বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (মার্কসবাদী)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল
সাধারণ সম্পাদকমুবিনুল হায়দার চৌধুরী
প্রতিষ্ঠা৭ এপ্রিল ২০১৩ (2013-04-07)
পূর্ববর্তীবাসদ
সদর দপ্তর২২/১ তোপখানা সড়ক (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা, বাংলাদেশ ১০০০
মতাদর্শসাম্যবাদ,
মার্কসবাদ-লেনিনবাদ-শিবদাস ঘোষের চিন্তাধারা
রাজনৈতিক অবস্থানকমিউনিস্ট, বামপন্থী
আন্তর্জাতিক অধিভুক্তিইন্টারন্যাশনাল এন্টি ইম্পেরিয়ালিস্ট কোঅর্ডিনেটিং কমিটি
ওয়েবসাইট
spbm.org
বাংলাদেশের রাজনীতি
রাজনৈতিক দল
নির্বাচন
বাসদ মার্কসবাদী দলের উন্মুক্ত কয়লাখনিবিরোধী আন্দোলনের দেয়াললিখন, পার্বতীপুর

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (মার্কসবাদী) বাংলাদেশে মার্কসবাদ-লেনিনবাদশিবদাস ঘোষের চিন্তাধারায় পরিচালিত একটি রাজনৈতিক দল। দলটি বাংলাদেশে বামপন্থীদের জোটবদ্ধ সংগঠন বাম গণতান্ত্রিক জোটের সাথে একত্রে কাজ করে থাকে।

ভারতের বিপ্লবী রাজনীতির তাত্ত্বিক শিবদাস ঘোষকে কমিউনিস্ট আন্দোলনের আন্তর্জাতিক অথরিটি হিসেবে স্বীকৃতি না দেয়ার কারণে ২০১৩ সালে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) থেকে দুইজন কেন্দ্রীয় নেতা বের হয়ে নতুন দল বাসদ (মার্কসবাদী) গঠন করেন।[১][২] ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে দলটির আরেক দফা ভাঙন ঘটে।

দলটির মাসিক মুখপত্রের নাম সাম্যবাদ

ইতিহাস[সম্পাদনা]

দলটির সাংবাদিক সম্মেলন দিয়ে আত্মপ্রকাশ ঘটে ৭ এপ্রিল ২০১৩ তারিখে। ২০১৪ সালের ২০-২৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত বিশেষ কেন্দ্রীয় কনভেনশনে কেন্দ্রীয় কার্য পরিচালনা কমিটির ৯ সদস্যের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন মুবিনুল হায়দার চৌধুরী।

সংগঠনে মতাদর্শের যথাযথ প্রয়োগ না ঘটায় ফেব্রুয়ারি ২০২০-এ ভাঙ্গন ঘটে। শুভ্রাংশু চক্রবর্তীসহ ১৬ জন নেতাকর্মীকে বহিষ্কারের মাধ্যমে এই ভাঙন তরান্বিত হয়।[৩] সারাদেশ থেকে বেরিয়ে যাওয়া নেতাকর্মীরা আবার বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (মার্কসবাদী) - কেন্দ্রীয় পাঠচক্র ফোরাম নামে নতুন দল গঠনের চেষ্টা চালায়। এই অংশটি ২০২১ সালের ৩ এপ্রিল বাংলাদেশের সাম্যবাদী আন্দোলন (সিএমবি) নামে আত্মপ্রকাশ করে।[৪]

গণ সংগঠনসমূহ[সম্পাদনা]

বাসদ (মার্কসবাদী) সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষের সাথে যুক্ত। তাদের সাথে সম্পৃক্ত গণ সংগঠনগুলো হলো -

  • সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট
  • বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশন
  • বাংলাদেশ নারীমুক্তি কেন্দ্র
  • শিশু কিশোর মেলা
  • চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র
  • বিজ্ঞান চর্চা কেন্দ্র
  • প্রগতিশীল চিকিৎসক ফোরাম
  • বাংলাদেশ চা শ্রমিক ফেডারেশন
  • সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর ও কৃষক ফ্রন্ট

বাসদ সংক্রান্ত পুস্তকসমূহ[সম্পাদনা]

বাসদ রাজনীতি বিষয়ে আলোচনা সমালোচনামূলক বেশ কিছু গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে,

  • আ. ও. ম. শফিকউল্লা এবং অন্যান্য; জাসদ-বাসদের ভ্রান্ত, দোদুল্যমান ও বিভ্রান্তিকর রাজনীতি প্রসঙ্গে, লক্ষ্মীপুর গ্রুপ; ঢাকা; ১৬ জুলাই, ১৯৮১;
  • জয়নাল আবেদীন, শিবদাস ঘোষ জাসদ-বাসদ রাজনীতি ও ভাঙন প্রসঙ্গ, খড়িমাটি প্রকাশন, চট্টগ্রাম, মে, ২০১৪, আইএসবিএন ৯৭৮-৯৮৪-৯০১-২০৪-৭

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বাসদে ফের ভাঙন"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। ১২ এপ্রিল ২০১৩। ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  2. "বিপ্লবী দল গড়ার প্রত্যয়ে বাসদ-এর বিশেষ কনভেনশন"spbm.org। ১৩ ডিসেম্বর ২০১৪। ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  3. রোমেল, সাজেদ (২০২০-০২-২৫)। "বাসদে বহিষ্কার-ভাঙন: দলীয় প্রধান ও বিদ্রোহী নেতা যা বলছে"রাইজিং বিডি। ঢাকা: এস এম জাহিদ হাসান। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৯ 
  4. "বাসদ (মার্কসবাদী) ভেঙে নতুন দল বাংলাদেশের সাম্যবাদী আন্দোলন"সারাক্ষণ ডটকম। ৩ এপ্রিল ২০২১। ১১ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ এপ্রিল ২০২১