রংপুরের ইতিহাস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
যে ধারাবাহিকের অংশ সেটি হল
Atisha.jpg
প্রাচীন বাংলা
ধ্রুপদী বাংলা
মধ্যযুগীয় বাংলা
আধুনিক বাংলা
এছাড়াও দেখুন
ভারতীয় উপমহাদেশের ইতিহাস

দক্ষিণ এশিয়া
প্রস্তর যুগ ৭০,০০০-৩৩০০ খ্রীষ্টপূর্ব
মেহেরগড় ৭০০০-৩৩০০ খ্রীষ্টপূর্ব
হরপ্পা ও মহেঞ্জদর সভ্যতা ৩৩০০-১৭০০খ্রীষ্টপূর্ব
হরপ্পা সংস্কৃতি ১৭০০-১৩০০ খ্রীষ্টপূর্ব
বৈদিক যুগ ১৫০০-৫০০ খ্রীষ্টপূর্ব
লৌহ যুগ ১২০০-৩০০ খ্রীষ্টপূর্ব
ষোড়শ মহাজনপদ ৭০০-৩০০ খ্রীষ্টপূর্ব
মগধ সাম্রাজ্য ৫৪৫খ্রীষ্টপূর্ব
মৌর্য সাম্রাজ্য ৩২১-১৮৪খ্রীষ্টপূর্ব
মধ্যকালীন রাজ্যসমূহ ২৫০ খ্রীষ্টপূর্ব
চোল সাম্রাজ্য • ২৫০খ্রীষ্টপূর্ব
সাতবাহন সাম্রাজ্য • ২৩০খ্রীষ্টপূর্ব
কুষাণ সাম্রাজ্য ৬০-২৪০ খ্রীষ্টাব্দ
বাকাটক সাম্রাজ্য ২৫০-৫০০ খ্রীষ্টাব্দ
গুপ্ত সাম্রাজ্য ২৮০-৫৫০ খ্রীষ্টাব্দ
পাল সাম্রাজ্য ৭৫০-১১৭৪ খ্রীষ্টাব্দ
রাষ্ট্রকুট ৭৫৩-৯৮২
ইসলামের ভারত বিজয়
সুলতানী আমল ১২০৬-১৫৯৬
দিল্লি সালতানাত ১২০৬-১৫২৬
দাক্ষিনাত্যের সুলতান ১৪৯০-১৫৯৬
হৈসল সাম্রাজ্য ১০৪০-১৩৪৬
কাকতীয় সাম্রাজ্য ১০৮৩-১৩২৩
আহমন সাম্রাজ্য ১২২৮-১৮২৬
বিজয়নগর সাম্রাজ্য ১৩৩৬-১৬৪৬
মুঘল সাম্রাজ্য ১৫২৬-১৮৫৮
মারাঠা সাম্রাজ্য ১৬৭৪-১৮১৮
শিখ রাষ্ট্র ১৭১৬-১৮৪৯
শিখ সাম্রাজ্য ১৭৯৯-১৮৪৯
ব্রিটিশ ভারত ১৮৫৮–১৯৪৭
ভারত ভাগ ১৯৪৭
স্বাধীন ভারত ১৯৪৭–বর্তমান
জাতীয় ইতিহাস
বাংলাদেশভুটানভারত
মালদ্বীপনেপালপাকিস্তানশ্রীলঙ্কা
আঞ্চলিক ইতিহাস
আসামবেলুচিস্তানবঙ্গ
হিমাচল প্রদেশউড়িষ্যাপাকিস্তানের অঞ্চল সমূহ
পাঞ্জাবদক্ষিণ ভারততিব্বত
বিশেষায়িত ইতিহাস
টঙ্কনরাজবংশঅর্থনীতি ভারততত্ত্ব
ভাষাবিজ্ঞানের ইতিহাসসাহিত্যনৌসেনা
সেনাবিজ্ঞান ও প্রযুক্তিসময়রেখা

রংপুর অঞ্চলে প্রধানত বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলীয় জেলা রংপুর, গাইবান্ধা, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট এবং নীলফামারী অন্তর্ভুক্ত। ২০১০ সাল থেকে, রংপুর শহর বাংলাদেশের রংপুর বিভাগের সদর দপ্তর।

ব্যুৎপত্তি[সম্পাদনা]

