বাংলা ভাষা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
"বাংলা" ও "বঙ্গভাষা" এখানে পুননির্দেশ করা হয়েছে। মাইকেল মধুসূদন দত্ত রচিত কবিতার জন্য, দেখুন বঙ্গভাষা (কবিতা)। বাংলার জন্য, দেখুন বাংলা (দ্ব্যর্থতা নিরসন)
এই নিবন্ধটি বাংলা ভাষা সম্পর্কিত। বাংলা লিপির জন্য, দেখুন বাংলা লিপি
.বাংলা নিবন্ধের সাথে বিভ্রান্ত হবেন না।
বাংলা
Bangla Script.svg
বাংলা লিপিতে "বাংলা" শব্দটি
দেশোদ্ভব বাংলাদেশ, ভারত (প্রধানত পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা, আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ এবং অসমের বরাক উপত্যকা)
অঞ্চল বঙ্গ
নৃতাত্ত্বিক বাঙালি জাতি
দেশীয় ভাষাভাষী ২১০ মিলিয়ন
মোট: ২৩০ মিলিয়ন (২০০৩)[১]
ভাষা পরিবার
উপভাষাসমূহ
লিখন পদ্ধতি বাংলা লিপি
প্রাতিষ্ঠানিক মর্যাদা
সরকারি ভাষা

 বাংলাদেশ
 ভারত; নিম্নলিখিত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মধ্যে:

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ বাংলা একাডেমী
ভারত পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমি
ভাষা কোডসমূহ
আইএসও ৬৩৯-১ bn
আইএসও ৬৩৯-২ ben
আইএসও ৬৩৯-৩ ben
লিঙ্গুয়াস্ফেরা 59-AAF-u
Bengalispeaking region.png
দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলা ভাষার বিস্তার
Bengali-world.svg
বিশ্বে বাংলা ভাষার ভৌগোলিক বিস্তার
  বাংলা ভাষার মর্যাদা যেখানে একমাত্র জাতীয় ও সরকারি ভাষা
  বাংলা ভাষার মর্যাদা যেখানে অনেকগুল সরকারি ভাষার মধ্যে একটি
  বাংলাভাষী মানুষ বাস করেন (১,০০,০০০+)
  বাংলাভাষী মানুষ বাস করেন (১০,০০০+)

বাংলা ভাষাটি দক্ষিণ এশিয়ার পূর্বে অবস্থিত বঙ্গ নামক ভৌগোলিক অঞ্চলের স্থানীয় ভাষা, এই অঞ্চলটি বর্তমানে রাজনৈতিকভাবে স্বাধীন রাষ্ট্র বাংলাদেশভারতের অঙ্গরাজ্য পশ্চিমবঙ্গ নিয়ে গঠিত। এছাড়াও ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য এবং মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীও বাংলা ভাষাতে কথা বলে। পালিপ্রাকৃত ভাষার মধ্য দিয়ে বাংলা ভাষার উদ্ভব হয়েছে, এবং পরে গিয়ে সংস্কৃতের প্রভাব রয়েছে। বাংলা ভাষাটি প্রায় ২৮ কোটি মানুষের মাতৃভাষা এবং বিশ্বের বহুল প্রচলিত ভাষাগুলোর মধ্যে একটি (ভাষাভাষীর সংখ্যানুসারে এর অবস্থান চতুর্থ[২] থেকে সপ্তমের[৩] মধ্যে)। বাংলা ভাষাটি বাংলাদেশের প্রধান (জাতীয় ও সরকারি) ভাষা এবং ভারতে বাংলা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ কথিত ভাষা [৪][৫]অসমীয়া ভাষা এবং বাংলা ভাষাটি কাছাকাছি মনে করা হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

খ্রিস্টীয় প্রথম সহস্রাব্দের শেষ প্রান্তে এসে মধ্য ভারতীয় আর্য ভাষাগুলোর বিভিন্ন অপভ্রংশ থেকে যে আধুনিক ভারতীয় ভাষাগুলোর উদ্ভব ঘটে, তাদের মধ্যে বাংলা একটি [৬]। কোন কোন ভাষাবিদ তারও অনেক আগে, ৫০০ খ্রিস্টাব্দের দিকে, বাংলার জন্ম হয় বলে মত পোষণ করেন। [৭] তবে এ ভাষাটি তখন পর্যন্ত কোন সুস্থির রূপ ধারণ করেনি; সে সময় এর বিভিন্ন লিখিত ও ঔপভাষিক রূপ পাশাপাশি বিদ্যমান ছিল। যেমন, ধারণা করা হয় ৬ষ্ঠ শতাব্দীর দিকে মাগধি অপভ্রংশ থেকে মাগধি অবহট্‌ঠের উদ্ভব ঘটে। এই অবহট্‌ঠ ও বাংলা কিছু সময় ধরে সহাবস্থান করছিল। [৮]

