লৌহ যুগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লৌহ যুগ
ব্রোঞ্জ যুগ

Bronze Age collapse

Ancient Near East (1300-600 BC)

Aegean, Anatolia, Assyria, Caucasus, Egypt, Levant, Persia

India (1200-200 BC)

Painted Grey Ware
Northern Black Polished Ware
Mauryan period

Europe (1000 BC-400 AD)

Novocherkassk
Hallstatt C
Villanovan culture
British Iron Age
Greece, Rome, Celts
Scandinavia

China (600-200 BC)

Warring States Period

Japan (500 BC-300 AD)

Yayoi period

Korea (400-60 BC)

Nigeria (400 BC-200 AD)

Axial Age
Classical Antiquity
Zhou Dynasty
Vedic period
alphabetic writing, metallurgy

Historiography
Greek, Roman, Chinese, Islamic

প্রাগৈতিহাসিক যুগের যে সময়কালে কোন এলাকার ধাতব অস্ত্র ও যন্ত্রপাতি মূলত লোহা দ্বারা তৈরি হত সেই সময়কালকে প্রত্নতত্ববিদ্যায় লৌহযুগ বলা হয়। লোহার ব্যবহার শুরুর সাথে সাথে মানবসমাজে কিছু পরিবর্তন দেখা যায়, যার মধ্যে কৃষিব্যবস্থা, ধর্মীয় বিশ্বাস এবং শিল্পকলা অন্যতম।

প্রত্নতত্ববিদ্যায় প্রাগৈতিহাসিক যুগকে যে তিনভাগে ভাগ করা হয়, লৌহ যুগ হচ্ছে সেই তিন যুগের সর্বশেষ যুগ। প্রস্তর যুগ ও ব্রোঞ্জ যুগের পরে লৌহ যুগের আবির্ভাব। লৌহযুগের সময়কাল ও বৈশিষ্ট্য অঞ্চলভেদে ভিন্ন ভিন্ন। সব অঞ্চলেই লৌহযুগ শেষে ঐতিহাসিক যুগের আবির্ভাব, যার অন্যতম বৈশিষ্ট্য হল লিখিত সংরক্ষিত ইতিহাস। উদাহরণ স্বরুপ, ব্রিটেন এর লৌহযুগ শেষ হয় রোমান বিজয় এর মাধ্যমে, যার পর হতে ব্রিটেন এর লিখিত ইতিহাস সংরক্ষণ শুরু হয়।

সময়কাল - লৌহ যুগ ১২০০-৩০০খ্রীষ্টপূর্বাব্দ[সম্পাদনা]

ডান কারলোয়ে ব্রচ, স্কটল্যান্ড
A replica Iron Age thatched roof, Butser Ancient Farm, Hampshire, England

লৌহ যুগের ভারত[সম্পাদনা]

মৌৰ্য সাম্ৰাজ্যনন্দ সাম্ৰাজ্যমগধ সাম্ৰাজ্যমহাজনপদ


ভারতের ধাতুবিদ্যার ইতিহাস খ্ৰী:পূ: ২য় সহস্ৰাব্দে আরম্ভ হয়। বৰ্তমান উত্তর প্ৰদেশের অন্তৰ্গত মলহার, দাদুপুর, রাজা নালা কা টিলা ও লাহোরাদেওয়া ইত্যাদি পুরাতাত্ত্বিক স্থানে খ্ৰী:পূ: ১৮০০-১২০০ অব্দে লোহা ব্যবহারের প্ৰমাণ পাওয়া গেছে।[১] হায়দরাবাদের পুরাতাত্ত্বিক খননস্থলে লৌহ যুগের এক সমাধিস্থল পাওয়া গেছে।[২] খ্ৰীষ্টপূৰ্ব ১ম সহস্ৰাব্দের আৰম্ভে ভারতে লোহার বহুল বিকাশ হয়েছিল। পূর্ব ভারতে খ্ৰীষ্টপূৰ্ব ১ম সহস্ৰাব্দেরর একটা লৌহকৰ্ম কেন্দ্ৰ পাওয়া গেছে।[৩] দক্ষিণ ভারতে খ্ৰী:পূ: ১২শ-র থেকে ১১শ সহস্ৰাব্দের ভিতর লোহার আবিৰ্ভাব ঘটে।[৩] ভারতীয় উপনিষদসমূহে ধাতুবিদ্যার উল্লেখ আছে।[৪] মৌৰ্য যুগে ধাতুবিদ্যা প্ৰসারলাভ করে।[৫] খ্ৰী:পূ: ৩০০-র থেকে খ্ৰীষ্টিয় ২০০ সালের মধ্যে দক্ষিণ ভারতে উন্নতমানের তীখা উৎপাদন করা হয়।[৬]

ব্রোঞ্জ যুগে লোহার ব্যবহার[সম্পাদনা]

ব্রোঞ্জ হতে লোহায় রুপান্তর[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  1. The origins of Iron Working in India: New evidence from the Central Ganga plain and the Eastern Vindhyas by Rakesh Tewari (Director, U.P. State Archaeological Department)
  2. "News By Industry"The Times Of India। ২০০৮-০৯-১০। 
  3. Early Antiquity By I. M. Drakonoff. Published 1991. University of Chicago Press. ISBN 0-226-14465-8. pg 372
  4. Upanisads By Patrick Olivelle. Published 1998. Oxford University Press. ISBN 0-19-283576-9. pg xxix
  5. The New Cambridge History of India By J. F. Richards, Gordon Johnson, Christopher Alan Bayly. Published 2005. Cambridge University Press. ISBN 0-521-36424-8. pg 64
  6. Juleff, G. (1996), "An ancient wind powered iron smelting technology in Sri Lanka", Nature, 379 (3): 60–63.