লোকোমোটিভ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অস্ট্রেলিয়ার প্যাসিফিক ন্যাশনাল ডিজেল লোকোমোটিভের তিনটি বডি টাইপ দেখা যাচ্ছে, ক্যাব ইউনিট, হুড ইউনিট এবং বক্স ক্যাব
অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়ান রেলওয়ে দ্বারা পরিচালিত একটি আর ক্লাস বাষ্পীয় লোকোমোটিভ নম্বর আর৭০৭
চীনে একটি এইচএক্সডি১ডি বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ একটি যাত্রীবাহী ট্রেন চালাচ্ছে

একটি লোকোমোটিভ বা ইঞ্জিন হল একটি রেল পরিবহন বাহন যা একটি ট্রেনের চলার ক্ষমতা সরবরাহ করে। যদি কোনো লোকোমোটিভ পে-লোড বহন করতে সক্ষম হয়, তবে এটিকে সাধারণত মাল্টিপল ইউনিট, মোটর কোচ, রেলকার বা পাওয়ার কার বলা হয়। এই আত্ম-চালিত যানবাহন যাত্রীবাহী ট্রেনে অধিক ব্যবহৃত হয় কিন্তু মালবাহী ট্রেনের জন্য খুব দূর্লভ (দেখুন কার্গোস্প্রিন্টার এবং আয়রন হাইওয়ে)।

সাধারণত একটি লোকোমোটিভ একটি ট্রেনকে সামনে থেকে টানে। তবে, পুশ-পুল অপারেশন সচরাচর ব্যবহৃত হচ্ছে, যেখানে ট্রেনের সামনে, বা পিছনে বা উভয় প্রান্তে এক বা একাধিক লোকোমোটিভ থাকতে পারে। ইদানীং রেলপথগুলোতে ডিপিইউ বা ডিস্ট্রিবিউটেড পাওয়ার (বিতরণ ক্ষমতা) গ্রহণ করা শুরু হয়েছে। এক্ষেত্রে ট্রেনের সামনের দিকে একটি বা দুটি লোকোমোটিভ থাকে এবং এরপর ট্রেনের মাঝখানে আরেকটি লোকোমোটিভ থাকে যা সামনের লোকোমোটিভ থেকে দূরবর্তীভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

ব্যাকরণ[সম্পাদনা]

"লোকোমোটিভ" শব্দটির উৎপত্তি হয়েছে ল্যাটিন শব্দ "লোকাস" (জায়গা) এর অপাদান "লোকো" (একটি জায়গা থেকে), এবং মধ্যযুগীয় ল্যাটিন শব্দ "মোটিভাস" (গতি ঘটানো) থেকে এবং শব্দটি "লোকোমোটিভ ইঞ্জিন" এর একটি সংক্ষিপ্ত রূপ।[১] স্ব-চালিত বাষ্পীয় ইঞ্জিন এবং স্থির বাষ্পীয় ইঞ্জিনের মধ্যে পার্থক্য করতে ১৮১৪ সালে এই শব্দটি প্রথম ব্যবহৃত হয়।[২]

শ্রেণীবিভাগ[সম্পাদনা]

লোকোমোটিভ উদ্ভাবণের পূর্বে রেলপথে গতিশক্তির জন্য বিভিন্ন নিম্ন-প্রযুক্তি পদ্ধতি ব্যবহৃত হতো। যেমন মানব শক্তি, ঘোড়ার শক্তি, মাধ্যাকর্ষণ বা স্থির ইঞ্জিন (যা কেবল সিস্টেমে ব্যবহৃত হয়)। আজও এমন কিছু ব্যবস্থা প্রচলিত রয়েছে। লোকোমোটিভগুলো তাদের শক্তি জ্বালানী (কাঠ, কয়লা, পেট্রোলিয়াম বা প্রাকৃতিক গ্যাস) থেকে উৎপাদন করতে পারে বা বাইরের উৎসের বিদ্যুৎ থেকে গ্রহণ করতে পারে। সাধারণত লোকোমোটিভগুলোকে তাদের শক্তির উৎস দ্বারা শ্রেণীবদ্ধ করা হয়। এর মধ্যে কয়েকটি উদাহরণ হলো:

বাষ্পীয়[সম্পাদনা]

একটি বাষ্পীয় লোকোমোটিভ এক ধরনের লোকোমোটিভ যার প্রাথমিক শক্তি উৎস একটি বাষ্পীয় ইঞ্জিন। লোকোমোটিভে বাষ্প উৎপাদনের জন্য একটি বয়লারও থাকে। বাষ্প উৎপাদন করার জন্য বয়লারে থাকা পানিকে দাহ্য উপাদান - সাধারণত কয়লা, কাঠ বা তেল জ্বালীয়ে উত্তপ্ত করা হয়। উৎপাদিত বাষ্প লোকোমোটিভে থাকা পিস্টনগুলি ঘুড়ায় যা লোকোমোটিভের প্রধান চাকার ("ড্রাইভার" হিসাবে পরিচিত) সাথে সংযুক্ত থাকে। জ্বালানী এবং পানি উভয় ট্রেনেই বহন করা হয়, হয় লোকোমোটিভের সাথেই নয় এর পেছনে যুক্ত "টেন্ডার" নামক ওয়াগনে।

ট্র্যাভিথিকের ১৮০২ লোকোমোটিভ

১৮০২ সালে রিচার্ড ট্র্যাভিথিক প্রথম পূর্ণ-স্কেল ওয়ার্কিং স্টিম লোকোমোটিভ তৈরি করেছিলেন। এটি যুক্তরাজ্যের শ্রপশায়ারে অবস্থিত "কোলব্রুকডেল আয়রনওয়ার্কস" এর জন্য নির্মিত হয়েছিল, যদিও সেখানে এটির কাজ করার কোনো রেকর্ড এখন বেঁচে নেই।[৩] ১৮০৪ সালের ২১ ফেব্রুয়ারিতে সর্বপ্রথম বাষ্পীয়-লোকোমোটিভচালিত রেলযাত্রা নথিভুক্ত হয়, যখন ট্র্যাভিথিকেরই আরেকটি লোকোমোটিভ "Merthyr Tydfil"-এ অবস্থিত "পেন-ওয়াই-ড্যারেন আয়রনওয়ার্কস" থেকে "সাউথ ওয়েলস"-এ অবস্থিত "Abercynon" পর্যন্ত একটি ট্রেন চালিয়ে নিয়ে যায়।[৪][৫] অ্যান্ড্রু ভিভিয়ান এর সাথে থেকে এটি মিশ্র সফলতার সাথে চলেছিলো।[৬] লোকোমোটিভের ডিজাইনে উচ্চ-চাপ বাষ্প ব্যবহারসহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ উদ্ভাবন সংযুক্ত করা হয়েছিল যা ইঞ্জিনের ওজন হ্রাস করে এবং এর দক্ষতা বৃদ্ধি করে।

ডার্লিংটন রেলওয়ে কেন্দ্র এবং যাদুঘরে "লোকোমোশন নং 1"

১৮১২ সালে ম্যাথিউ মারের দ্বৈত-সিলিন্ডারের র‍্যাক লোকোমোটিভ "সালামানকা " প্রান্ত-রেলযুক্ত র‍্যাক-ও-পিনিয়ন মিডলটন রেলওয়েতে প্রথম চলেছিলো।[৭] এটিকে সাধারণত সর্বপ্রথম বাণিজ্যিকভাবে সফল লোকোমোটিভ হিসাবে বিবেচনা করা হয়।[৮][৯] আরেকটি সুপরিচিত লোকোমোটিভ হলো "পফিং বিলি", যা ১৮১৩-১৮১৪ সালের দিকে ইঞ্জিনিয়ার উইলিয়াম হেডলি টায়নে নিউক্যাসলের নিকটে অবস্থিত "উইলাম কলিরি"-এর জন্য তৈরি করেছিলেন। এটি সবচেয়ে প্রাচীন সংরক্ষিত লোকোমোটিভ, যা লন্ডনের বিজ্ঞান যাদুঘরে স্থির প্রদর্শনীতে রয়েছে। জর্জ স্টিফেনসন ইংল্যান্ডের উত্তর-পূর্বে অবস্থিত "স্টকটন এবং ডার্লিংটন রেলপথ"-এর জন্য লোকোমোশন নং. ১ নির্মাণ করেছিলেন। এই রেলপথটি ছিল বিশ্বের প্রথম পাবলিক বাষ্প-রেলপথ। ১৮২৯ সালে রবার্ট (জর্জ স্টিফেনসনের ছেলে) "নিউক্যাসল আপন টাইন"-এ "দ্য রকেট " তৈরি করেছিলেন। এটি রেইনহিল ট্রায়ালে প্রবেশ করেছিল এবং জিতেছিল। এই সাফল্যের ফলে সংস্থাটি যুক্তরাজ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের বেশিরভাগ অঞ্চলে রেলপথে বাষ্প লোকোমোটিভের প্রথম দিকের নির্মাতা হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেছিল।[১০] এর এক বছর পর স্টিভেনসনের নির্মিত লিভারপুল এবং ম্যানচেস্টার রেলপথ যাত্রীবাহী এবং পণ্যবাহী ট্রেনে একচেটিয়াভাবে বাষ্পীয় লোকোমোটিভ ব্যবহার করা শুরু করে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পর্যন্ত লোকোমোটিভের ধরন অনুযায়ী বাষ্পীয় লোকোমোটিভই ছিলো সবচেয়ে সচরাচর।[১১] বাষ্পীয় লোকোমোটিভ আধুনিক ডিজেল এবং বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভগুলির চেয়ে কম দক্ষ এবং এগুলি পরিচালনা এবং সেবার জন্য উল্লেখযোগ্যভাবে বৃহত্তর লোকবলের প্রয়োজন।[১২] ব্রিটিশ রেলের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে যে একটি বাষ্পীয় লোকোমোটিভের ক্রু এবং জ্বালানী ব্যয় একটি সমতুল্য ডিজেল লোকোমোটিভকে সমর্থন করার ব্যয়ের চেয়ে প্রায় আড়াই গুণ বেশি, এবং বাষ্পীয় লোকোমোটিভ দৈনিক যত মাইলেজে চলতে পারত তাও কম ছিল।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

প্রায় ১৯৫০ থেকে ১৯৭০-এর দশকের মধ্যে বেশিরভাগ বাষ্পীয় লোকোমোটিভগুলি বাণিজ্যিক পরিষেবা থেকে অবসর নিয়েছে এবং তার স্থলে বৈদ্যুতিক এবং ডিজেল-বৈদ্যুতিন লোকোমোটিভ ব্যবহার করা হয়।[১৩][১৪] ১৯৫০-এর দশকে উত্তর আমেরিকা এবং ১৯৭০-এর দশকে মহাদেশীয় ইউরোপ বাষ্পীয় লোকোমোটিভ থেকে স্থানান্তরিত হয়, পৃথিবীর অন্যান্য অঞ্চলে এই রূপান্তরটি পরে ঘটেছিল।

