উমিয়াম নদী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
উমিয়াম নদী
দেশসমূহ বাংলাদেশ, ভারত
রাজ্য মেঘালয়
অঞ্চল সিলেট বিভাগ
জেলা সুনামগঞ্জ জেলা
উত্স খাসিয়া জৈন্তিয়া পাহাড়
মোহনা জালিয়া ছড়া (ভোলাগঞ্জ)
দৈর্ঘ্য ১৬ কিলোমিটার ( মাইল)

উমিয়াম নদী বাংলাদেশ-ভারতের একটি আন্তঃসীমান্ত নদী[১] নদীটি বাংলাদেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সুনামগঞ্জ জেলার একটি নদী। নদীটির দৈর্ঘ্য ১৬ কিলোমিটার, গড় প্রস্থ ৪৫২ মিটার এবং নদীটির প্রকৃতি সর্পিলাকার। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড বা "পাউবো" কর্তৃক উমিয়াম নদীর প্রদত্ত পরিচিতি নম্বর উত্তর-পূর্বাঞ্চলের নদী নং ০৬।[২] উমিয়াম নদীর গভীরতা ৮ মিটার এবং অববাহিকার আয়তন ৪৮ বর্গকিলোমিটার।

উৎপত্তি ও প্রবাহ[সম্পাদনা]

উমিয়াম নদী ভারতের খাসিয়া জৈন্তিয়া পাহাড় হতে উৎপত্তি হয়ে বাংলাদেশের সুনামগঞ্জ জেলার ছাতকের দোয়ারাবাজার দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। তারপর ছাতকের সুরমা নদীতে প্রবেশ করেছে।[৩]

অন্যান্য তথ্য[সম্পাদনা]

এই নদীতে সারা বছরই পানিপ্রবাহ থাকে। শুষ্ক মৌসুমে ফেব্রুয়ারি-মার্চের দিকে প্রবাহের গভীরতা কমে গিয়ে ২.৫ মিটার পর্যন্ত থাকে। তবে বর্ষা মৌসুমে জুন-আগস্টে এই পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়ে ৮ মিটার পর্যন্ত পৌঁছায়। নদীটিতে জোয়ার ভাটার প্রভাব নেই।

গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা[সম্পাদনা]

উমিয়াম নদীর তীরে ছাতক শহর অবস্থিত।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "আন্তঃসীমান্ত_নদী"বাংলাপিডিয়া। ১৬ জুন ২০১৪। সংগৃহীত : ১৬ জুন ২০১৪ 
  2. মোহাম্মদ রাজ্জাক, মানিক (ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "উত্তর-পূর্বাঞ্চলের নদী"। বাংলাদেশের নদনদী: বর্তমান গতিপ্রকৃতি (প্রথম সংস্করণ)। ঢাকা: কথাপ্রকাশ। পৃ: ১৭৩। আইএসবিএন 984-70120-0436-4 
  3. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ১৪০-১৪১।