ইবনে শিহাব আল-জুহরি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মুহাম্মদ ইবনে মুসলিম ইবনে উবাইদুল্লাই ইবনে শিহাব আল-জুহরী
محمد بن مسلم بن عبید الله بن عبد الله بن شهاب القرشی الزهری
উপাধিমুসলিম পন্ডিত
ব্যক্তিগত
জন্ম৫০ হিজরী
মৃত্যু১২৪ হিজরী/৭৪১ খ্রীস্টাব্দ
ধর্মইসলাম

মুহাম্মদ ইবনে মুসলিম ইবনে ওবায়দুল্লাহ ইবনে শিহাব আল-জুহরী [১] ( আরবি: ابن شهاب الزهري‎‎ ; মৃত্যু ১২৪/৭৪১-২), সাধারণত হাদীস সাহিত্যে কেবল ইবনে শিহাব বা আল জুহরি হিসাবে পরিচিত যিনি প্রথম সীরাহ সংগ্রাহকদের মধ্যে একজন কেন্দ্রীয় ব্যক্তিত্ব ছিলেন।

সুফিয়ান বলেন, “আমি আল-জুহরিকে দেখলাম তার চুল তার কাঁধে ঝুলে আছে এবং দাড়ি বিবর্ণ লাল হয়ে আছে। দেখে মনে হচ্ছিল সে দাড়ি কাটাম দিয়ে রং করেছে। তার চোখ ছিল ঝাপসা। আমার বয়স যখন ১৭ বছর ১২৩ হিজরীতে সে আমাদের সাথে দেখা করতে আশে। এবং তখন তিনি ১২৪ হিজরী অবধি আমাদের সাথে থাকেন।

জীবন[সম্পাদনা]

ইবনে সা'দ [২] এর একটি বিবরণে আল-জুহরীর নিজের মুখে বর্ণনা করে যে তিনি কীভাবে নিজের বাসা ছেড়ে মদিনায় আসেন। খেলাফতের আমলে আইনের মানদণ্ড তৈরী করার জন্য তিনি দামেস্কে গিয়েছিলেন এবং খলিফা আবদ আল-মালিকের প্রশাসনের নিয়োগ পান।

তাঁর শিক্ষকগণ[সম্পাদনা]

তিনি যাদের থেকে বর্ণনা করতেন

  • সাহল ইবনে সাদ,
  • আনাস ইবনে মালিক,
  • সাইব ইবনে এজিদ,
  • আবদুল্লাহ ইবনে সালাবাহ ইবনে সুয়াইর,
  • মাহমুদ ইবনে রাবি,
  • মাহমুদ ইবনে লাবিদ,
  • শাবিব আবু জামিলাহ,
  • সাদ ইবনে মুসাইয়িব

সন্তান[সম্পাদনা]

কিছু সূত্র মতে, তবে ইবনে সা'দ এর নয়, তাঁর আহমাদ ইবনে আবু বকর আল-জুহরি নামে এক পুত্রসন্তান ছিল।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

উমাইয়া শাসনামলে[সম্পাদনা]

উমাইয়াদের অধীনে অনেক অঞ্চল আগে বাইজেন্টাইন বা পার্সিয়ানদের অধীনে ছিল আর এর আগে তাদের নিজস্ব আইনী ব্যবস্থা ছিল। উমাইয়া কর্তৃক বিচারক হিসাবে নিয়োগপ্রাপ্ত কাজীগণ আইনশাস্ত্রের সঠিক মানদণ্ডে উত্তীর্ণ ছিল না। আইনী ব্যবস্থাগুলি একটি সঠিক মানদণ্ডে আনার জন্য মদিনার অনেক পণ্ডিত এই বিচারকদের পরামর্শ দিতেন। তাদের পড়াশোনা বাড়ানোর জন্য অনেক উমাইয়া শাসক তাদের সন্তানদেরও শিক্ষার জন্য মদীনায় প্রেরণ করেছিলেন। শিহাব আল-জুহরি পরে দামেস্কে কাজ করেছিলেন এবং খলিফা হিশামের পুত্রকেও ( মৃত্যু ১২৫/৭৪৩) শিক্ষা দিয়েছিলেন। এর অর্থ এই নয় যে তিনি উমাইয়াদের সমর্থন করতেন। ইবনে শিহাব আল জুহরি অনুভব করেছিলেন যে তাঁর ছাত্র ওয়ালিদ একজন দুর্নীতিবাজ ও নিপীড়ক শাসক হয়ে উঠতে পারে। [২]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. Our sources do not agree about his name. The form used in the text comes from Ibn Ishaq where it appears on page 4 of Guillaume's translation of "Sirat Rasul Allah". On the other hand Ibn Sa'd (in Ayeasha Bewley's translation called "The Men of Madina – vol II, pages 273–81) first says it was Muhammad ibn 'Ubaydullah ibn 'Abdullah ibn Shihab and then quotes him as saying his name was "Muhammad ibn Muslim ibn 'Ubaydullah ibn 'Abdullah ibn Shihab ibn 'Abdullah ibn al-Harith ibn Zuhra
  2. cited above

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

    • There is an excellent modern discussion of al-Zuhri, his life, works and legacy in the eighth chapter of Azami's Studies in Early Hadith Literature: Mohmammad Mustafa Azmi "Studies in Early Hadith Literature: with a Critical Edition of Some Early texts" 1st edition 1968, 3rd edition 1992 used, American Trust Publications, আইএসবিএন ০-৮৯২৫৯-১২৫-০.
    • Boekhoff-van der Voort, Nicolet, Umayyad Court, in Muhammad in History, Thought, and Culture: An Encyclopedia of the Prophet of God (2 vols.), Edited by C. Fitzpatrick and A. Walker, Santa Barbara, ABC-CLIO, 2014, Vol. II, pp. 659–663. আইএসবিএন ১৬১০৬৯১৭৭৬ISBN 1610691776 (An Entry on the Umayyad court and, in particular, the impact of Ibn Shihab al-Zuhri by a leading specialist on al-Zuhri)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]