বাষ্প একটি পরিচিত প্রযুক্তি ছিলো যা বহুল পরিমাণে পাওয়া জ্বালানী ব্যবহার করে এবং স্বল্প-বেতনের অর্থনীতিতে ব্যয়বহুল বৈষম্য হিসাবে ভোগেনি। বিশ শতকের শেষ অবধি এটি বহু দেশে ব্যবহৃত হতে থাকে। বিশ শতকের শেষের দিকে বিশ্বজুড়ে শুধুমাত্র হেরিটেজ রেলপথে বাষ্পীয় লোকোমোটিভ নিয়মিত ব্যবহার করা হয়।

অভ্যন্তরীণ দহন[সম্পাদনা]

অভ্যন্তরীণ দহন লোকোমোটিভগুলি একটি অভ্যন্তরীণ দহন ইঞ্জিন ব্যবহার করে, যা চালক-চাকার সাথে শক্তি সঞ্চালনের মাধ্যমে সংযুক্ত থাকে। ইঞ্জিন স্থির বা চলন্ত যে অবস্থাতেই থাকুক না কেনো, এটি সাধারণত ইঞ্জিনকে স্থির-গতিতে চলমান রাখে।

কেরোসিন[সম্পাদনা]

১৮৮৭ ডেমলার ড্রেইসিন

কেরোসিন লোকোমোটিভ জ্বালানী হিসাবে কেরোসিন ব্যবহার করে। ডিজেল এবং অন্যান্য তেল-চালিত লোকোমোটিভ আসার কয়েক বছর পূর্বে কেরোসিন লোকোমোটিভই ছিলো বিশ্বের প্রথম তেল-চালিত লোকোমোটিভ ছিল, ।

সর্বপ্রথম পরিচিত কেরোসিন রেল যানবাহনটি ছিল ১৮৮৭ সালে গটলিব ডেমলার দ্বারা নির্মিত একটি ড্রেইসিন,[১৫] তবে পে-লোড বহন করার কারণে এটি প্রযুক্তিগতভাবে কোনো লোকোমোটিভ ছিল না।

১৮৯৪ সালে একটি কেরোসিনের লোকোমোটিভ "কিংস্টন আপন হল" এর প্রাইস্টম্যন ব্রাদার্স দ্বারা নির্মিত হয়েছিল হাল্ট ডকে ব্যবহারের জন্য । এই লোকোমোটিভটি একটি ১২ হর্সপাওয়ারের ডাবল-অ্যাক্টিং মেরিন টাইপ ইঞ্জিন ব্যবহার করে নির্মিত হয়েছিল, যা ৩০০ আরপিএম এ চলমান এবং ৮-চাকা ওয়াগন চ্যাসিসে যুক্ত। কম ক্ষমতার কারণে এটি শুধু একটিই পণ্য-বোঝাই ওয়াগনকে টানতে পারতো এবং এটি কোনো দুর্দান্ত সাফল্য ছিল না।[১৬] প্রথম সফল কেরোসিন লোকোমোটিভ হলো রিচার্ড হর্ন্সবি অ্যান্ড সন্স লিমিটেড দ্বারা নির্মিত "লাচিসিস" এবং এটি ১৮৯৬ সালে উলউইচ আর্সেনাল রেলপথে বিতরণ করা হয়েছিল। সংস্থাটি ব্রিটিশ সামরিক বাহিনীর ব্যবহারের জন্য ১৮৯৬ থেকে ১৯০৩ সালের মধ্যে বেশ কয়েকটি কেরোসিন লোকোমোটিভ তৈরি করেছিল।

পেট্রোল[সম্পাদনা]

১৯০২ মাডসলে পেট্রোল লোকোমোটিভ

পেট্রোল ইঞ্জিনগুলি জ্বালানী হিসাবে পেট্রোল ব্যবহার করে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রথম বাণিজ্যিকভাবে সফল পেট্রোল লোকোমোটিভ ছিল লন্ডনের ডিপ্টফোর্ড ক্যাটাল মার্কেটের জন্য ১৯০২ সালে মাডসলে মোটর সংস্থা দ্বারা নির্মিত একটি পেট্রোল-যান্ত্রিক লোকোমোটিভ। এটি ৮০ হর্সপাওয়ারের একটি লোকোমোটিভ যা একটি টু স্পিড যান্ত্রিক গিয়ারবক্সসহ ৩-সিলিন্ডার উল্লম্ব পেট্রোল ইঞ্জিন ব্যবহার করে।

পেট্রোল-যান্ত্রিক[সম্পাদনা]

সবচেয়ে সচরাচর ধরনের পেট্রোল লোকোমোটিভ হলো পেট্রোল-যান্ত্রিক লোকোমোটিভ, যা গিয়ারবক্স (কখনও কখনও চেইন ড্রাইভারের সাথে মিলিত আকারে) দ্বারা যান্ত্রিক সঞ্চালনের মাধ্যমে পাওয়ার আউটপুট ইঞ্জিন থেকে চালক-চাকায় পৌঁছে দেয়।

পেট্রোল-বৈদ্যুতিক[সম্পাদনা]

পেট্রোল-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ বৈদ্যুতিক সঞ্চালনের মাধ্যমে চালক-চাকায় ইঞ্জিনের পাওয়ার আউটপুট সরবরাহ করে। এতে গিয়ারবক্সের প্রয়োজন হয় না, কারণ এটি ইঞ্জিনের ঘূর্ণমান যান্ত্রিক শক্তিকে ডায়নামো দ্বারা বৈদ্যুতিক শক্তিতে রূপান্তরিত করে এবং সাথে সাথে বহুগতির বৈদ্যুতিক ট্র্যাকশন মোটর দ্বারা চাকাগুলিতে শক্তি সরবরাহের মাধ্যমে। এটি মাধ্যমে মসৃণ ত্বরণ সম্ভব হয়, কারণ এতে গিয়ার পরিবর্তনের প্রয়োজন পরে না, তবে এটি পেট্রোল-যান্ত্রিক লোকোমোটিভের চেয়ে অধিক ব্যয়বহুল, ভারী এবং কখনও কখনও বাল্কিয়ারও।

ডিজেল[সম্পাদনা]

ডিজেল-যান্ত্রিক[সম্পাদনা]
ডিজেল যান্ত্রিক লোকোমোটিভের পরিকল্পনামূলক চিত্র
উত্তর আলাবামা রেলপথ যাদুঘরের একটি পুরনো ডিজেল-যান্ত্রিক লোকোমোটিভ

ডিজেল-যান্ত্রিক লোকোমোটিভ ইঞ্জিন থেকে যান্ত্রিক পদ্ধতিতে চাকায় শক্তি সরবরাহ করে। সাধারণত স্বল্প ক্ষমতা ও স্বল্প গতির শান্টিং বা সুইচিং লোকোমোটিভ, তূলনামূলক কম ভরের মাল্টিপল ইউনিট ও স্ব-চালিত রেলকারে এই ধরনের পদ্ধতি ব্যবহৃত হতো। এরাই সবচেয়ে পুরনো ধরনের ডিজেল লোকোমোটিভ।

রেলপথে ব্যবহৃত যান্ত্রিক সঞ্চালন পদ্ধতি সড়কপথে ব্যবহৃত যান্ত্রিক পদ্ধতির চেয়ে অধিক জটিল এবং অধিক শক্তিশালী। ইঞ্জিন এবং গিয়ারবক্সের মধ্যে সাধারণত একটি তরল সংযোগ (fluid coupling) থাকে। লোডে থাকাবস্থায় গিয়ার পরিবর্তনের জন্য গিয়ারবক্স প্রায়ই এপিসাইকলিক (গ্রহ) আকৃতির হয়। গিয়ার পরিবর্তনের সময় সঞ্চালনে বিরতি কমাতে বিভিন্ন সিস্টেম তৈরি করা হয়েছে; উদাহরণস্বরূপ, হডসওয়েল ক্লার্ক দ্বারা ব্যবহৃত এস.এস.এস (synchro-self-shifting) গিয়ারবক্স। ভারী ট্রেন চলাচলের জন্য প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ এবং টর্ক সরবরাহের জন্য পর্যাপ্ত পরিমান শক্তি সঞ্চালনে সীমাবদ্ধতা থাকার কারণে ডিজেল-যান্ত্রিক লোকোমোটিভের ব্যবহার সীমাবদ্ধ।

ডিজেল-বৈদ্যুতিক[সম্পাদনা]
ডিজেল বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভের চিত্র

ডিজেল-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভের ক্ষেত্রে, ডিজেল ইঞ্জিন ট্র্যাকশন মোটরগুলোতে শক্তি সরবরাহ করে, যার ফলে লোকোমোটিভের চাকার ঘূর্ণন হয় ও লোকোমোটিভ চলে। ট্র্যাকশনের জন্য হয় বৈদ্যুতিক ডিসি জেনারেটর (সাধারণত, ৩,০০০ অশ্বশক্তি (২,২০০ কিওয়াট) বা এর চেয়ে কম) নয়তো বৈদ্যুতিক এসি অল্টারনেটর-রেক্টিফায়ার (সাধারণত ৩,০০০ অশ্বশক্তি (২,২০০ কিওয়াট) বা এর অধিক) ব্যবহৃত হয়। ডিজেল ইঞ্জিন এবং চাকার মধ্যে কোনো যান্ত্রিক সংযোগ নেই। বর্তমানে অধিকাংশ ডিজেল লোকোমোটিভ হচ্ছে ডিজেল-বৈদ্যুতিক।

ডিজেল-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হচ্ছে ডিজেল ইঞ্জিন (প্রাইম মুভার হিসাবেও পরিচিত), প্রধান জেনারেটর/অল্টারনেটর-রেক্টিফায়ার, ট্র্যাকশন মোটর (সাধারণত চারটি বা ছয়টি অ্যাক্সেলসহ) এবং একটি নিয়ন্ত্রণ-ব্যবস্থা যাতে ইঞ্জিন গভর্নর এবং বৈদ্যুতিক/বৈদ্যুতিন উপাদানসমূহ রয়েছে, যেমন সুইচগিয়ার, রেকটিফায়ার এবং অন্যান্য উপাদানসমূহ, যা ট্র্যাকশন মোটরগুলিতে বৈদ্যুতিক সরবরাহ নিয়ন্ত্রণ বা রুপান্তর করে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে, জেনারেটর শুধুমাত্র খুব সাধারণ সুইচগিয়ারের সাথে সরাসরি মোটরগুলির সাথে সংযুক্ত থাকে।

