দিল্লি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
দিল্লি
दिल्ली, ਦੇਹਲੀ
জাতীয় রাজধানী অঞ্চল
ভারতের জাতীয় রাজধানী অঞ্চল
উপর থেকে ঘড়ি সমাবর্তী দিকে: লোটাস টেম্পল, রাষ্ট্রপতি ভবন, হুমায়ুনের সমাধি, ইন্ডিয়া গেট এবং অক্ষরধাম (দিল্লি)
উপর থেকে ঘড়ি সমাবর্তী দিকে: লোটাস টেম্পল, রাষ্ট্রপতি ভবন, হুমায়ুনের সমাধি, ইন্ডিয়া গেট এবং অক্ষরধাম (দিল্লি)
নাম(সমূহ): দিল্লি (হিন্দি: दिल्ली) (পাঞ্জাবি: ਦੇਹਲੀ)
দিল্লি ভারত-এ অবস্থিত
দিল্লি
দিল্লি
ভারতে দিল্লির অবস্থান।
স্থানাঙ্ক: ২৮°৩৬′৩৬″ উত্তর ৭৭°১৩′৪৮″ পূর্ব / ২৮.৬১০০০° উত্তর ৭৭.২৩০০০° পূর্ব / 28.61000; 77.23000স্থানাঙ্ক: ২৮°৩৬′৩৬″ উত্তর ৭৭°১৩′৪৮″ পূর্ব / ২৮.৬১০০০° উত্তর ৭৭.২৩০০০° পূর্ব / 28.61000; 77.23000
দেশ  ভারত
বসতি ১৬৩৮
অন্তর্ভূক্ত ১৮৫৭
রাজধানী গঠন ১৯১১
সরকার
 • মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল (আম আদমি পার্টি)
 • উপ-রাজ্যপাল নাজেব জুং
আয়তন
 • জাতীয় রাজধানী অঞ্চল [.০
 • ভূমি ১,৫৯০.০
 • পানি ১৮.০
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • জাতীয় রাজধানী অঞ্চল ১,২৫,৬৫,৯০১
 • স্থান ২য়
 • ঘনত্ব ১১,২৯৭.১২
 • মেট্রো[২] ১,৬৩,১৪,৮৩৮
 • মহানগর ২,১৭,৫৩,৪৮৬
জাতীয়তাসূচক বিশেষণ Delhiite
সময় অঞ্চল ভারতীয় প্রমাণ সময় (ইউটিসি+৫:৩০)
পিন কোড ১১০০০১-১১০০৯৮, ১১০০xx
এলাকা কোড(সমূহ) +৯১ ১১
Ethnicity হিন্দি, পাঞ্জাবি, বিহারি
ঐতিহাসিক নাম ইন্দ্রাপ্রাস্থা (প্রায় ৫০০০ খ্রিস্টপূর্ব)[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] , হাস্তিনাপুর, লাল কোট (৭৩৬ খ্রিস্টাব্দে), কিলা রাই পিথোরা (১১৮০ খ্রিস্টাব্দে), দিল্লি (১২০৬ খ্রিস্টাব্দ থেকে)
ওয়েবসাইট delhi.gov.in

দিল্লি (সরকারি নাম ভারতের জাতীয় রাজধানী অঞ্চল) উর্দু: دلّی dillī) ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম মহানগরাঞ্চল। ১৫.৯ অধিবাসীর আবাসস্থল দিল্লি জনসংখ্যার বিচারে পৃথিবীর অষ্টম বৃহত্তম মহানগরীয় এলাকাও বটে।[৩] দিল্লি নামটির দ্বারা ভারতের রাজধানী নতুন দিল্লি এবং জাতীয় রাজধানী অঞ্চলের নিকটবর্তী ও উক্ত অঞ্চলের অন্তর্গত কিছু নগরাঞ্চলকেও বোঝায়। দিল্লি একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল। এশিয়ার বৃহত্তম আবাসন কলোনি দ্বারকা উপনগর দিল্লিতেই অবস্থিত।

