানুয়ারি ২০১৮। ২০ মার্চ ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. শাকের হোসাইন শিবলি, ইসলামি গবেষণা, সমালোচনা ও প্রবন্ধ (২০১৬)। বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের ভূমিকা (পেপারব্যাক)। বাংলাদেশ: রকমারি। পৃষ্ঠা 32। 
  5. "Why did the Pak Maulana visit Deoband?"www.rediff.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২৬