নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ
নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজের লোগো.jpg
Narail Government Victoria College.jpg
বিজ্ঞান ভবন
ঠিকানা
রতনগঞ্জ

,
৭৫০১

বাংলাদেশ
তথ্য
ধরনসরকারি কলেজ
নীতিবাক্যজ্ঞানই শক্তি
প্রতিষ্ঠাকাল১৮৮৬; ১৩৫ বছর আগে (1886)
প্রতিষ্ঠাতারামরতন রায়
বিদ্যালয় বোর্ডমাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, যশোর
বিদ্যালয় কোড১১৮৫২৭ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
অধ্যক্ষরবিউল ইসলাম
উপাধ্যক্ষখান শাহাবুদ্দীন
শিক্ষার্থী সংখ্যা৮৬৬১ জন
আয়তন১৩ একর ৮৫ শতক
অন্তর্ভুক্তিজাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ
ওয়েবসাইট

নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজ নড়াইল জেলা সদরে অবস্থিত বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। ১৮৮৬ খ্রিষ্টাব্দে তৎকালীন স্থানীয় জমিদারদের প্রচেষ্টায় ঐতিহ্যবাহী এ কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৮০ খ্রিস্টাব্দে কলেজটি সরকারীকরণ করা হয়। তখন থেকে একে নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ নামেও আখ্যায়িত করা করা হয়। ১৯৯৭ খ্রিষ্টাব্দে এ কলেজে ব্যাচেলরস অনার্স কোর্স চালু হয়। বর্তমানে (২০০৯) ৯টি বিষয়ে ব্যাচেলরস অনার্স ও ৪টি বিষয়ে মাস্টার্স কোর্স চালু আছে। ২০০৩-০৪ শিক্ষাবর্ষ থেকে কলেজটিতে বাংলা, দর্শন, ব্যবস্থাপনা ও গণিত বিষয়ে মাস্টার্স কোর্স চালু করা হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৫৭ সালে নড়াইলের জমিদার রতন রায় কর্তৃক নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। রতন রায়ের ছেলে চন্দ্র রায়ের উদ্যোগে রূপগঞ্জ এলাকায় অবস্থিত এ স্কুলটির ভবনেই ১৮৮৬ সালে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। ব্রিটেনের রাণী ভিক্টোরিয়ার নামানুসারে এ কলেজটির নাম রাখা হয় নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজ[১]

১৮৮৬ সালে কলেজটি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছ থেকে উচ্চমাধ্যমিক স্তরে এফ.এ কোর্স (মানবিক) চালু করার অনুমতি পায়। এর চার বছর পর, ১৮৯০ সালে স্কুল এবং কলেজকে আলাদা করা হয়। সে বছরই কলেজটিতে মানবিক বিভাগে স্নাতক পর্যায়ের পাঠদান শুরু হয়। ১৯২৪ সালে প্রতিষ্ঠানটিতে উচ্চমাধ্যমিক স্তরে বিজ্ঞান বিভাগের যাত্রা শুরু হয়।

ভারত ভাগের পর, ১৯৬৪ সালে উচ্চমাধ্যমিক এবং ১৯৬৬ স্নাতক পর্যায়ে ব্যবসায় শিক্ষা শাখা প্রতিষ্ঠা করা হয়। ১৯৬৭ সালে চালু হয় বি.এসসি কোর্স। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর, ১৯৮০ সালের ১ মার্চ কলেজটি সরকারিকরণ করা হয়। ফলে কলেজটি নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ নাম ধারণ করে।[১]

অধ্যক্ষবৃন্দ[সম্পাদনা]

কলেজটির প্রথম অধ্যক্ষ ছিলেন যোগেন্দ্রনাথ সেন।[১] জাতীয়করণের পর কলেজটিতে অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন:[২]

নং অধ্যক্ষের নাম কার্যকাল
০১ আসমত আলী আকন ১৯৮০—১৯৮৭
০২ মুহঃ হারুন উর রশীদ ১৯৮৮—১৯৮৯
০৩ মোঃ শমশের আলী ১৯৮৯—১৯৯২
০৪ মোঃ মাহফুজুর রহমান শিকদার ১৯৯২—১৯৯৩
০৫ মোঃ নাজিম উদ্দিন ১৯৯৩
০৬ মোঃ তবিবুর রহমান ১৯৯৩—১৯৯৪
০৭ মোঃ আব্দুল গফুর ১৯৯৪—১৯৯৮
০৮ শেখ আব্দুর রউফ ১৯৯৯
০৯ মোঃ রুস্তম শিকদার ১৯৯৯
১০ মোঃ আহমদ আলী সরদার ২০০০
১১ ঘোষ মধুসুদন ২০০০
১২ মোঃ আব্দুল হাই ২০০১
১৩ মোঃ নুরুল ইসলাম ২০০২—২০০৩
১৪ ফিরোজ আহামদ ২০০৩—২০০৫
১৫ মোঃ শাহজাহান মিয়া ২০০৬—২০০৭
১৬ অশোক কুমার শীল ২০০৭—২০০৮
১৭ সুধীর কুমার পাল ২০০৮—২০০৯
১৮ গোবিন্দ চন্দ্র নাগ ২০০৯
১৯ পরিমল মজুমদার ২০০৯—২০১১
২০ মোঃ রবিউল ইসলাম ২০১১
২১ শেখ আনোয়ার হোসেন ২০১৩—২০১৬
২২ মুহম্মদ সামাদ উল্লাহ মজুমদার ২০১৬—২০১৮
২৩ মোঃ আব্দুস সবুর খান ২০১৮
২৪ মোঃ রবিউল ইসলাম ২০১৮—বর্তমান

উল্লেখযোগ্য শিক্ষার্থী[সম্পাদনা]

কলেজটির প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন:

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. পরিমল মজুমদার (২০১২)। "নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজ"ইসলাম, সিরাজুল; মিয়া, সাজাহান; খানম, মাহফুজা; আহমেদ, সাব্বীর। বাংলাপিডিয়া: বাংলাদেশের জাতীয় বিশ্বকোষ (২য় সংস্করণ)। ঢাকা, বাংলাদেশ: বাংলাপিডিয়া ট্রাস্ট, বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটিআইএসবিএন 9843205901ওএল 30677644Mওসিএলসি 883871743। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০২১ 
  2. "দায়িত্ব পালনকারী অধ্যক্ষবৃন্দের নাম"নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০২১ 
  3. "Dr. Quazi Sazzad Hossain"খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৯ ডিসেম্বর ২০২১ 
  4. "মাশরাফি বিন মর্তুজার জন্মদিন আজ"ইত্তেফাক। ৫ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৯ ডিসেম্বর ২০২১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]