মূলত, ট্র্যাকশন মোটর এবং জেনারেটর ছিল ডিসি মেশিন। ১৯৬০ এর দশকে উচ্চ-ক্ষমতার সিলিকন রেকটিফায়ার বিকাশের পর, ডিসি জেনারেটর একটি অল্টারনেটর দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়, এ ক্ষেত্রে ডায়োড ব্রিজ ব্যবহার করে আউটপুট ডিসিতে রূপান্তর করা হয়। এর মাধ্যমে জেনারেটরে কমিউটেটর ও ব্রাশের প্রযোজনীয়তা দূর হয়, ফলে জেনারেটর রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয় হ্রাস হয় ও লোকোমোটিভের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। ব্রাশ এবং কমিউটেটরের অবসান "ফ্ল্যাশওভার" হিসাবে উল্লেখযোগ্য একটি বিশেষ ধ্বংসাত্মক ধরনের ঘটনার সম্ভাবনা নিষ্পত্তি করে, যার ফলে তাৎক্ষণিক জেনারেটর ব্যর্থ হতে পারে এবং কিছু ক্ষেত্রে ইঞ্জিনের আগুনও লাগতে পারে।

১৯১৪ সালে কিয়েভে SŽD Eel2, দীর্ঘ দূরত্বের জন্য বিশ্বের প্রথম কার্যকরী ডিজেল লোকোমোটিভ (ডিজেল-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ)

১৯৮০ এর দশকের শেষের দিকে, উচ্চ-ক্ষমতার ভেরিয়েবল-ফ্রিকোয়েন্সি/ভেরিয়েবল-ভোল্টেজ (ভিভিভিএফ) ড্রাইভ বা "ট্র্যাকশন ইনভার্টারস" এর বিকাশ, পলিফেজ এসি ট্র্যাকশন মোটর ব্যবহারের সুযোগ করে দিয়েছে, এভাবে মোটর কমিউটেটর এবং ব্রাশগুলি অপ্রয়োজণীয় হয়ে পরে। ফলাফল একটি আরও দক্ষ এবং নির্ভরযোগ্য চালনা যাতে তুলনামূলকভাবে সামান্য রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন হয়, এবং প্রায়শই পুরানো ধরনের মোটর-বিধ্বংসী ওভারলোডের অবস্থার সাথে লড়াই করতে অধিক সক্ষম।

১৯১৪ সালে, জেনারেল ইলেকট্রিক (জিই) সংস্থার বৈদ্যুতিন প্রকৌশলী হারমান ল্যাম্প একটি নির্ভরযোগ্য সরাসরি বৈদ্যুতিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা তৈরি করেন এবং পেটেন্ট করেছিলেন (পরবর্তী উন্নতিগুলিও ল্যাম্পের দ্বারা পেটেন্ট করা হয়েছিল)।[১৭] ইঞ্জিন এবং জেনারেটর উভয়কেই সমন্বিতভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে লেম্পের নকশাতে একটি একক লিভার ব্যবহৃত হয়েছিলো। এই নকশাটি সমস্ত ডিজেল-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ নিয়ন্ত্রণের প্রোটোটাইপ ছিল। ১৯১৭-১৯১৮ সালে লেম্পের নিয়ন্ত্রণ নকশা ব্যবহার করে জেনারেল ইলেকট্রিক তিনটি পরীক্ষামূলক ডিজেল-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ তৈরি করেছিলো।[১৮] ১৯২৪ সালে একটি ডিজেল-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ (Eel2 original number Юэ 001/Yu-e 001) কাজ শুরু করে। ইউরি লোমোনোসভের নেতৃত্বাধীন একটি দল এই লোকোমোটিভ নকশা করে এবং জার্মানিতে মাসচিনেনফাব্রিক এসলিংগেন ১৯৩৩-১৯২৪ সালে এটি তৈরি করেছিলেন। এটিতে ৫টি ড্রাইভিং অ্যাক্সেল ছিল (১'ই১')। বেশ কয়েকটি পরীক্ষার যাত্রার পরে এই লোকোমোটিভ ১৯২৫ থেকে ১৯৫৪ সাল পর্যন্ত প্রায় তিন দশক ধরে ট্রেন চালায়।[১৯] এটি ছিল বিশ্বের প্রথম কার্যকরী ডিজেল লোকোমোটিভ।

ডিজেল-জলবাহী[সম্পাদনা]
বার্লিনের টেকনিকমিউজিয়ামে একটি জার্মান ডিবি ক্লাস ভি ২০০ ডিজেল-জলবাহী লোকোমোটিভ

ডিজেল–জলবাহী লোকোমোটিভগুলি ডিজেল ইঞ্জিন থেকে চাকাগুলিতে শক্তি পৌঁছানোর জন্য একটি মেকানিক্যাল ফাইনাল ড্রাইভ সহ গিয়ারের সমন্বয়ে এক বা একাধিক টর্ক কনভার্টার ব্যবহার করে।

জলবিদ্যুৎ সঞ্চালন (হাইড্রোডাইনামিক সঞ্চালনও বলা হয়) একটি টর্ক কনভার্টার ব্যবহার করে। একটি টর্ক কনভার্টারে তিনটি প্রধান অংশ থাকে, যার দুটি ঘোরানো হয়, এবং বাকি একটির (স্টেটার) একটি লক থাকে যা পিছনের দিকে ঘোরানো রোধ করে এবং কম আউটপুট আরপিএমে তেলের প্রবাহকে পুনর্নির্দেশ করে আউটপুট টর্ক যুক্ত করে। তিনটি অংশই একটি তেল-পূর্ণ কাঠামোতে লাগানো থাকে। একটি লোকোমোটিভের পুরো গতির পরিসীমাতে লোড-গতির সাথে ইঞ্জিনের গতি মিল রাখার জন্য পর্যাপ্ত পরিসর দিতে কিছু অতিরিক্ত পদ্ধতি প্রয়োজন। একটি পদ্ধতি হলো টর্ক কনভার্টারকে একটি যান্ত্রিক গিয়ারবক্সের সাহায্যে যুক্ত করা যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে গিয়ার অনুপাত পরিবর্তন করে, অনেকটা গাড়ীতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সঞ্চালনের পদ্ধতির মতো। আরেকটি পদ্ধতি হলো, কয়েকটি টর্ক কনভার্টার ব্যবহার করা, যার প্রত্যেকেরই মোট প্রয়োজনীয় অংশকে coveringেকে রাখার জন্য প্রতিটি প্রদান করা; সমস্ত টর্ক কনভার্টার যান্ত্রিকভাবে সর্বদা সংযুক্ত থাকা এবং গতির পরিসরের জন্য তেল দিয়ে ভরাট করে এবং অন্যকে শুকিয়ে উপযুক্ত কনভার্টার নির্বাচিত করা। লোডের নিচে সঞ্চালনের সাথে ভরাট করা এবং জল প্রবাহিত করা সঞ্চালিত হয় এবং এর ফলে সঞ্চারিত শক্তিতে কোনও বিরতি না দিয়ে খুব মসৃণভাবে পরিসরের পরিবর্তন ঘটে।

মেইন-লাইনের ডিজেল-জলবাহী লোকোমোটিভের প্রধান বিশ্বব্যাপী ব্যবহারকারী ছিলো জার্মানি। উদাহরণস্বরূপ: ১৯৫০-এর দশকের ডিবি ক্লাস ভি 200, এবং ১৯৬০ এবং ১৯৭০-এর দশকের ডিবি ক্লাস ভি 160 ফ্যামিলি। ব্রিটিশ রেল ১৯৫৫ সালে আধুনিকীকরণ পরিকল্পনার সময় বেশ কয়েকটি ডিজেল হাইড্রোলিক ডিজাইন চালু করেছিল, প্রাথমিকভাবে জার্মান ডিজাইনের লাইসেন্স নির্মিত সংস্করণ। স্পেনের আরইএনএফই ১৯৬০ থেকে ১৯৯০-এর দশক পর্যন্ত উচ্চ গতির ট্রেন চালানোর জন্য উচ্চতর পাওয়ার-টু-ওয়েট অনুপাতের টুইন-ইঞ্জিন জার্মান ডিজাইন ব্যবহার করেছিল (RENFE ক্লাস 340, 350, 352, 353, 354 দেখুন)।

হাইড্রোস্ট্যাটিক ড্রাইভ সিস্টেমগুলি রেল ব্যবহারে প্রয়োগ করা হয়েছে, উদাহরণস্বরূপ ৩৫০ থেকে ৭৫০ অশ্বশক্তি (২৬০ থেকে ৫৬০ কিওয়াট) সিএমআই গ্রুপ (বেলজিয়াম), এবং 4 থেকে 12 টন ৩৫ থেকে ৫৮ কিওয়াট (৪৭ থেকে ৭৮ অশ্বশক্তি) দ্বারা লোকোমোটিভগুলি বন্ধ করে ৩৫ থেকে ৫৮ কিওয়াট (৪৭ থেকে ৭৮ অশ্বশক্তি) অ্যাটলাস কপকোর সহায়ক জিআইএ দ্বারা শিল্পজাতীয় ইঞ্জিন। হাইড্রোস্ট্যাটিক ড্রাইভগুলি রেল রক্ষণাবেক্ষণ মেশিনে যেমন টেম্পার এবং রেল গ্রাইন্ডারগুলিতেও ব্যবহৃত হয় ।

গ্যাস টারবাইন[সম্পাদনা]

একটি গ্যাস টারবাইন লোকোমোটিভ হ'ল একটি অভ্যন্তরীণ জ্বলন ইঞ্জিন লোকোমোটিভ যা একটি গ্যাস টারবাইন সমন্বিত । আইসিই ইঞ্জিনগুলির চাকাগুলিকে পাওয়ার জন্য একটি সংক্রমণ প্রয়োজন। ইঞ্জিনটি অবশ্যই লোকোমোটিভ বন্ধ হয়ে গেলে চালিয়ে যাওয়ার অনুমতি দিতে হবে।

আর। টম সোয়ার ডিজাইন করেছেন এবং ১৯৫২ সালে মার্কিন সেনা পরিবহন কর্পস দ্বারা পরীক্ষার জন্য নির্মিত একটি 44-টন 1-বি -1 পরীক্ষামূলক গ্যাস টারবাইন লোকোমোটিভ।

Gas turbine-mechanical locomotives, use a mechanical transmission to deliver the power output of gas turbines to the wheels. A gas turbine locomotive was patented in 1861 by Marc Antoine Francois Mennons (British patent no. 1633).[২০] There is no evidence that the locomotive was actually built but the design includes the essential features of gas turbine locomotives built in the 20th century, including compressor, combustion chamber, turbine and air pre-heater. In 1952, Renault delivered a prototype four-axle 1150 hp gas-turbine-mechanical locomotive fitted with the Pescara "free turbine" gas- and compressed-air producing system, rather than a co-axial multi-stage compressor integral to the turbine. This model was succeeded by a pair of six-axle 2400 hp locomotives with two turbines and Pescara feeds in 1959. Several similar locomotives were built in USSR by Kharkov Locomotive Works.[২১]

ইউপি 18, ইলিনয় রেলওয়ে যাদুঘরে সংরক্ষিত একটি গ্যাস টারবাইন-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ।