বাংলা ভাষার ইতিহাসকে সাধারণত তিন ভাগে ভাগ করা হয়:[৬]

  1. প্রাচীন বাংলা (৯০০/১০০০ খ্রিস্টাব্দ – ১৪০০ খ্রিস্টাব্দ) — লিখিত নিদর্শনের মধ্যে আছে চর্যাপদ, ভক্তিমূলক গান; আমি, তুমি, ইত্যাদি সর্বনামের আবির্ভাব; ক্রিয়াবিভক্তি -ইলা, -ইবা, ইত্যাদি। ওড়িয়াঅসমীয়া এই পর্বে বাংলা থেকে আলাদা হয়ে যায়।
  2. মধ্য বাংলা (১৪০০–১৮০০ খ্রিস্টাব্দ) — এ সময়কার গুরুত্বপূর্ণ লিখিত নিদর্শন চণ্ডীদাসের শ্রীকৃষ্ণকীর্তন; শব্দের শেষে “অ” ধ্বনির বিলোপ; যৌগিক ক্রিয়ার প্রচলন; ফার্সি প্রভাব। কোন কোন ভাষাবিদ এই যুগকে আদি ও অন্ত্য এই দুই ভাগে ভাগ করেন।
  3. আধুনিক বাংলা (১৮০০ খ্রিস্টাব্দ থেকে) — ক্রিয়া ও সর্বনামের সংক্ষেপন (যেমন তাহারতার; করিয়াছিলকরেছিল)।

বাংলা ভাষা ঐতিহাসিকভাবে পালির সাথে বেশি সম্পর্কিত হলেও মধ্য বাংলায় (চৈতন্য যুগে) ও বাংলা সাহিত্যের আধুনিক রনেসঁসের সময় বাংলার ওপর সংস্কৃত ভাষার প্রভাব বৃদ্ধি পায়। দক্ষিণ এশিয়ার আধুনিক ইন্দো-ইউরোপীয় ভাষাগুলোর মধ্যে বাংলা ও মারাঠি ভাষার শব্দভাণ্ডারে প্রচুর সংস্কৃত শব্দ রয়েছে; অন্যদিকে হিন্দি ও অন্যান্য ভাষাগুলো আরবিফার্সি দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে।

বাংলা ভাষা রক্ষার জন্য আন্দোলনকারীদের স্মরণে নির্মিত ঢাকা-র শহীদ মিনার

১৮শ শতকের পূর্বে বাংলা ভাষার ব্যাকরণ রচনার কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি। পর্তুগিজ মিশনারি পাদ্রি ম্যানুয়েল দ্য আসুম্পসাও Vocabolario em idioma Bengalla, e Portuguez dividido em duas partes নামে বাংলা ভাষার প্রথম অভিধান ও ব্যাকরণ রচনা করেন; ১৭৩৪ থেকে ১৭৪২ সাল পর্যন্ত ভাওয়ালে কর্মরত অবস্থায় তিনি এটি লিখেছিলেন। [৯] ন্যাথানিয়েল ব্রাসি হ্যালহেড নামের এক ইংরেজ প্রাচ্যবিদ বাংলার একটি আধুনিক ব্যাকরণ লেখেন, (A Grammar of the Bengal Language (১৭৭৮)) যেটি ছাপাখানার হরফ (type) ব্যবহার করে প্রকাশিত সর্বপ্রথম বাংলা গ্রন্থ। [১] বাঙালিদের মধ্যে রাজা রামমোহন রায় ছিলেন প্রথম ব্যাকরণ রচয়িতা; তাঁর গ্রন্থের নাম "Grammar of the Bengali Language" (১৮৩২)।. এ সময়ে ক্রমশ সাধুভাষা থেকে সহজতর চলিতভাষার প্রচলন বাড়তে থাকে।[১০]

১৯৫১–৫২ সালে পূর্ব পাকিস্তানে (এখনকার বাংলাদেশে) সংঘটিত "ভাষা আন্দোলনের" ভিত্তি ছিল বাংলা ভাষা। [১১] পাকিস্তানের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ বাংলাভাষী হওয়া সত্ত্বেও শুধুমাত্র উর্দু ভাষাকেই সাংবিধানিক ভাবে রাষ্ট্রীয় ভাষা হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছিল। এর প্রতিবাদে শুরু হয় বাংলা ভাষা আন্দোলন

ভৌগোলিক বিস্তার[সম্পাদনা]

