দৈনিক জনকণ্ঠ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জনকণ্ঠ
দৈনিক জনকণ্ঠ লোগো.png
ধরনদৈনিক পত্রিকা
ফরম্যাটব্রডশিট
মালিকগ্লোব জনকণ্ঠ শিল্প পরিবার
প্রকাশকমোহাম্মদ আতিকউল্লাহ খান মাসুদ
সম্পাদকমোহাম্মদ আতিকউল্লাহ খান মাসুদ
প্রতিষ্ঠাকাল২১শে ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৩
ভাষাবাংলা
সদরদপ্তরদৈনিক জনকণ্ঠ
জনকণ্ঠ ভবন, ২৪/এ রাশেদ খান মেনন সড়ক
ঢাকা
বাংলাদেশ
দাপ্তরিক ওয়েবসাইটজনকণ্ঠ

দৈনিক জনকণ্ঠ বাংলাদেশের ঢাকা থেকে প্রকাশিত বাংলা ভাষার একটি দৈনিক সংবাদপত্র। এটি প্রথম প্রকাশিত হয় ১৯৯৩ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি। পত্রিকাটি চার রঙে মুদ্রিত। নিয়মিত সংখ্যা ২০ পৃষ্ঠা। সাংবাদিক মোহাম্মদ আতিকউল্লাহ খান মাসুদ সম্পাদনায় এ পত্রিকাটি প্রকাশিত হয়।[১]

তথ্য মন্ত্রণালযয়ের আওতাধীন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর কর্তৃক প্রকাশিত ৩০ জুন ২০১৮ তারিখের হিসেব অনুযায়ী, এ সংবাদপত্রের প্রকাশিত সংখ্যা দুই লাখ ৭৫ হাজার কপি[২] যা বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত জাতীয় দৈনিকসমূহের মধ্যে ষষ্ঠ।

সমালোচনা[সম্পাদনা]

২০১৭ সালের ২৪ এপ্রিল জনকণ্ঠে প্রকাশিত একটি সংবাদ প্রতিবেদনে গৌতম বুদ্ধকে ‘সন্ত্রাসী’ আখ্যা দেওয়া হয় যা নিয়ে বাংলাদেশে সমালোচনা ও প্রতিবাদের[৩][৪] মুখে পরবর্তীতে তারা প্রতিবেদনটি সম্পর্কে দুঃখ প্রকাশ করে এবং প্রত্যাহার করে নেয়।[৫] জনকণ্ঠ তাদের প্রতিবেদনে উইকিপিডিয়াকে উৎস হিসেবে উদ্বৃত করলেও উইকিপিডিয়ার নিবন্ধে গৌতম বুদ্ধের নিবন্ধে এমন বিশেষণ ব্যবহার করা হয়নি।[৬]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.thedailystar.net/newDesign/news-details.php?nid=158386
  2. "জাতীয় দৈনিকের প্রচার সংখ্যা ও বিজ্ঞাপনের হার"বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর। ৯ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "বৌদ্ধ ধর্মকে অবমাননা করে প্রতিবেদন প্রকাশকারী পত্রিকার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থার দাবি"। বাংলা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  4. "সাম্প্রদায়িক উসকানির প্রতিবাদ"প্রথম আলো 
  5. "কৈফিয়ত ও দুঃখ প্রকাশ"জনকন্ঠ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. প্রতিবেদক, জ্যেষ্ঠ। "গৌতম বুদ্ধের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রতিবেদন 'উদ্দেশ্যপ্রণোদিত'"। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

বহিঃ সংযোগ[সম্পাদনা]