গ্যাস টারবাইন-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভস, বৈদ্যুতিক জেনারেটর বা অল্টারনেটার চালানোর জন্য একটি গ্যাস টারবাইন ব্যবহার করে যা বৈদ্যুতিক বিদ্যুতের উত্পন্ন করে ট্র্যাকশন মোটর যা চাকাগুলি চালিত করে। 1939 সালে সুইস ফেডারেল রেলপথ 4,6 am, একটি জিটিইএল ১,৬২০ কিওয়াট (২,১৭০ অশ্বশক্তি) দিয়ে আদেশ দিয়েছে ব্রাউন বোভেরি থেকে সর্বাধিক ইঞ্জিন শক্তি। এটি 1941 সালে সম্পূর্ণ হয়েছিল এবং তারপরে নিয়মিত পরিষেবাতে প্রবেশের আগে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল। এএম 4/6 ছিল প্রথম গ্যাস টারবাইন - বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ। ব্রিটিশ রেল 18000 ব্রাউন বোভেরি দ্বারা নির্মিত হয়েছিল এবং 1949 সালে বিতরণ করা হয়েছিল। ব্রিটিশ রেল 18100 মেট্রোপলিটন-ভিকার দ্বারা নির্মিত এবং 1951 সালে বিতরণ করা হয়েছিল। তৃতীয় লোকোমোটিভ, ব্রিটিশ রেল জিটি 3, 1961 সালে নির্মিত হয়েছিল। ইউনিয়ন প্যাসিফিক 1950 সালে শুরু টারবাইন চালিত মালবাহী লোকোমোটিভের একটি বিশাল বহর চালিয়েছিল। [২২] এগুলি দীর্ঘস্থায়ী রুটে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়েছিল এবং পেট্রোলিয়াম শিল্পের "অবশিষ্ট" জ্বালানী ব্যবহারের কারণে তাদের দুর্বল জ্বালানী অর্থনীতি সত্ত্বেও ব্যয়বহুল ছিল। তাদের উচ্চতায় রেলপথটি অনুমান করে যে তারা ইউনিয়ন প্যাসিফিকের ফ্রেট ট্রেনগুলির প্রায় 10% চালিত করেছে, এই শ্রেণীর অন্য কোনও উদাহরণের চেয়ে অনেক বেশি প্রশস্ত ব্যবহার।

একটি গ্যাস টারবাইন পিস্টন ইঞ্জিনের মাধ্যমে কিছু সুবিধা দেয়। কয়েকটি চলন্ত অংশ রয়েছে, তৈলাক্তকরণের প্রয়োজনীয়তা হ্রাস এবং সম্ভাব্য রক্ষণাবেক্ষণের ব্যয় হ্রাস করা এবং পাওয়ার-থেকে-ওজনের অনুপাত অনেক বেশি। প্রদত্ত পাওয়ার আউটপুটটির একটি টারবাইন শারীরিকভাবে একটি সমান শক্তিশালী পিস্টন ইঞ্জিনের চেয়েও ছোট, যার ফলে লোকোমোটিভ খুব বড় না হয়ে খুব শক্তিশালী হতে পারে। যাইহোক, একটি টারবাইনের পাওয়ার আউটপুট এবং দক্ষতা উভয়ই একটি পিস্টন ইঞ্জিনের বিপরীতে ঘূর্ণন গতির সাথে নাটকীয়ভাবে ড্রপ করে, যার তুলনামূলকভাবে সমতল শক্তি বক্ররেখা রয়েছে। এটি জিটিইএল সিস্টেমগুলিকে প্রাথমিকভাবে দীর্ঘ-দূরত্বের উচ্চ-গতির রানের জন্য দরকারী করে তোলে। গ্যাস টারবাইন-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভগুলির অতিরিক্ত সমস্যাগুলির মধ্যে রয়েছে যে তারা খুব কোলাহলপূর্ণ। [২৩]

বৈদ্যুতিক[সম্পাদনা]

বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ হ'ল একটি বিদ্যুৎ চালিত যা কেবল বিদ্যুত দ্বারা চালিত। ট্র্যাকের সাথে চলমান (প্রায়) অবিরত কন্ডাক্টর দিয়ে চলমান ট্রেনগুলিতে বিদ্যুত সরবরাহ করা হয় যা সাধারণত তিনটি ফর্মের মধ্যে একটি গ্রহণ করে: একটি ওভারহেড লাইন, ট্র্যাকের পাশের খুঁটি বা টাওয়ারগুলি থেকে বা কাঠামো বা টানেলের সিলিং থেকে স্থগিত; ট্র্যাক স্তরে মাউন্ট করা একটি তৃতীয় রেল ; বা একটি চালিত ব্যাটারি । উভয় ওভারহেড তার এবং তৃতীয়-রেল সিস্টেম সাধারণত চলমান রেলগুলি রিটার্ন কন্ডাক্টর হিসাবে ব্যবহার করে তবে কিছু সিস্টেম এই উদ্দেশ্যে পৃথক চতুর্থ রেল ব্যবহার করে। ব্যবহৃত বৈদ্যুতিক পাওয়ারের ধরনটি হ'ল সরাসরি কারেন্ট (ডিসি) বা বিকল্প কারেন্ট (এসি)।

সাউদার্ন রেলওয়ে (ইউকে) 20002 প্যান্টোগ্রাফ এবং যোগাযোগের জুতা উভয় দিয়ে সজ্জিত ছিল

বিভিন্ন সংগ্রহের পদ্ধতি বিদ্যমান: একটি ট্রলি খুঁটি, যা একটি দীর্ঘ নমনীয় মেরু যা চক্র বা জুতো দিয়ে লাইনকে জড়িত করে; একটি ধনুক সংগ্রহকারী, যা একটি ফ্রেম যা তারের বিরুদ্ধে দীর্ঘ সংগ্রহের রড ধরে; একটি প্যান্টোগ্রাফ, যা একটি আটকানো ফ্রেম যা একটি নির্দিষ্ট জ্যামিতিতে তারের বিরুদ্ধে সংগ্রহের জুতা ধারণ করে; বা একটি যোগাযোগ জুতো, যা তৃতীয় রেলের সংস্পর্শে একটি জুতো। তিনটির মধ্যে প্যান্টোগ্রাফ পদ্ধতিটি হাই-স্পিড অপারেশনের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত।

বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভগুলি সর্বজনীনভাবে প্রতিটি চালিত অক্সেলের জন্য একটি মোটর সহ অ্যাক্সেল-হ্যাং ট্র্যাকশন মোটর ব্যবহার করে। এই বিন্যাসে মোটর আবাসনটির একপাশে ধীরে ধীরে না নাতে কাটা টান না। হাউজিংয়ের অন্য পাশের একটি জিহ্বার আকারের প্রোট্যুবেন্স রয়েছে যা ট্রাক (বোগি) বল্টারে একটি ম্যাচিং স্লট জড়িত করে, যার উদ্দেশ্য টর্ক প্রতিক্রিয়া ডিভাইস হিসাবে কাজ করা, পাশাপাশি একটি সমর্থন। মোটর থেকে অ্যাক্সেলে পাওয়ার ট্রান্সফার স্পার গিয়ারিং দ্বারা প্রভাবিত হয়, যার মধ্যে মোটর শাফ্টের একটি পিনিয়ন এক্সেলের উপর একটি ষাঁড় গিয়ারকে জড়িত। উভয় গিয়ারগুলি তরল-আঁটসাঁট আবাসে ঘন ঘন তেলযুক্ত are যে ধরনের পরিষেবাতে লোকোমোটিভ ব্যবহৃত হয় তা নিয়োগকৃত গিয়ার অনুপাত নির্দেশ করে। সংখ্যায় উচ্চ অনুপাত সাধারণত ফ্রেট ইউনিটগুলিতে পাওয়া যায়, যেখানে সংখ্যার চেয়ে কম অনুপাত যাত্রীবাহী ইঞ্জিনগুলির মধ্যে সাধারণত।

বিদ্যুৎ সাধারণত বড় এবং অপেক্ষাকৃত দক্ষ উত্পাদক স্টেশনগুলিতে উত্পন্ন হয়, রেল নেটওয়ার্কে প্রেরণ করা হয় এবং ট্রেনগুলিতে বিতরণ করা হয়। কিছু বৈদ্যুতিক রেলপথের নিজস্ব উত্সর্গীকৃত উত্পাদন কেন্দ্র এবং সংক্রমণ লাইন রয়েছে তবে বৈদ্যুতিক ইউটিলিটি থেকে বেশিরভাগ ক্রয় ক্ষমতা power রেলপথ সাধারণত নিজস্ব বিতরণ লাইন, সুইচ এবং ট্রান্সফর্মার সরবরাহ করে

বৈদ্যুতিন লোকোমোটিভগুলি সাধারণত ডিজেল লোকোমোটিভগুলির চেয়ে 20% কম লাগে, তাদের রক্ষণাবেক্ষণের ব্যয় 25-35% কম হয় এবং চালাতে 50% পর্যন্ত কম খরচ হয়। [২৪]

সরাসরি বর্তমান[সম্পাদনা]

ভার্নার ফন সিমেন্স পরীক্ষামূলক ডিসি বৈদ্যুতিক ট্রেন, 1879
বাল্টিমোর ও ওহিও বৈদ্যুতিন ইঞ্জিন, 1895

প্রথম দিকের সিস্টেমগুলি ছিল ডিসি সিস্টেমগুলি। প্রথম বৈদ্যুতিন যাত্রীবাহী ট্রেন 1879 সালে বার্লিনে ওয়ার্নার ভন সিমেন্স উপস্থাপন করেছিলেন। লোকোমোটিভটি একটি 2.2 দ্বারা চালিত হয়েছিল   কেডব্লিউ, সিরিজ-ক্ষতিকারক মোটর এবং ট্রেন, লোকোমোটিভ এবং তিনটি গাড়ি নিয়ে গঠিত 13 গতিতে পৌঁছেছিল   কিমি / ঘঃ। চার মাসের মধ্যে, ট্রেনটি 300 মিটার দীর্ঘ (984 ফুট) বৃত্তাকার ট্র্যাকে 90,000 যাত্রী বহন করে। বিদ্যুত (150 ভিসি ডিসি) ট্র্যাকগুলির মধ্যে তৃতীয় অন্তরক রেলের মাধ্যমে সরবরাহ করা হয়েছিল। একটি যোগাযোগ রোলারটি বিদ্যুত সংগ্রহের জন্য ব্যবহৃত হয়েছিল। 1881 সালে জার্মানির বার্লিনের নিকটবর্তী লিটারফেল্ডে বিশ্বের প্রথম বৈদ্যুতিক ট্রাম লাইনটি চালু হয়েছিল। এটি ওয়ার্নার ফন সিমেন্স তৈরি করেছিলেন (দেখুন গ্রস-লিচারফেল্ড ট্রামওয়ে এবং বার্লিন স্ট্রেনবাহন )। ভোলকের বৈদ্যুতিন রেলপথটি ১৮৮৮ সালে ব্রাইটনে খোলা, এবং এটি সবচেয়ে প্রাচীন বেঁচে থাকা বৈদ্যুতিক রেলপথ। এছাড়াও 1883 সালে, মডলিং এবং হিন্টারব্রাহল ট্রাম অস্ট্রিয়ার ভিয়েনার কাছে খোলা হয়েছিল। ওভারহেড লাইন থেকে চালিত নিয়মিত পরিষেবাতে এটি বিশ্বের প্রথম স্থান। পাঁচ বছর পরে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফ্রাঙ্ক জে স্প্রেগের নকশাকৃত সরঞ্জামগুলি ব্যবহার করে রিচমন্ড ইউনিয়ন যাত্রীবাহী রেলপথে 1888 সালে অগ্রণী হয়েছিলেন বৈদ্যুতিন ট্রলিগুলি[২৫]

