আখনী পোলাও

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আখনী পোলাও
ꠝꠥꠞꠉꠧꠞ ꠀꠈꠘꠤ.jpg
মুরগির আখনি
প্রকারমূল খাবার
উৎপত্তিস্থলবাংলাদেশ বাংলাদেশ
অঞ্চল বা রাজ্যসিলেট
প্রধান উপকরণচাল, মসলা, মাংস, সবজি (আলু বা গাজর), মাংস, দই
রন্ধনপ্রণালী: আখনী পোলাও  মিডিয়া: আখনী পোলাও

আখনী পোলাও বাংলাদেশের সিলেট অঞ্চলের একটি জনপ্রিয় প্রচলিত খাবার।[১] চাল, ঘি, গরম মশলা, সবজি এবং মাংস মিশিয়ে রান্না করা এই খাবারটি সিলেটের একটি নিজস্ব এবং ঐতিহ্যবাহী খাবার হিসাবে সুপরিচিত।[২]

উৎপত্তি[সম্পাদনা]

চাল দ্বারা তৈরি এই খাবারটির উৎপত্তি হয় সিলেট অঞ্চলের মুসলমানদের মাধ্যমে। এটি প্রায়শই বিরিয়ানি বা পোলাও'র একটি বিশেষ প্রকরণ হিসাবে বিবেচিত হয়; ফলে এটিকে আখনি বিরিয়ানী এবং আখনি পোলাও নামে ডাকা হয়। এই খাদ্যের পদটি সারা বাংলাদেশ জুড়ে, একই সাথে বিদেশী বাংলাদেশীদের মধ্যেও জনপ্রিয়।

রন্ধন প্রণালী[সম্পাদনা]

মাংস ছোট টুকরো করে ধুয়ে আদা, রসুন, জিরা, টক দই, বাদাম বাটা, পেঁয়াজ, লবণ, গরম মসলা, তেজপাতাতেল দিয়ে কষিয়ে নিয়ে তেলে চাল (তুলশীমালা চাল, কালিজিরা চাল, চিনিগুড়া চাল ইত্যাদি) ভেজে তাতে এই কষানো মাংস আলু, গাজর, মটরশুঁটি, আলুবোখারা, কাঁচামরিচ দিয়ে নেড়ে-চেড়ে পরিমাণমতো গরম পানি দিয়ে চাল আধাসেদ্ধ করে এরপর পানি শুকিয়ে এলে পাত্রের নিচে পুরোনো তাওয়া দিয়ে দমে রাখতে হয়।[১] চাল সেদ্ধ হয়ে ঝরঝরে হলে তাতে কেওড়া জলে গোলানো দুধ দিয়ে মিনিট পাঁচেক চুলায় রেখে নামিয়ে নিতে হয়।[১]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ইফতারে সিলেটি আখনী পোলাও"বিডিমর্নিং.কম অনলাইন। ১২ জুলাই ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১২ ডিসেম্বর ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "সিলেটের ঐতিহ্য আখনি ও পাতলা খিচুড়ি"বাংলাদেশ প্রতিদিন অনলাইন। ১২ জুন ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১২ ডিসেম্বর ২০১৭