লোহাগড়া উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লোহাগড়া
উপজেলা
লোহাগড়া বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
লোহাগড়া
লোহাগড়া
বাংলাদেশে লোহাগড়া উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°১০′৪৭″ উত্তর ৮৯°৩৯′৩৮″ পূর্ব / ২৩.১৭৯৭২° উত্তর ৮৯.৬৬০৫৬° পূর্ব / 23.17972; 89.66056স্থানাঙ্ক: ২৩°১০′৪৭″ উত্তর ৮৯°৩৯′৩৮″ পূর্ব / ২৩.১৭৯৭২° উত্তর ৮৯.৬৬০৫৬° পূর্ব / 23.17972; 89.66056 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগখুলনা বিভাগ
জেলানড়াইল জেলা
আয়তন
 • মোট২৯০.৮৩ কিমি (১১২.২৯ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট২,২৭,৪৪৭
 • জনঘনত্ব৭৮০/কিমি (২০০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৬৫%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৭৫১১ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৪০ ৬৫ ৫২
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

লোহাগড়া উপজেলা বাংলাদেশের নড়াইল জেলার একটি প্রশাসনিক এলাকা।

অবস্থান ও আয়তন[সম্পাদনা]

লোহাগাড়া উপজেলার মোট আয়তন ২৮৪.৯১ বর্গকিলোমিটার (১১০.০০ মা).[২] উত্তরে মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলা, পূর্বে গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলা, দক্ষিণে নড়াইল জেলার কালিয়া উপজেলা এবং পশ্চিমে নড়াইল সদর উপজেলা অবস্থিত।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

এই উপজেলার ইউনিয়নগুলো হচ্ছে -

  1. নলদী ইউনিয়ন
  2. লাহুড়িয়া ইউনিয়ন
  3. শালনগর ইউনিয়ন
  4. নোয়াগ্রাম ইউনিয়ন
  5. লক্ষীপাশা ইউনিয়ন
  6. জয়পুর ইউনিয়ন
  7. লোহাগড়া ইউনিয়ন
  8. দিঘলিয়া ইউনিয়ন
  9. মল্লিকপুর ইউনিয়ন
  10. কোটাকোল ইউনিয়ন
  11. ইতনা ইউনিয়ন
  12. কাশিপুর ইউনিয়ন

ইতিহাস[সম্পাদনা]

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

লোহাগড়া উপজেলায় ৫ টি কলেজ, ৩৪ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৩ টি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ১৫৫ টি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ৮ টি মাদ্রাসা রয়েছে। এবং রামনারায়ন পাবলিক লাইব্রেরি (1901) নামে একটা লাইব্রেরি আছে

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

নদ-নদী[সম্পাদনা]

লোহাগড়া উপজেলায় অনেকগুলো নদী রয়েছে। নদীগুলো হচ্ছে নবগঙ্গা নদীমধুমতি নদী[৩][৪]

বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

কবি ও শিশুসাহিত্যিক  ইমরান পরশ[সম্পাদনা]

আরও[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে লো্‌হাগড়া উপজেলা"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। ১৬ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জানুয়ারি ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; district-stats নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৩৯০, আইএসবিএন ৯৭৮-৯৮৪-৮৯৪৫-১৭-৯
  4. মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক (ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। বাংলাদেশের নদনদী: বর্তমান গতিপ্রকৃতি। ঢাকা: কথাপ্রকাশ। পৃষ্ঠা ৬১২। আইএসবিএন 984-70120-0436-4 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]