প্রথম বৈদ্যুতিকভাবে কাজ করা আন্ডারগ্রাউন্ড লাইনটি ছিল সিটি এবং দক্ষিণ লন্ডন রেলপথ, একটি ধারা দ্বারা অনুরোধ জানানো হয়েছিল যাতে সক্রিয় বাষ্প শক্তির ব্যবহার নিষিদ্ধ করার আইনে একটি ধারা দেওয়া হয়েছিল। [২৬] এটি 1890 সালে মাথার এবং প্ল্যাট দ্বারা নির্মিত বৈদ্যুতিন লোকোমোটিভ ব্যবহার করে চালু হয়েছিল। 1897 সালে একাধিক ইউনিট ট্রেন নিয়ন্ত্রণ স্প্রাগের আবিষ্কার দ্বারা বিদ্যুৎ দ্রুত সাবওয়েগুলির জন্য পছন্দের পাওয়ার সাপ্লাই হয়ে যায়।

একটি প্রধান লাইনে বিদ্যুতায়নের প্রথম ব্যবহারটি ১৮95৯ সালে বাল্টিমোর ও ওহিও রেলপথের (বিঅ্যান্ডও) বাল্টিমোর বেল্ট লাইনের চার মাইল প্রসারিত অঞ্চলে বি-ও এর মূল অংশকে নিউইয়র্কের একটি সিরিজের মাধ্যমে নিউ লাইনের সাথে সংযুক্ত করে। বাল্টিমোরের শহরতলীর প্রান্তগুলির চারপাশে টানেলগুলি। তিনটি বো + বো ইউনিট প্রাথমিকভাবে বিদ্যুতায়িত বিভাগের দক্ষিণ প্রান্তে ব্যবহৃত হয়েছিল; তারা লোকোমোটিভ এবং ট্রেনের সাথে মিলিত হয়ে টানেলের মধ্যে দিয়ে টানল। [২৭]

পূর্ববর্তী সিস্টেমে ডিসি ব্যবহৃত হত। এই সিস্টেমগুলি ধীরে ধীরে এসি দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়েছিল। আজ, প্রায় সমস্ত প্রধান-লাইন রেলপথগুলি এসি সিস্টেম ব্যবহার করে। ডিসি সিস্টেমগুলি বেশিরভাগ শহুরে পরিবহন যেমন মেট্রো সিস্টেম, হালকা রেল এবং ট্রামের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে যেখানে বিদ্যুতের প্রয়োজন কম হয়।

বিবর্তিত বিদ্যুৎ[সম্পাদনা]

ইতালি, ভেলটেলিনা, ১৯০১ সালে একটি গাঞ্জ এসি বৈদ্যুতিন লোকোমোটিভের একটি প্রোটোটাইপ

প্রথম ব্যবহারিক এসি বৈদ্যুতিন লোকোমোটিভ চার্লস ব্রাউন ডিজাইন করেছিলেন, তারপরে জেরিকের ওরিলিকনের হয়ে কাজ করেছিলেন। 1891 সালে, ব্রাউন লফেন এ এম নেকার এবং ফ্রাঙ্কফুর্ট আম মেইন ওয়েস্ট, 280 এর দূরত্বের একটি হাইড্রো-বৈদ্যুতিক প্ল্যান্টের মধ্যে, তিন-ফেজ এসি ব্যবহার করে দীর্ঘ-দূরত্বের বিদ্যুৎ সংক্রমণ প্রদর্শন করেছিলেন had   কিমি। জিন হিলম্যানের জন্য বাষ্প-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ ডিজাইনে কাজ করার সময় যে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছিলেন তা ব্যবহার করে ব্রাউন দেখেন যে থ্রি-ফেজ মোটরগুলির ডিসি মোটরগুলির চেয়ে পাওয়ার-টু-ওজন অনুপাত ছিল এবং কমিটেটরের অনুপস্থিতির কারণে, উত্পাদন করা সহজ ছিল এবং বজায় রাখা। [২৮] তবে এগুলি সে সময়ের ডিসি মোটরগুলির চেয়ে অনেক বড় ছিল এবং তাদের পাতাল বগিতে মাউন্ট করা যায়নি: এগুলি কেবল লোকোমোটিভ বডির মধ্যেই বহন করা যেতে পারে। [২৯]

1894 সালে, হাঙ্গেরিয়ান ইঞ্জিনিয়ার ক্যালমন কান্দি একটি নতুন ধরনের 3-ফেজ অ্যাসিনক্রোনাস বৈদ্যুতিন ড্রাইভ মোটর এবং বৈদ্যুতিন লোকোমোটিভগুলির জন্য জেনারেটর তৈরি করেছিলেন। কান্দির প্রথম দিকে 1894 ডিজাইনগুলি প্রথমে 1896 থেকে 1898 এর মধ্যে নির্মিত ইভিয়ান-লেস-বাইনস (ফ্রান্স) এর একটি সংক্ষিপ্ত থ্রি-ফেজ এসি ট্রামওয়েতে প্রয়োগ করা হয়েছিল। [৩০][৩১][৩২][৩৩][৩৪] ১৯১৮ সালে,[৩৫] কান্দি রোটারি ফেজ কনভার্টারের আবিষ্কার ও বিকাশ ঘটায়, বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভগুলিকে তিনটি-পর্বের মোটর ব্যবহার করতে সক্ষম করে যখন একটিমাত্র ওভারহেড তারের মাধ্যমে সরবরাহ করা হয়, সহজ শিল্প ফ্রিকোয়েন্সি বহন করে (৫০)   এইচজেড) হাই ভোল্টেজ জাতীয় নেটওয়ার্কগুলির একক ফেজ এসি। [৩৬]

1896 সালে ওেরলিকন লুগানো ট্রামওয়েতে সিস্টেমটির প্রথম বাণিজ্যিক উদাহরণ স্থাপন করেছিলেন। প্রতি 30-টন লোকোমোটিভে দুটি ১১০ কিওয়াট (১৫০ অশ্বশক্তি) ছিল মোটরগুলি তিন ধাপ 750 দ্বারা চালিত হয়   ভি 40   ডাবল ওভারহেড লাইনগুলি থেকে হার্জ খাওয়ানো থ্রি-ফেজ মোটর স্থির গতিতে চালিত হয় এবং পুনরুত্পাদনমূলক ব্রেক সরবরাহ করে, এবং খাড়া গ্রেডযুক্ত রুটের পক্ষে ভাল উপযুক্ত এবং প্রথম মেইন-লাইন তিন-পর্বের লোকোমোটিভগুলি ১৮৯৯ সালে ৪০-তে ব্রাউন ( ওয়াল্টার বোভেরির সাথে অংশীদারত্বের দ্বারা) সরবরাহ করেছিল।   কিমি বার্গডর্ফ Switzerland থুন লাইন, সুইজারল্যান্ড। ১৯০১ সালে হানস বেহন-এশেনবার্গ এবং এমিল হুবার-স্টকারের নকশাগুলি ব্যবহার করে লোকোমোটিভগুলির জন্য শিল্প ফ্রিকোয়েন্সি সিঙ্গল-ফেজ এসি সরবরাহের প্রথম বাস্তবায়ন ওেরলিকন থেকে এসেছিল ; সুইস ফেডারেল রেলপথের স্যবাচ-ওয়েটটিজেন লাইনে ইনস্টলেশনটি 1904 সালে সম্পন্ন হয়েছিল   কেভি, 50   Hz ৩৪৫ কিওয়াট (৪৬০ অশ্বশক্তি) , 48   টন ইঞ্জিনগুলি পাওয়ার ডিসি ট্র্যাকশন মোটরগুলিতে ট্রান্সফর্মার এবং রোটারি রূপান্তরকারী ব্যবহার করে। [২৯]

ব্যাটারি-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ[সম্পাদনা]

ওয়েস্ট হ্যাম স্টেশনে লন্ডন আন্ডারগ্রাউন্ড ব্যাটারি-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ ইঞ্জিনিয়ারদের ট্রেন টানার কাজে ব্যবহৃত হয়
খনির জন্য ব্যবহৃত একটি ন্যারো গেজ ব্যাটারি-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ

ব্যাটারি-বৈদ্যুতিক বা ব্যাটারি লোকোমোটিভ ব্যাটারি দ্বারা চালানো হয়।

যেসব জায়গায় প্রচলিত ডিজেল বা বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ ব্যবহারের অনুপযোগী, সেসব জায়গায় এই ধরনের লোকোমোটিভ ব্যবহার করা হয়। যেমন, বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেলে বৈদ্যুতিক রেলপথের রক্ষণাবেক্ষণে ব্যবহৃত ট্রেনের লোকোমোটিভ। এছাড়াও যেখানে, বিশেষ করে সংকীর্ণ জায়গায় দহন-চালিত লোকোমোটিভ (যেমন, বাষ্প বা ডিজেল চালিত) ব্যবহারে আগুন, বিস্ফোরণ বা ধোঁয়ার ঝুঁকি থাকে, সেখানে ব্যাটারি-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ ব্যবহৃত হয়। ব্যাটারি লোকোমোটিভ খনি জন্য পছন্দসই।[৩৭]

প্রথম পরিচিত বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ ১৮৩৭ সালে আবারডিনের রসায়নবিদ রবার্ট ডেভিডসন তৈরি করেছিলেন এবং এটি গ্যালভ্যানিক সেল (ব্যাটারি) দ্বারা চালিত হয়েছিল। পরে ডেভিডসন "গ্যালভানি " নামে একটি বৃহত্তর লোকোমোটিভ তৈরি করেছিলেন যা ১৮৪১ সালে রয়্যাল স্কটিশ সোসাইটি অফ আর্টস প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হয়েছিল। সাত টনের এই লোকোমোটিভে দুটি ডিরেক্ট-ড্রাইভ রিলাকটেন্স মোটর ছিলো, সাথে স্থির তড়িৎ চুম্বক যা প্রতিটি অ্যাক্সেলে থাকা একটি করে কাঠের সিলিন্ডারের সাথে যুক্ত লোহার বারের উপর কাজ করতো, এবং সাথে সাধারণ কমিউটেটোর। এটি ২.৪ কিলোমিটার দূরত্বে ছয় কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে ছয় টন বহন করেছিলো। পরের বছরের সেপ্টেম্বরে এডিনবার্গ এবং গ্লাসগো রেলপথে এটি পরীক্ষা করা হয়েছিল, তবে ব্যাটারি থেকে সীমিত শক্তি এর সাধারণ ব্যবহারে বাধা দেয়।[৩৮][৩৯][৪০]

