বোনারপাড়া রেলওয়ে স্টেশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বোনারপারা জংশন রেলওয়ে স্টেশন
বাংলাদেশের রেলওয়ে স্টেশন
অবস্থানগাইবান্ধা জেলা রংপুর বিভাগ
 বাংলাদেশ
মালিকানাধীনবাংলাদেশ রেলওয়ে
পরিচালিতপশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে
লাইনসান্তাহার-কাউনিয়া লাইন
প্ল্যাটফর্ম?
ট্রেন পরিচালকবাংলাদেশ রেলওয়ে
নির্মাণ
গঠনের ধরনমানক
পার্কিংআছে
সাইকেলের সুবিধাআছে
প্রতিবন্ধী প্রবেশাধিকারআছে
অন্য তথ্য
অবস্থাসক্রিয়
ইতিহাস
চালু১৯০০
পরিষেবা
আছে
অবস্থান
সান্তাহার-কাউনিয়া লাইন
হতে লালমনিরহাট জংশন,পার্বতীপুর-লালমনিরহাট-বুড়িমারি লাইন
কাউনিয়া
হতে পার্বতীপুর, বুড়িমারি-লালমনিরহাট-পার্বতীপুর লাইন
আনন্দনগর
পীরগাছা
চৌধুরানী
হাসানগঞ্জ
বামনডাঙ্গা
নলডাঙ্গা
কামারপাড়া
কূপতলা
গাইবান্ধা
ত্রিমোহনী
আনন্দবাজার
বাদিয়াখালি রোড
কাঁছিপাড়া
ভরাটখালি (যমুনা নদীর উপর ফেরি ঘাট পর্যন্ত সম্প্রসারিত)
বোনাড়পাড়া
বালাশিঘাট
যমুনা নদীতে ফেরি (বর্তমানে গমনপথের অংশ নয়)
বাহাদুরাবাদ ঘাট
মহিমাগঞ্জ
শালমারা
সোনাতলা
ভেলুপাড়া
সৈয়দ আহমেদ কলেজ
শুকানপুকুর
গাবতলী
বগুড়া
কাহালু
পাঁচপীর মাজার
তালোরা
আলতাফনগর
নসরতপুর
আদমদীঘি
সান্তাহার
হতে চিলাহাটি-পার্বতীপুর-সান্তাহার-দর্শনা লাইন

সূত্র: বাংলাদেশ রেলওয়ে মানচিত্র

বোনারপারা জংশন রেলওয়ে স্টেশন বাংলাদেশের রংপুর বিভাগের গাইবান্ধা জেলার একটি রেলওয়ে স্টেশন[১]

অবস্থান[সম্পাদনা]

বোনারপাড়া রেলওয়ে স্টেশনটি গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা উপজেলায় অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বৃটিশ শাসনামলে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলায় বোনারপাড়া রেলওয়ে স্থাপন হয়। উত্তরের ১৬ জেলার মানুষের রাজধানী ঢাকায় যাওয়ার জন্য একমাত্র রেলপথ ছিল বোনারপাড়ার অদূরে ফুলছড়ি রেল ফেরিঘাট। বোনারপাড়া জংশন স্টেশন হওয়ার সুবাদে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা গড়ে ওঠে এখানে। ১৯৯৪ সালে ফুলছড়ি রেলওয়ে ফেরিঘাট স্থানান্তরিত হয়ে বালাসিঘাটে যাওয়ার পর বোনারপাড়া-ভরতখালী রুটটি বন্ধ হয়ে যায়। তখন থেকে বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশনটি গুরুত্বহীন হয়ে পরে।[২]

পরিষেবা[সম্পাদনা]

বোনারপারা রেলওয়ে স্টেশন দিয়ে চলাচলকারী ট্রেনের তালিকা নিম্নে উল্লেখ করা হলো:

বন্ধ হয়ে যাওয়া ট্রেন;

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Gaibandha, দৈনিক গাইবান্ধা :: Dainik। "জৌলস হারাচ্ছে গাইবান্ধার বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশন"Dainik Gaibandha (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০১ 
  2. "বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশনে কোটি টাকার সম্পদ নষ্ট!"The Daily Sangram। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-০১