২০ এপ্রিল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(এপ্রিল ২০ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
১০ ১১
১২ ১৩ ১৪ ১৫ ১৬ ১৭ ১৮
১৯ ২০ ২১ ২২ ২৩ ২৪ ২৫
২৬ ২৭ ২৮ ২৯ ৩০  

২০ এপ্রিল গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ১১০তম (অধিবর্ষে ১১১তম) দিন। বছর শেষ হতে আরো ২৫৫ দিন বাকি রয়েছে।

ঘটনাবলী[সম্পাদনা]

  • ১৫২৬ - পানিপথের যুদ্ধে মোগলরা আফগানদের পরাভূত করে।
  • ১৭৭০ - ব্লাক নিউ সাউথ ওয়েলস আবিষ্কার করেন।
  • ১৭৭০ - আজকের এই দিনে ক্যাপ্টেন কুক অস্ট্রেলিয়া আবিস্কার করেন।
  • ১৮৮৯ - ফরাসী বিপ্লবের শতবর্ষ পূর্তিতে স্মারকস্তম্ভ ৯৮৫ ফুট উঁচু আইফেল টাওয়ার নির্মাণের কাজ শেষ হয়।
  • ১৯০২ - কিউবা থেকে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহার করে নেয়।
  • ১৯১৯ - মন্টিনিগ্রোর রাজা নিকোলাস সিংহাসনচ্যুত।
  • ১৯৪০ - দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ব্রিটিশ ব্রিগেডের ফ্রান্সে পদার্পণ।
  • ১৯৪৫ - ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর বার্লিনে প্রবেশ।
  • ১৯৫৯ - নদার্ন রোডেশিয়ায় নির্বাচনে ইউনাইটেড ফেডারেল পার্টির জয়।
  • ১৯৬৪ - লাওসে সামরিক অভ্যুত্থান ব্যর্থ।
  • ১৯৭২ - যুক্তরাষ্ট্রের এ্যাপোলো-১৬’র নভোচারীরা নিরাপদে চাঁদে অবতরণে সফল।
  • ১৯৭৬ - জেরুজালেমে ইসরাইল বিরোধী দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে।
  • ১৯৮৬ - শ্রীলংকায় একটি বিশাল সেচ মজুদাগারে ফাটল ধরে বিরাট এলাকা জুড়ে প্লাবন । দুশতাধিক প্রাণহানি। ২০ হাজার পরিবার গৃহহীন।
  • ১৯৯৮ - ইকুয়েডরের যাত্রীবাহী বিমান কলম্বিয়ার পার্বত্যাঞ্চলে বিধ্বস্ত হয়ে ৫৩ আরোহীর সবাই নিহত।
  • ২০১২ - পাকিস্তানের ইসলামাবাদের কাছে বেনজির ভুট্টো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর-এর সন্নিকটে আবাসিক এলাকায় বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১২৭ জন নিহত হয়।
  • ২০১৩ - চীনের সিচুয়ান প্রদেশে ৬.৬ মাত্রার ভূমিকম্পে ১৫০ জনেরও বেশি নিহত হয়।

জন্ম[সম্পাদনা]