আরেকটি উদাহরণ হলো আলাস্কার Latouche -এর কেনেকট তামা খনি, যেখানে ১৯১৭ সালে ভূগর্ভস্থ মাল পরিবহনে দুটি ৪.৫ টনের ব্যাটারি-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ ব্যবহৃত হয়েছে।[৪১] ১৯২৮ সালে কেনেকট তামা খনির জন্য চারটি ৭০০-সিরিজের ব্যাটারি-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ অর্ডার করা হয়। এই লোকোমোটিভগুলির ওজন ৮৫ টন এবং ব্যাটারিতে চলাকালীন যথেষ্ট পরিসীমা সহ ৭৫০-ভোল্ট ওভারহেড ট্রলি তারে চালিত। [৪২] লোকোমোটিভগুলি নিকেল-আয়রনের ব্যাটারি (এডিসন) প্রযুক্তি ব্যবহার করে কয়েক দশক ধরে পরিষেবা দিয়েছিলো। ব্যাটারিগুলি সীসা-অ্যাসিড ব্যাটারি দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়েছিল এবং কিছুসময় পরেই লোকোমোটিভগুলি অবসর নেয়। চারটি লোকোমোটিভগুলি যাদুঘরে দান করা হয়েছিল, তবে তাদের একটিকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। অন্যদের দেখা যাবে আইওয়ার বুন ও সিনিক ভ্যালি রেলপথ এবং ক্যালিফোর্নিয়ার রিও ভিস্তার পশ্চিম রেলওয়ে যাদুঘরে । এর পূর্বে ১৯৬৮ সালে টরন্টো ট্রানজিট কমিশন নিপ্পন-শারিও নির্মিত একটি ব্যাটারি-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ পরিচালনা করেছিল এবং ২০০৯ সালে তা অবসর নেয়।[৪৩]

লন্ডন আন্ডারগ্রাউন্ড সাধারণ রক্ষণাবেক্ষণের জন্য নিয়মিত ব্যাটারি-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ পরিচালনা করে।

১৯৬০ -এর দশকে, খুব উচ্চ-গতির রেল পরিষেবার বিকাশ আরও বৈদ্যুতিকরণ এনেছিল। জাপানি শিংকানসেন এবং ফরাসী টিজিভি হল প্রথম সিস্টেম যার জন্য উত্সর্গীকৃত উচ্চ-গতির লাইনগুলি স্ক্র্যাচ থেকে তৈরি করা হয়েছিল। অনুরূপ কর্মসূচি ইতালি, জার্মানি এবং স্পেনেও নেওয়া হয়েছিল, এবং বিশ্বের অন্যান্য দেশেও। বিগত দশকগুলিতে রেলওয়ে বিদ্যুতায়ন ক্রমাগত বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ২০১২ সালের হিসাবে, বিদ্যুতায়িত ট্র্যাকগুলি বিশ্বব্যাপী মোট ট্র্যাকগুলির প্রায় এক তৃতীয়াংশ।[৪৪]

মূল বিকল্পের তুলনায়, ডিজেল ইঞ্জিন, বৈদ্যুতিক রেলপথ যথেষ্ট পরিমাণে শক্তির দক্ষতা, কম নির্গমন এবং কম অপারেটিং ব্যয় সরবরাহ করে। বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভগুলি সাধারণত শান্ত, আরও শক্তিশালী এবং ডিজেলের চেয়ে বেশি প্রতিক্রিয়াশীল এবং নির্ভরযোগ্য। তাদের কোনও স্থানীয় নির্গমন নেই, যা টানেল এবং নগর অঞ্চলের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা। কিছু বৈদ্যুতিক ট্র্যাকশন সিস্টেম রিজেনারেটিভ ব্রেকিং সরবরাহ করে যা ট্রেনের গতিশক্তিকে বিদ্যুতের দিকে ফিরিয়ে দেয় এবং এটি সরবরাহ ব্যবস্থায় ফিরিয়ে দেয় যা অন্যান্য ট্রেন বা সাধারণ ইউটিলিটি গ্রিড দ্বারা ব্যবহৃত হবে। ডিজেল লোকোমোটিভ পেট্রোলিয়াম পোড়ানোর সময় পুনর্নবীকরণযোগ্য জ্বালানিসহ বিভিন্ন উৎস থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদিত হতে পারে।

অন্যান্য ধরণ[সম্পাদনা]

বাষ্পীয়-ডিজেল লোকোমোটিভ[সম্পাদনা]

একটি সোভিয়েত বাষ্পীয়-ডিজেল হাইব্রিড লোকোমোটিভ টিপি১

বাষ্পীয়-ডিজেল হাইব্রিড লোকোমোটিভ বয়লার থেকে উৎপন্ন বাষ্প অথবা ডিজেল দ্বারা চলতে পারে। ক্রিস্টিয়ানি কম্প্রেসড স্টিম সিস্টেম একটি ডিজেল ইঞ্জিন ব্যবহার করতো যা একটি কম্প্রেসরকে চালায়, এটি আবার বয়লারে উৎপন্ন বাষ্প দ্বারা লোকোমোটিভ চালাতে সাহায্য করে।

১৯৪০-এর দশকে, আমেরিকান রেলপথে ডিজেল লোকোমোটিভগুলি বাষ্পীয় লোকোমোটিভকে জায়গায় ব্যবহার হতে শুরু করে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সমাপ্তির পরে, অনেক দেশে রেলপথে ডিজেল লোকোমোটিভ ব্যবহার শুরু হয়। ডিজেল অপারেশনের উল্লেখযোগ্যভাবে উন্নত অর্থনীতির ফলে ডিজেলাইজেশন নামে পরিচিত একটি প্রক্রিয়া শুরু হয়। ১৯০০ -এর দশকের শেষের দিকে কেবল ঐতিহ্যবাহী রেলপথগুলোতে বাষ্পীয় লোকোমোটিভ চালানো হয়।

ডিজেল লোকোমোটিভগুলোতে বাষ্পীয় লোকোমোটিভগুলোর তুলনায় যথেষ্ট কম রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন, ফলে এর সাথে সংশ্লিষ্ট প্রয়োজনীয় কর্মীদের সংখ্যা হ্রাস পায়। সবচেয়ে সেরা বাষ্পীয় লোকোমোটিভগুলিও নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণ এবং চলমান সংস্কারের জন্য কারখানায় প্রতি মাসে গড়ে তিন থেকে পাঁচ দিন ব্যয় করে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] ভারী ওভারহোলিং ঘন ঘন হত, প্রায়শই বড় মেরামতগুলির জন্য ফ্রেম থেকে বয়লার অপসারণ করা হতো। এর বিপরীতে একটি সাধারণ ডিজেল লোকোমোটিভ প্রতি মাসে আট থেকে দশ ঘণ্টার অধিক রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন হয় না (রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবধানগুলি লোকোমোটিভের বয়সের উপর নির্ভর করে ৯২ দিন বা ১৮৪ দিনের হয়),[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] এবং বড় ওভারহোলিং এর পূর্বে কয়েক দশক ধরে চলতে পারে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] ডিজেল লোকোমোটিভ বাষ্পীয় লোকোমোটিভের মতো খুব বেশি দূষণ করে না।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

পরমাণু-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ[সম্পাদনা]

১৯৫০ -এর দশকের গোড়ার দিকে, উটাহ ইউনিভার্সিটির ডাঃ লাইল বোর্স্টকে বিভিন্ন মার্কিন রেলপথ লাইন এবং নির্মাতারা একটি বৈদ্যুতিক-ড্রাইভ লোকোমোটিভের সম্ভাব্যতা অধ্যয়নের জন্য তহবিল দিয়েছিলেন, যেখানে একটি পারমাণবিক চুল্লি বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে বাষ্প তৈরি করবে। তখন মানুষের নিকট পারমাণবিক শক্তি সম্পূর্ণ বোধগম্য ছিলো না। বোর্স্ট বিশ্বাস করেছিলেন যে এই ক্ষেত্রে প্রধান বাধা হচ্ছে ইউরেনিয়ামের দাম। দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে তেজস্ক্রিয়তার প্রকাশ রোধ করতে বোর্স্ট পারমাণবিক লোকোমোটিভের সাহায্যে কেন্দ্র বিভাগে ২০০ টনের চুল্লিযুক্ত চেম্বার এবং ৫ ফুট পুরু স্টিলের দেয়াল থাকবে। তিনি অনুমান করেছিলেন যে প্রত্যেক ৭০০০ অশ্বশক্তির ইঞ্জিনসহ পারমাণবিক লোকোমোটিভ তৈরিতে ব্যয় হবে প্রায় ১২ লাখ ডলার।[৪৫] ফলস্বরূপ, নিষিদ্ধ ব্যয়ের কারণে পারমাণবিক জেনারেটরযুক্ত ট্রেনগুলি সাধারণত অকেজো হিসাবে বিবেচিত হয়।

জ্বালানী কোষ-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ[সম্পাদনা]

২০০২ সালে সর্বপ্রথম ৩.৬ টনের ১৭ কিলোওয়াটের হাইড্রোজেন (জ্বালানী কোষ)-শক্তিযুক্ত খনির কাজে ব্যবহৃত লোকোমোটিভ কেবেকের ভাল-ডি’অর -এ প্রদর্শিত হয়েছিল। ২০০৭ সালে তাইওয়ানের কাওসুং -এ শিক্ষামূলক মিনি-হাইড্রিল ব্যবহার করা হয়েছিল। অবশেষে রেলপাওয়ার জিজি২০বি জ্বালানী কোষ-বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভের আরেকটি উদাহরণ।

হাইব্রিড লোকোমোটিভ[সম্পাদনা]

বার্লিনে ইনোট্রান্স সম্মেলনে বোম্বার্ডিয়ার এএলপি-৪৫ডিপি

দুই বা এর অধিক ধরনের মোটিভ পাওয়ার ব্যবহার করা বিভিন্ন ধরনের হাইব্রিড বা ডুয়েল-মোড লোকোমোটিভ রয়েছে। সর্বাধিক প্রচলিত হাইব্রিডগুলি হ'ল বৈদ্যুতিক-ডিজেল লোকোমোটিভ, যাতে ডিজেল ইঞ্জিন অথবা বৈদ্যুতিক সংযোগ থেকে শক্তি সরবরাহ হয়। এগুলি কেবল আংশিক বৈদ্যুতিকৃত রুটগুলির সাথে অবিচ্ছিন্ন ভ্রমণ সরবরাহ করতে ব্যবহৃত হয়।