বাংলা দক্ষিণ এশিয়ার পূর্বভাগের "বঙ্গ" বা "বাংলা" নামের অঞ্চলের লোকদের মাতৃভাষা। এই অঞ্চলটি বর্তমানে স্বাধীন রাষ্ট্র বাংলাদেশ ও ভারতীয় রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ সমন্বয়ে গঠিত। বাংলাদেশের প্রায় ৯৮% মানুষের মাতৃভাষা বাংলা। [১২] এছাড়া মধ্যপ্রাচ্য, জাপান, মালয়েশিয়া, যুক্তরাজ্যমার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাভাষী বাস করেন।

সরকারি মর্যাদা[সম্পাদনা]

বাংলা দক্ষিণ এশিয়ার রাষ্ট্র বাংলাদেশের একমাত্র স্বীকৃত রাষ্ট্রভাষা, জাতীয় ভাষা ও সরকারি ভাষা। এছাড়াও ভারতীয় সংবিধান দ্বারা স্বীকৃত ২৩টি সরকারি ভাষার মধ্যে বাংলা অন্যতম।[৪] ভারতের পশ্চিমবঙ্গ এবং ত্রিপুরা রাজ্যের সরকারি ভাষা হল বাংলা[১৩] এবং অসম রাজ্যের বরাক উপত্যকার তিন জেলা কাছাড়, করিমগঞ্জহাইলাকান্দিতে স্বীকৃত সরকারি ভাষা হল বাংলা।[১৪] এছাড়াও বাংলা ভারতের আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের অন্যতম প্রধান স্বীকৃত ভাষা।[১৫][১৬]

ধ্বনিব্যবস্থা[সম্পাদনা]

বাংলা স্বরধ্বনি
সম্মুখ কেন্দ্রীয় পশ্চাৎ
সংবৃত ই~ঈ
i
i
উ~ঊ
u
u
সংবৃত-মধ্য
e
e

ʊ~o
u/o
বিবৃত-মধ্য এ্যা/অ্যা
æ
ê

ɔ
ô
বিবৃত
a
a
বাংলা ব্যঞ্জনধ্বনি
উভয়ৌষ্ঠ্য দন্ত্য দন্তমূলীয় মূর্ধন্য
জিহ্বাগ্র্য-পশ্চাৎ-দন্তমূলীয়
জিহ্ব্য-পশ্চাৎ-দন্তমূলীয় কণ্ঠনালীয়
নাসিক্য

ঞ ~ ণ ~ ন

 
ŋɔ
ngô
 
স্পর্শ অঘোষ


t̪ɔ

ʈɔ
ṭô

tʃɔ~sɔ
chô/sô


অঘোষ
ɸɔ

t̪ʰɔ
thô

ʈʰɔ
ṭhô

tʃʰɔ~ssɔ
chhô/ssô

kʰɔ
khô
ঘোষ


d̪ɔ

ɖɔ
ḍô
জ ~ য
dʒɔ~dzɔ
jô ~ zô

ɡɔ
ঘোষ
bʱɔ
bhô

d̪ʱɔ
dhô

ɖʱɔ
ḍhô

dʒʱɔ
jhô

ɡʱɔ
ghô
উষ্ম

শ ~ ষ
ʃɔ
shô


তরল

তরল

ড় ~ ঢ়
ɽɔ~ɽʱɔ
rô / rhô

নমুনা পাঠ্য[সম্পাদনা]

নিম্নলিখিত বাংলা ভাষাতে মানবাধিকার সনদের প্রথম ধারার নমুনা পাঠ্য:

বাংলা লিপিতে বাংলা ভাষা

ধারা ১: সমস্ত মানুষ স্বাধীনভাবে সমান মর্যাদা এবং অধিকার নিয়ে জন্মগ্রহণ করে। তাঁদের বিবেক এবং বুদ্ধি আছে; সুতরাং সকলেরই একে অপরের প্রতি ভ্রাতৃত্বসুলভ মনোভাব নিয়ে আচরণ করা উচিৎ।

বাংলার রোমানীকরণ

Dhara êk: Sômôstô manush sbadhinbhabe sôman môrzada ebông ôdhikar niye jônmôgrôhôn kôre. Tãder bibek ebông buddhi achhe; sutôrang sôkôleri êke ôpôrer prôti bhratritbôsulôbh mônobhab niye achôrôn kôra uchit.