  • ১৪৯২ - পিয়েট্রো আরেটিনো, তিনি ছিলেন ইতালীয় লেখক, নাট্যকার ও কবি।
  • ১৭৬৮ - জোশুয়া মার্শম্যান বৃটিশ ভারতের বঙ্গে খ্রিষ্টান ধর্মপ্রচারক ।(মৃ.০৬/১২/১৮৩৭)
  • ১৮০৮ - তৃতীয় নেপোলিয়ন, তিনি ছিলেন ফরাসি রাজনীতিবিদ ও ১ম প্রেসিডেন্ট।
  • ১৮৮৯ - আডলফ হিটলার, সাবেক জার্মান চ্যান্সেলর। (মৃ. ৩০/০৪/১৯৪৫)
  • ১৮৯৩ - জোয়ান মিরো, একজন কাতালান স্প্যানিশ চিত্রশিল্পী, ভাস্কর্যশিল্পী এবং সিরামিকান ছিলেন। (মৃ. ১৯৮৩)
  • ১৮৯৩ - হ্যারল্ড লয়েড, তিনি ছিলেন আমেরিকান অভিনেতা, কৌতুকাভিনেতা ও প্রযোজক।
  • ১৯০৭ - মিরন বক্স, পাকিস্তানি ক্রিকেটার। (মৃ. ১৯৯১)
  • ১৯১৮ - শওকত আলী, বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ এবং বাংলা ভাষা আন্দোলনের অন্যতম নেতা।
  • ১৯১৮ - কাই মানে বোরিয়ে জিগবান, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী সুইডিশ পদার্থবিদ ও শিক্ষাবিদ।
  • ১৯২০ - যূথিকা রায় ভারতের বাঙালি কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী। (মৃ. ০৫/০২/২০১৪)
  • ১৯২৪ - নিনা ফাশ, ওলন্দাজ মার্কিন অভিনেত্রী। (মৃ. ২০০৮)
  • ১৯২৭ - কার্ল আলেকজান্ডার মুলার, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী সুইস পদার্থবিদ ও শিক্ষাবিদ।
  • ১৯৩৭ - জর্জ টাকেই, তিনি আমেরিকান অভিনেতা।
  • ১৯৩৯ - গ্রো হারলেম ব্রুন্ডটল্যান্ড, তিনি নরওয়েজিয়ান চিকিৎসক, রাজনীতিবিদ ও ২২ তম প্রধানমন্ত্রী।
  • ১৯৪১ - রায়ান ওনিল, মার্কিন অভিনেতা ও সাবেক মুষ্টিযোদ্ধা।
  • ১৯৪৫ - থিন সিন, মায়ানমার রাজনীতিবিদ ও সাবেক সামরিক কমান্ডার।
  • ১৯৪৯ - জেসিকা ল্যাং, মার্কিন চলচ্চিত্র, মঞ্চ ও টেলিভিশন অভিনেত্রী।
  • ১৯৪৯ - মাসিমো দালেমা, ইতালীয় রাজনীতিবিদ ও প্রধানমন্ত্রী।
  • ১৯৬৪ - অ্যান্ডি সার্কিস, ইংরেজ অভিনেতা এবং পরিচালক।
  • ১৯৬৬ - ডেভিড ফিলো, তিনি আমেরিকান ব্যবসায়ী এবং ইয়াহু! এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা!
  • ১৯৭২ - কারমেন ইলেকট্রা, তিনি আমেরিকান মডেল ও অভিনেত্রী।
  • ১৯৭২ - যেলজক জক্সিমভিক, তিনি সার্বীয় গায়ক, গীতিকার ও প্রযোজক।
  • ১৯৮৩ - মিরান্ডা মে কের, তিনি অস্ট্রেলিয়ান মডেল।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

  • ১৯১২ - আব্রাহাম ব্রাম স্টোকার, তিনি ছিলেন আইরিশ বংশোদ্ভূত ইংরেজ লেখক ও ড্রাকুলারে স্রষ্টা।
  • ১৯১৮ - কার্ল ফার্দিনান্দ ব্রাউন, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী জার্মান বংশোদ্ভূত আমেরিকান পদার্থবিদ ও শিক্ষাবিদ।
  • ১৯৩২ - গিউসেপে পেয়ানো, তিনি ছিলেন ইতালীয় গণিতবিদ ও দার্শনিক।
  • ১৯৫২ - সুধীরলাল চক্রবর্তী, বাংলা ভাষার সুরকার ও সঙ্গীতজ্ঞ ও সুগায়ক।[১]
  • ১৯৬০ - পান্নালাল ঘোষ ভারতের বাঙালি বংশীবাদক ও সুরকার।(জ.২৪/০৭/১৯১১)
  • ১৯৯১ - ডোনাল্ড সিজেল, তিনি ছিলেন আমেরিকান পরিচালক ও প্রযোজক।
  • ১৯৯২ - বেনি হিল, তিনি ছিলেন ইংরেজ কৌতুকাভিনেতা, অভিনেতা ও চিত্রনাট্যকার।
  • ১৯৯৩ - কান্টিনফ্লাস, তিনি ছিলেন মেক্সিক্যান অভিনেতা, প্রযোজক ও চিত্রনাট্যকার।
  • ২০০৩ - বার্ণার্ড কাটজ, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী জার্মান বংশোদ্ভূত ইংরেজ পদার্থবিজ্ঞানী ও শিক্ষাবিদ।
  • ২০১১ - জেরার্ড স্মিথ, আমেরিকান গিটারিস্ট।
  • ২০১৯ - অমর পাল,ভারতের বাঙালি লোকসঙ্গীত শিল্পী ও লেখক।(জ.১৯/০৫/১৯২২)

ছুটি ও অন্যান্য[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  1. সেলিনা হোসেন ও নুরুল ইসলাম সম্পাদিত বাংলা একাডেমী চরিতাভিধান; ঢাকা, এপ্রিল, ২০০৩; পৃষ্ঠা-৪০৭-৮।