তৈকর টেঙ্গা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
তৈকর টেঙ্গা
অন্যান্য নামতৈকর খাট্টা
প্রকারমূল
উৎপত্তিস্থলবাংলাদেশ
অঞ্চল বা রাজ্যসিলেট
প্রধান উপকরণতৈকর, পিঁয়াজ, রসুন

তৈকর টেঙ্গা সিলেটে খুবই জনপ্রিয় একটি খাবার। এটি একটি অপ্রচলিত ফল হলেও হাতকড়ার মতো সিলেট অঞ্চলে এটি প্রায় সারা বছরই পাওয়া যায়। এই টক ফলটি বেশিরভাগই ছোট মাছের সাথে রান্নায় ব্যবহৃত হয়।[১] তৈকর টেঙ্গায় মাছের ঝোল অসমীয়া এবং সিলেটি রন্ধনশৈলীতে একটি জনপ্রিয় তরকারি।[২]

থইকর হল একটি সবজির প্রজাতি যার বীজ নেই এবং সাইট্রাস স্বাদের। ডিসেম্বর থেকে শুরু করে তিন-চার মাসে এটি প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। তবে সারা বছরই বাজার থেকে সংগ্রহ করা যায়। থইকর দিয়ে মাছ-মাংস রান্না করা হয়। অনেকেই এই সবজিটিকে ডেফোলের সাথে গুলিয়ে ফেলেন। আসলে, থইকর দেখতে বড় আপেলের মতো। তৈকর কাঁচা অবস্থায় সবুজ এবং পাকলে হলুদ হয়[৩] এই ফলটি মাছ এবং ভুনা গরুর মাংস রান্না করতে ব্যবহার করা যেতে পারে।[৪]

উপকরণ[সম্পাদনা]

সয়াবিন তেল, পেঁয়াজ বাটা, রসুন বাটা, আদা বাটা, হলুদ, কুচি করা আদা, লবণ, মরিচের গুঁড়া, থইকর ও মাছ।

পদ্ধতি[সম্পাদনা]

প্রথমে একটি সসপ্যানে তেল গরম করা হয়। তারপর রসুন কুচি দিয়ে হালকা ভাজা হয়। এরপর বাকি মসলাও ভেজে এবং থইকর ও মাছ যোগ করে ঢেকে রাখা হয়। এটি প্রস্তুত হয়ে গেলে, এটি নামিয়ে নেওয়া হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "একেবারেই নিজস্ব"প্রথম আলো। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৮ এপ্রিল ২০২০ 
  2. "প্রাচীন ফল তৈকর"। হালচাষ। ২০ অক্টোবর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  3. "বারি তৈকর-১"। কৃষি বাতায়ন। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  4. "সিলেটি ফল থইকর দিয়ে দুই পদ"প্রথম আলো। ১৮ অক্টোবর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২৯ এপ্রিল ২০২০