আন্তর্জাতিক ধ্বনিমূলক বর্ণমালাতে বাংলা ভাষার উচ্চারণ

d̪ʱara æk ʃɔmɔst̪ɔ manuʃ ʃad̪ʱinbʱabe ʃɔman mɔrdʒad̪a ebɔŋ ɔd̪ʱikar nie̯e dʒɔnmɔɡrɔhɔn kɔre. t̪ãd̪er bibek ebɔŋ budd̪ʱːi atʃʰe; sut̪ɔraŋ sɔkɔleri æke ɔpɔrer prɔt̪i bʱrat̪rit̪ːɔsulɔbʱ mɔnobʱab nie̯e atʃɔrɔn kɔra utʃit̪.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ Bengali language in Asiatic Society of Bangladesh 2003
  2. বিশ্বের বহুল ব্যবহুত 50টি কথ্য ভাষা। "The 50 Most Widely Spoken Languages (1996)" 
  3. বিশ্বের সর্বাধিক ব্যবহৃত কথ্য ভাষা। "Most Widely Spoken Languages in the World, This data includes all speakers of the languages, not only native speakers" 
  4. ৪.০ ৪.১ Gordon, Raymond G., Jr. (ed. (2005)। "Languages of India"Ethnologue: Languages of the World, Fifteenth edition.। SIL International। সংগৃহীত 2006-11-17 
  5. "Languages in Descending Order of Strength - India, States and Union Territories - 1991 Census"Census Data Online। Office of the Registrar General, India। পৃ: 1। সংগৃহীত 2006-11-19 
  6. ৬.০ ৬.১ (Bhattacharya 2000)
  7. (Sen 1996)
  8. Abahattha in Asiatic Society of Bangladesh 2003
  9. Rahman, Aminur। "Grammar"Banglapedia। Asiatic Society of Bangladesh। সংগৃহীত 2006-11-19 
  10. Ray, S Kumar। "The Bengali Language and Translation"Translation Articles। Kwintessential। সংগৃহীত 2006-11-19 
  11. (Baxter 1997, পৃ. 62-63)
  12. "Bangladesh"The World Fact Book। CIA। সংগৃহীত 2006-11-04 
  13. Bhattacharjee, Kishalay (April 30, 2008)। "It's Indian language vs Indian language"ndtv.com। সংগৃহীত 2008-05-27 
  14. NIC, Assam State Centre, Guwahati, Assam। "Language"। Government of Assam। আসল থেকে 2006-12-06-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত 2006-06-20 
  15. "Profile: A&N Islands at a Glance"Andaman DistrictNational Informatics Center। সংগৃহীত 2008-05-27 
  16. "Andaman District"Andaman & Nicobar Police। National Informatics Center। সংগৃহীত 2008-05-27 

গ্রন্থ ও রচনাপঞ্জি[সম্পাদনা]

  • Haldar, Gopal (2000), Languages of India, National Book Trust, India, ISBN 81-237-2936-7.
  • Alam, M (2000), Bhasha Shourôbh: Bêkorôn O Rôchona (The Fragrance of Language: Grammar and Rhetoric), S. N. Printers, Dhaka.
  • Asiatic Society of Bangladesh (2003), Banglapedia, the national encyclopedia of Bangladesh, Asiatic Society of Bangladesh, Dhaka.
  • Cardona, G & D Jain (2003), The Indo-Aryan languages, RoutledgeCurzon, London.
  • Chatterji, SK (1921), "Bengali Phonetics", Bulletin of the School of Oriental and African Studies.
  • Chatterji, SK (1926), The Origin and Development of the Bengali Language.
  • Ferguson, CA & M Chowdhury (1960), "The Phonemes of Bengali", Language, 36(1), Part 1.
  • Hayes, B & A Lahiri (1991), "Bengali intonational phonology", Natural Language & Linguistic Theory (Springer Science).
  • Klaiman, MH (1987), "Bengali", in Bernard Comrie, The World's Major Languages, Croon Helm, London and Sydney, ISBN 0195065115.
  • Masica, C (1991), The Indo-Aryan Languages, Cambridge Univ. Press.
  • Radice, W (1994), Teach Yourself Bengali: A Complete Course for Beginners, NTC/Contemporary Publishing Company, ISBN 0844237523.
  • Ray, P; MA Hai & L Ray (1966), Bengali language handbook, Center for Applied Linguistics, Washington, ISBN এএসআইএন B000B9G89C.
  • Sen, D (1996), Bengali Language and Literature, International Centre for Bengal Studies, Calcutta.
  • Bhattacharya, T (2000), "Bangla (Bengali)", in Gary, J. and Rubino. C., Encyclopedia of World's Languages: Past and Present (Facts About the World's Languages), WW Wilson, New York, ISBN 0824209702, <http://www.homepages.ucl.ac.uk/~uclyara/bong_us.pdf>.
  • Baxter, C (1997), Bangladesh, From a Nation to a State, Westview Press, ISBN 0813336325.
  • Bonazzi, E (2008), Grammatica Bengali, Libreria Bonomo Editrice, ISBN 9788860710178.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]