ব্যবহার[সম্পাদনা]

রেল পরিবহন কার্যক্রমগুলোতে লোকোমোটিভের প্রধান তিনটি ব্যবহার রয়েছে: যাত্রীবাহী ট্রেন, মালবাহী ট্রেন ও সুইচিং (ইউকে ইংরেজি: শান্টিং)।

পন্যবাহী ট্রেনের লোকোমোটিভগুলো সাধারণত উচ্চ স্টার্টিং ট্র্যাকটিভ ইফোর্ট এবং উচ্চ টেকসই শক্তি সরবরাহ করার জন্য বিশেষভাবে ডিজাইন করা হয়। এটি এদেরকে ভারী ট্রেন চালাতে সাহায্য করে তবে এর ফলে এদের গতি তুলণামূলক কম হয়। অন্যদিকে যাত্রীবাহী ট্রেনের লোকোমোটিভগুলো সাধারণত কম স্টার্টিং ট্র্যাকটিভ ইফোর্টের হয় তবে যাত্রীদের সময়সূচী বজায় রাখতে প্রয়োজনীয় উচ্চ গতিতে পরিচালনা করতে সক্ষম হয়। মিশ্র ট্র্যাফিক লোকোমোটিভ (মার্কিন ইংরেজি: সাধারণ উদ্দেশ্য বা রোড সুইচার লোকোমোটিভ) মালবাহী লোকোমোটিভের মতো উচ্চ স্টার্টিং ট্র্যাকটিভ ইফোর্ট থাকে না তবে যাত্রীবাহী ট্রেনের ইঞ্জিনের চেয়ে ভারী ট্রেন টানতে সক্ষম।

বেশিরভাগ বাষ্পীয় লোকোমোটিভগুলোতে পিস্টনগুলি ড্রাইভিং চাকায় সংযোগকারী রডের সাহায্যে কোনো গিয়ারবক্স ছাড়াই সংযুক্ত রয়েছে। এর ফলে স্টার্টিং ট্র্যাকটিভ ইফোর্ট এবং সর্বাধিক গতি উভয়ই ড্রাইভিং চাকার ব্যাস দ্বারা ব্যাপকভাবে প্রভাবিত হয়। পণ্যবাহী ট্রেনের উদ্দেশ্যে তৈরি বাষ্পীয় লোকোমোটিভগুলিতে যাত্রীবাহী লোকোমোটিভগুলির চেয়ে সাধারণত ছোট ব্যাসের ড্রাইভিং চাকা থাকে।

ডিজেল-বৈদ্যুতিক এবং বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভগুলিতে ট্র্যাকশন মোটর এবং অ্যাক্সিলগুলির মধ্যে নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাটি মালবাহী বা যাত্রী পরিষেবার জন্য রেলগুলিতে পাওয়ার আউটপুটের সাথে মানিয়ে নেয়। যাত্রীবাহী লোকোমোটিভগুলিতে হেড-এন্ড পাওয়ার (হোটেল পাওয়ার বা বৈদ্যুতিক ট্রেন সরবরাহ হিসাবেও পরিচিত) বা বাষ্পীয় জেনারেটরের মতো অন্যান্য বৈশিষ্ট্য অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।

কিছু লোকোমোটিভগুলি খাড়া গ্রেড রেলপথের কাজ করার জন্য বিশেষভাবে ডিজাইন করা হয়েছে এবং কখনও কখনও অতিরিক্ত ব্রেকিং ব্যবস্থা এবং কখনও কখনও র‍্যাক এবং পিনিয়ন ব্যবস্থা থাকে। খাড়া র‌্যাক এবং পিনিয়ন রেলপথের জন্য নির্মিত বাষ্পীয় লোকোমোটিভগুলি প্রায়শই বয়লারটি লোকোমোটিভ ফ্রেমের তুলনায় ঝুঁকে থাকে, যাতে বয়লার খাড়া গ্রেডগুলির সাপেক্ষে প্রায় স্তরে থাকে।

কিছু উচ্চ-গতির ট্রেনগুলিতেও লোকোমোটিভ ব্যবহৃত হয়। যেমন: সমস্ত টিজিভি, অনেক এভিই, কিছু কেটিএক্স এবং এখন-অবসরপ্রাপ্ত আইসিই ২ এবং আইসিই ১ ট্রেনগুলো লোকোমোটিভ ব্যবহার করে, যা পাওয়ার কার হিসাবেও পরিচিত হতে পারে। পাওয়ার কারগুলি সহজেই উচ্চ রাইডের মান পাওয়া যায় এবং কম বৈদ্যুতিন সরঞ্জামের প্রয়োজন হয়,[৪৬] তবে বৈদ্যুতিক মাল্টিপল ইউনিটের সাথে তুলনা করলে তারা কম ত্বরণ এবং উচ্চতর এক্সেল ওজন সরবরাহ করে (পাওয়ার গাড়িগুলির জন্য)। কেটিএক্স-II এবং আইসিই ১ বৈদ্যুতিক মাল্টিপল ইউনিট এবং পাওয়ার কারের মিশ্রণ ব্যবহার করে।

অপারেশনাল ভূমিকা[সম্পাদনা]

লোকোমোটিভগুলি মাঝে মধ্যে একটি নির্দিষ্ট ভূমিকায় কাজ করে যেমন:

  • ট্রেন ইঞ্জিন অথবা লোকোমোটিভ: কোনো ট্রেনকে টানার জন্য এর সামনে লাগানো ইউনিটের প্রযুক্তিগত নাম। তবে, যেখানে পুশ-পুল অপারেশনের সুবিধা রয়েছে, সেক্ষেত্রে ট্রেনের ইঞ্জিনটি ট্রেনের পিছনেও সংযুক্ত থাকতে পারে।
  • পাইলট ইঞ্জিন: দ্বিমুখীকরণের উদ্দেশ্যে কোনো ট্রেনের সামনে থাকা লোকোমোটিভের সামনে থাকা আরেকটি লোকোমোটিভ।
  • ব্যাংকিং ইঞ্জিন: কোনো কঠিন পরিস্থিতিতে (যেমন: উঁচু ভূমি) কারণে যে লোকোমোটিভ সাময়িকভাবে পিছন থেকে একটি ট্রেনকে সহায়তা করে।
  • লাইট ইঞ্জিন: স্থানান্তর বা অপারেশনাল কারণে, পিছনে কোনো ট্রেন ছাড়াই একটি লোকোমোটিভ।
  • স্টেশন পাইলট: একটি লোকোমোটিভ যা রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রীবাহী ট্রেনগুলির ক্ষেত্রে শান্টিং কার্যক্রম পরিচালনা করে।

চাকার বিন্যাস[সম্পাদনা]

একটি লোকোমোটিভের চাকার বিন্যাস বর্ণনা করে এর কতটি চাকা রয়েছে এবং কিভাবে বিন্যস্ত রয়েছে। বিন্যাসের সাধারণ পদ্ধতিগুলির মধ্যে এএআর চাকা বিন্যাস, ইউআইসি শ্রেণীবিন্যাস এবং হোয়াইট নোটেশন অধিক প্রচলিত।

রিমোট কন্ট্রোল লোকোমোটিভ[সম্পাদনা]

বিংশ শতাব্দীর দ্বিতীয়ার্ধে, রিমোট কন্ট্রোল লোকোমোটিভ লোকোমোটিভ স্যুইচিং কার্যক্রমে ব্যবহার হওয়া শুরু হয়। ক্যাবের বাইরে থাকা পরিচালক দ্বারা এই ধরনের লোকোমোটিভ দূরবর্তীভাবে নিয়ন্ত্রিত হয়। এর প্রধান উপকারিতা হলো একজন পরিচালক গাড়িতে শস্য, কয়লা, নুড়ি ইত্যাদি বোঝাই নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এছাড়াও একই পরিচালক ট্রেনটিকে যখন প্রয়োজন তখন চালাতে পারে। সুতরাং, এই ধরনের লোকমোটিভকে সাধারণ লোকোমোটিভের চেয়ে প্রায় এক-তৃতীয়াংশ সময়ে লোড বা আনলোড হয়।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] [ উদ্ধৃতি প্রয়োজন ]

মাল্টিপল ইউনিটের সাথে তুলনা[সম্পাদনা]

সুবিধা[সম্পাদনা]

মাল্টিপল ইউনিট (এমইউ) ট্রেনের তুলনায় লোকোমোটিভের বিভিন্ন সুবিধা রয়েছে।[৪৭]

Ease
লোকোমোটিভ অচল হয়ে যাওয়ার কারণে হোক অথবা লোকোমোটিভ রক্ষণাবেক্ষণের কারনেই হোক, পুরো ট্রেনকে বন্ধ না করে শুধু ট্রেন থেকে একটি লোকোমোটিভ খুলে নিয়ে আরেকটি লোকোমোটিভ তার যায়গায় বসিয়ে দেওয়া অত্যন্ত সহজ।
পাওয়ার কারের সর্বোচ্চ ব্যবহার
Separate locomotives facilitate movement of costly motive power assets as needed; thereby avoiding the expense associated with tied up or idle power resources.
Flexibility
যখনই অধিক ক্ষমতার দরকার পড়ে, তখনই কম ক্ষমতার লোকোমোটিভকে অধিক ক্ষমতার লোকোমোটিভ দ্বারা প্রতিস্থাপিত করা যায় সহজেই। যেমন, উচু ভূমিতে। এভাবে লোকোমোটিভকে যাত্রীবাহী ও পন্যবাহী উভয় ধরণের ট্রেনেই ব্যবহার করা যায়।
Obsolescence cycles
Separating motive power from payload-hauling cars enables replacement of one without affecting the other. To illustrate, locomotives might become obsolete when their associated cars are not, and vice versa.
নিরাপত্তা
বিভিন্ন দূর্ঘটনার সময় লোকোমোটিভ-টানা ট্রেন মাল্টিপল ইউনিটের চেয়ে অধিক নিরাপদ। লোকোমোটিভের অধিক ওজনের কারণে তা সাধারণত লাইনচ্যুত হওয়া কঠিন। অগ্নিকান্ডের সময় (বিশেষ করে ডিজেল লোকোমোটিভের ক্ষেত্রে) লোকোমোটিভ-টানা ট্রেন সাধারণত অধিক নিরাপদ।
শব্দ
একটিমাত্র লোকোমোটিভের ইঞ্জিন মাল্টিপল ইউনিটের একাধিক ইঞ্জিনের চেয়ে কম শব্দ উৎপন্ন করে, যেখানে মাল্টিপল ইউনিটের প্রত্যেকটি ইউনিটের নিচেই ইঞ্জিন থাকে। এই শব্দ সমস্যাটি ডিজেল মাল্টিপল ইউনিটে বেশী দেখা যায়।
সময় সাশ্রয়
The motive power accompanies the cars to be hauled and consequently there is a saving in time.
রক্ষণাবেক্ষণ
লোকোমোটিভ রক্ষণাবেক্ষণের পরিবেশ (বিশেষ করে বাষ্পীয় লোকোমোটিভের ক্ষেত্রে) খুবই নোংরা ও ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে এবং এ ক্ষেত্রে একই পরিবেশে যাত্রীবাহী কোচ না নেওয়াই ভালো। জিডব্লুআর বাষ্পীয় রেলমোটরসের পতনের অন্যতম কারণ ছিলো এটি।