রংপুর নামটি এসেছে রঙ্গপুর শব্দ থেকে। সময়ের প্রবাহে তা বদলে গেছে। রঙ্গ শব্দের অর্থ আকর্ষণ, সুখ এবং পুর অর্থ স্থান, এলাকা। তাই রঙ্গপুর শব্দের অর্থ হল সুখের শহর কামরূপ সাম্রাজ্যে এক রাজা ছিলেন। তাঁর নাম ছিল ভগদত্ত। তিনি ঘাঘট নামে নদীর ধারে একটি রঙ্গমহল নির্মাণ করেন।[১] রঙ্গমহল মানে বাংলা এলাকার প্রাচীন রাজারা তাদের সময় কাটাতেন নাচ বা অন্যরকম বিনোদন উপভোগ করে। তখন থেকেই স্থানটির পরিচিতি হয় রঙ্গপুর। আর কালের প্রবাহে তা বদলে গেছে রংপুরে।[২]

মুঘল সাম্রাজ্য[সম্পাদনা]

সম্রাট আকবরের সামরিক কমান্ডার মান সিং প্রথম, ১৫৭৫ সালে রংপুরের কিছু অংশ জয় করেন। ১৬৮৬ সালে রংপুর সম্পূর্ণভাবে মুঘল সাম্রাজ্যের অধীনে আসে। কুড়িগ্রাম জেলার মুঘলবাসা ও মোগলহাট এখনও এই অঞ্চলে মুঘল শাসনের চিহ্ন বহন করে। মুঘলরা রংপুরে একটি ক্রিমিনাল হেডকোয়ার্টার তৈরি করে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] রংপুরের উত্তরাংশকে পিঞ্জরাহ সরকারের একটি অংশ এবং দক্ষিণ রংপুরকে ঘোড়াঘাট সরকারের একটি অংশ করা হয়েছিল।

ব্রিটিশ আমল[সম্পাদনা]

তাজহাট প্রাসাদটি ২০ শতকের শুরুতে মহারাজা কুমার গোপাল লাল রায় দ্বারা নির্মিত হয়েছিল

অনেক শাসকের পর অবশেষে ১৭৬৫ সালে রংপুর ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির অধীনে আসে। রংপুরকে ১৬ ডিসেম্বর, ১৭৬৯ সালে একটি জেলা সদর দপ্তর ঘোষণা করা হয় এবং ১৮৬৯ সালে একটি পৌরসভা হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়, যা এটিকে বাংলাদেশের প্রাচীনতম পৌরসভাগুলির মধ্যে একটি করে তোলে।[৩][৪] ১৮৯২ সালে পৌরসভার সিনিয়র চেয়ারম্যান রাজা জানকী বল্লভের অধীনে পৌরসভা ভবনটি নির্মিত হয়েছিল। ১৮৯০ সালে শহরের উন্নতির জন্য শ্যামাসুন্দরী খাল খনন করা হয়।

১৯৩০ সালে এখানে ব্রিটিশ শাসকদের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু হয়।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনের সময়, তারা বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছিল। রংপুর জিলা স্কুল, কারমাইকেল কলেজ ইত্যাদি। কোম্পানি শাসনের প্রথম দিকে রংপুরে ফকির-সন্ন্যাসী বিদ্রোহ ও অন্যান্য কৃষক বিদ্রোহ সংঘটিত হয়।[৫]

স্বাধীনতা পূর্বকাল (১৯৪৭-১৯৭১)[সম্পাদনা]

সেই সময়ে বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠে। রংপুর মেডিকেল কলেজের যাত্রা শুরু হয় ১৯৭০ সালে।[৬] খান ১৯৬৯ সালে এই কলেজের এলাকা নির্বাচন করেন।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়কাল (১৯৪৭-এখন)[সম্পাদনা]

রাজশাহী বিভাগের একটি জেলা থেকে, রংপুর ২০১০ সালে একটি বিভাগ হয়, এবং রংপুর পৌরসভা একটি সিটি কর্পোরেশনে রূপান্তরিত হয়।[৭] এখানে শরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু প্রথম মেয়র হন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Birth of Rangpur"onlinesivasagar.com 
  2. Kabir, Bilu (২০১০)। Bāṃlādeśera jelā nāmakaraṇera itihāsa বাংলাদেশের জিলা নামকরণের ইতিহাস। Gotidhara। পৃষ্ঠা 259। ওসিএলসি 701284134 
  3. "Journey to Rangpur City Corporation"। ১৭ জুন ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০১৫ 
  4. "Rangpur"britannica। ১৭ জুন ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০১৫ 
  5. Lorenzen, David N. (জানুয়ারি–মার্চ ১৯৭৮)। "Warrior Ascetics in Indian History": 61–75। জেস্টোর 600151ডিওআই:10.2307/600151 
  6. "Home / Education / Rangpur Medical College, Rangpur Rangpur Medical College, Rangpur"bangladeshinformation.info 
  7. "Rangpur turns city corporation"the daily star