অসুবিধা[সম্পাদনা]

লোকোমোটিভের তুলনায় মাল্টিপল ইউনিট (এমইউ) ট্রেনের বিভিন্ন সুবিধা রয়েছে।

কর্মদক্ষতা
লোকোমোটিভ-টানা ট্রেনের চেয়ে মাল্টিপল ইউনিট অধিক দক্ষ। কারন মাল্টিপল ইউনিটের ক্ষেত্রে ট্রেনের ওজনের একটি বিরাট অংশ (অনেক সময় সম্পূর্ণ ওজন) চলন্ত চাকার উপরে থাকে, যেখানে লোকোমোটিভ-টানা ট্রেনের ক্ষেত্রে লোকোমোটিভকে একাই পেছনের সমস্ত কোচ/ওয়াগনের ভর টানতে হয়।
ইঞ্জিন ইউনিট ঘুরানোর প্রয়োজন নেই
অধিকাংশ মাল্টিপল ইউনিট ট্রেনের উভয় প্রান্তে ক্যাব রয়েছে। অতএব, ট্রেনকে কোনোরূপ না ঘুরিয়েই পুনরায় বিপরীত দিকে চালানো যায়, ফলে সময় সাশ্রয়, ক্রু ব্যয় হ্রাস এবং নিরাপত্তা বৃদ্ধিপ্রাপ্ত হয়। অবশ্য বর্তমানে বিভিন্ন লোকোমোটিভ-টানা ট্রেনে ড্রাইভিং ভ্যান ট্রেইলার ও ক্যাব কার ব্যবহার হওয়ায় মাল্টিপল ইউনিটের মতো লোকোমোটিভও না ঘুরিয়েই ট্রেন বিপরীত দিকে চালানো যায়। এর ফলে মাল্টিপল ইউনিট তার এই বিশেষ সুবিধাটি হারায়।
বিশ্বাসযোগ্যতা
মাল্টিপল ইউনিট ট্রেনে একাধিক ইঞ্জিন রয়েছে, ফলে একটি ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে গেলেও তা সাধারণত ট্রেনের যাত্রা অব্যাহত রাখতে বাধা দেয় না। অন্যদিকে, একটি লোকোমোটিভ-টানা ট্রেনের সাধারণত কেবল একটিই ইঞ্জিন ইউনিট থাকে। এই ইউনিট অচল হয়ে গেলে তা সাময়িকভাবে পুরো ট্রেনকে অক্ষম করে ফেলে। তবে, সাধারণত লোকোমোটিভ-টানা পন্যবাহী ট্রেনে ক্ষেত্রে এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে যাত্রীবাহী ট্রেনে একাধিক লোকোমোটিভ ব্যবহার করা হয় যার ফলে একটি লোকোমোটিভ ব্যর্থ হলেও অন্যান্য লোকোমোটিভ দ্বারা ট্রেন চলতে সক্ষম হয়।

সংখ্যাবিদ্যায় লোকোমোটিভ[সম্পাদনা]

লোকোমোটিভ সংগ্রাহকদের কয়েন এবং পদকের বিষয়বস্তু ছিল। অন্যতম বিখ্যাত[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] এবং সাম্প্রতিক একটি ঘটনা হলো ২৫ ইউরো ১৫০ বছর সমকালীন আলপাইন রেলপথের স্মরণীয় মুদ্রা। এতে দুটি লোকোমোটিভ দেখানো হয়, একটি ঐতিহাসিক এবং একটি আধুনিক। এটি ১৮৫৪ এবং ২০০৪ সালের মধ্যে লোকোমোটিভ নির্মাণের প্রযুক্তিগত বিকাশের প্রতিনিধিত্ব করে। উপরের অর্ধেক অংশে একটি উচ্চতর পারফর্মেন্সের লোকোমোটিভ "Taurus" এবং নীচের অর্ধেক অংশে সর্বপ্রথম কার্যকরী আলপাইন লোকোমোটিভ "এঙ্গার্থ" কে দেখা যায়। নিচের লোকোমোটিভটি উইলহেম ফ্রেইহর ভন এঙ্গার্থ নির্মাণ করেছেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] [ উদ্ধৃতি প্রয়োজন ]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Locomotive"(etymology)। Online Etymology Dictionary। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০০৮ 
  2. "Most Important and highly Valuable Sea-Sale Colliery, Near Newcastle-on-Tyne, to be sold by auction, by Mr. Burrell"। Leeds Mercury। ১২ ফেব্রুয়ারি ১৮১৪। পৃষ্ঠা 2। 
  3. Francis Trevithick (১৮৭২)। Life of Richard Trevithick: With an Account of His Inventions, Volume 1। E.&F.N.Spon। 
  4. "Richard Trevithick's steam locomotive | Rhagor"। Museumwales.ac.uk। ১৫ এপ্রিল ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১১-০৩ 
  5. "Steam train anniversary begins"BBC। ২০০৪-০২-২১। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৬-১৩A south Wales town has begun months of celebrations to mark the 200th anniversary of the invention of the steam locomotive. Merthyr Tydfil was the location where, on 21 February 1804, Richard Trevithick took the world into the railway age when he set one of his high-pressure steam engines on a local iron master's tram rails 
  6. Payton, Philip (২০০৪)। Oxford Dictionary of National Biography। Oxford University Press। 
  7. Young, Robert (২০০০)। Timothy Hackworth and the Locomotive (reprint সংস্করণ)। The Book Guild। 
  8. P. Mathur; K. Mathur (২০১৪)। Developments and Changes in Science Based Technologies। Partridge Publishing। পৃষ্ঠা 139। 
  9. Nock, Oswald Stevens (১৯৭৭)। Encyclopedia of Railroads। Galahad Books। 
  10. Hamilton Ellis (১৯৬৮)। The Pictorial Encyclopedia of Railways। The Hamlyn Publishing Group। পৃষ্ঠা 24–30। 
  11. Ellis, p. 355
  12. "Diesel Locomotives. The Construction of and Performance Obtained from the Oil Engine"। ১৯৩৫। 
  13. Meiklejohn, Bernard (জানুয়ারি ১৯০৬)। "New Motors on Railroads: Electric and Gasoline Cars Replacing the Steam Locomotive": 8437–54। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৭-১০ 
  14. "The Construction of and Performance Obtained from the Oil Engine" 
  15. Winkler, Thomas। "Daimler Motorwagen" 
  16. Webb, Brian (১৯৭৩)। The British Internal Combustion Locomotive 1894–1940। David & Charles। আইএসবিএন 0715361155 
  17. Lemp, Hermann. US Patent No. 1,154,785, filed April 8, 1914, and issued September 28, 1915. Accessed via Google Patent Search at: US Patent #1,154,785 on February 8, 2007.
  18. Pinkepank 1973
  19. Russian page on Э-эл2
  20. "Espacenet - Original document" 
  21. "Archived copy"। ২ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  22. "Gas Turbine Locomotive" Popular Mechanics, July 1949, cutaway drawing of development by GE for Union Pacific
  23. "Rails and Gas Turbines"। ২২ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ এপ্রিল ২০১৬ 
  24. https://www.eesi.org/articles/view/electrification-of-u.s.-railways-pie-in-the-sky-or-realistic-goal
  25. "Richmond Union Passenger Railway"IEEE History Center। ১ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০১-১৮ 
  26. Badsey-Ellis, Antony (২০০৫)। London's Lost Tube Schemes। Capital Transport। পৃষ্ঠা 36। আইএসবিএন 1-85414-293-3 
  27. B&O Power, Sagle, Lawrence, Alvin Stauffer
  28. Heilmann evaluated both AC and DC electric transmission for his locomotives, but eventually settled on a design based on Thomas Edison's DC system — Duffy (2003), p.39–41
  29. Duffy (2003).
  30. Andrew L. Simon (১৯৯৮)। Made in Hungary: Hungarian Contributions to Universal Culture। Simon Publications LLC। পৃষ্ঠা 264আইএসবিএন 978-0-9665734-2-8 
  31. Francis S. Wagner (১৯৭৭)। Hungarian Contributions to World Civilization। Alpha Publications। পৃষ্ঠা 67। আইএসবিএন 978-0-912404-04-2 
  32. C.W. Kreidel (১৯০৪)। Organ für die fortschritte des eisenbahnwesens in technischer beziehung। পৃষ্ঠা 315। 
  33. Elektrotechnische Zeitschrift: Beihefte, Volumes 11-23। VDE Verlag। ১৯০৪। পৃষ্ঠা 163। 
  34. L'Eclairage électrique, Volume 48। ১৯০৬। পৃষ্ঠা 554। 
  35. Michael C. Duffy (২০০৩)। Electric Railways 1880–1990IET। পৃষ্ঠা 137। আইএসবিএন 978-0-85296-805-5 
  36. Hungarian Patent Office। "Kálmán Kandó (1869–1931)"। www.mszh.hu। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-১০ 
  37. Strakoš, Vladimír (১৯৯৭)। Mine Planning and Equipment Selection। Balkema। পৃষ্ঠা 435। আইএসবিএন 90-5410-915-7 
  38. Day, Lance; McNeil, Ian (১৯৬৬)। "Davidson, Robert"। Biographical dictionary of the history of technology। Routledge। আইএসবিএন 978-0-415-06042-4 
  39. Gordon, William (১৯১০)। "The Underground Electric"। Our Home Railways। Frederick Warne and Co। পৃষ্ঠা 156। 
  40. Renzo Pocaterra, Treni, De Agostini, 2003
  41. Martin, George Curtis (১৯১৯)। Mineral resources of Alaska। Government Printing Office। পৃষ্ঠা 144 
  42. List of Kennecott Copper locomotives
  43. "A Rogue's Gallery: The TTC's Subway Work Car Fleet - Transit Toronto - Content" 
  44. "Railway Handbook 2015" (PDF)। International Energy Agency। পৃষ্ঠা 18। সংগ্রহের তারিখ ৪ আগস্ট ২০১৭ 
  45. "Atomic Locomotive Produces 7000 h.p." Popular Mechanics, April 1954, p. 86.
  46. http://www.ejrcf.or.jp/jrtr/jrtr17/pdf/f40_technology.pdf
  47. "Comparison of locomotive hauled and multiple unit trains"। ১ জুলাই ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১১ 

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]