যমুনা নদীর তীরে অবস্থিত দিল্লি অঞ্চলে জনবসতির উন্মেষ ঘটে খ্রিষ্টপূর্ব ষষ্ঠ শতকে।[৪] দিল্লি সুলতানির উত্থানের সঙ্গে সঙ্গে দিল্লি উত্তর-পশ্চিম ভারত ও গাঙ্গেয় সমভূমি অঞ্চলের মধ্যস্থলে অবস্থিত এক গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও বাণিজ্যিক নগররূপে বিকশিত হয়ে ওঠে।[৫][৬] দিল্লি অঞ্চলে একাধিক প্রাচীন ও মধ্যযুগীয় সৌধ, প্রত্নস্থল ও প্রত্নতাত্ত্বিক ধ্বংসাবশেষের দেখা মেলে। ১৬৩৯ খ্রিস্টাব্দে মুঘল সম্রাট শাহজাহান শাহজাহানাবাদ নামে দিল্লিতে একটি দূর্গনগরী স্থাপন করেন। এই শহর ১৬৪৯ খ্রিস্টাব্দ থেকে ১৮৫৭ খ্রিস্টাব্দ অবধি ছিল মুঘল সাম্রাজ্যের রাজধানী।[৭][৮]

অষ্টাদশ ও ঊনবিংশ শতাব্দীতে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি ভারতের অধিকাংশ অঞ্চলে আধিপত্য বিস্তারের পর কলকাতায় রাজধানী স্থানান্তরিত হয়। কোম্পানির শাসনকালে ও পরে ব্রিটিশ রাজত্বে দীর্ঘকাল কলকাতা ছিল ভারতের রাজধানী। ১৯১১ সালে রাজা পঞ্চম জর্জ পুনরায় দিল্লিতে রাজধানী স্থানান্তরিত করেন। ১৯২০-এর দশকে পুরনো দিল্লির দক্ষিণে নতুন দিল্লি নামে এক নতুন রাজধানী শহর নির্মিত হয়।[৯] ১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ সরকারের কাছ থেকে স্বাধীনতা অর্জনের পর নতুন দিল্লি ভারতের রাজধানী তথা সরকার কেন্দ্র বলে ঘোষিত হয়। ভারতীয় সংসদ সহ যুক্তরাষ্ট্রের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ কার্যালয় নতুন দিল্লিতে অবস্থিত।

বর্তমানে সারা দেশ থেকে বিভিন্ন ভাষা ও জাতির মানুষ দিল্লিতে এসে বসবাস শুরু করায় দিল্লি একটি বহুজাতিক মহানগরে পরিণত হয়েছে। দ্রুত উন্নয়ন ও নগরায়নের সঙ্গে সঙ্গে দিল্লিবাসীদের গড় আয় তুলনামূলকভাবে বেশি হওয়ায় বর্তমানে দিল্লির অবস্থার অনেক পরিবর্তন ঘটেছে।[১০] আজ দিল্লি ভারতের এক অতি গুরুত্বপূর্ণ সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও বাণিজ্যিক কেন্দ্র।

A view of a road at Connaught Place showing busy traffic
Connaught Place in Delhi is an important economic hub of the National Capital Region

নাম[সম্পাদনা]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ভূগোল[সম্পাদনা]

জলবায়ু[সম্পাদনা]

নগর প্রশাসন[সম্পাদনা]

সরকার ব্যবস্থা ও রাজনীতি[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

পরিষেবা[সম্পাদনা]

পরিবহণ[সম্পাদনা]

বিমান[সম্পাদনা]

রেলপথ[সম্পাদনা]

মেট্রো[সম্পাদনা]

স্থানীয় দ্রুত পরিবহণ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

সড়কপথ[সম্পাদনা]

জনপরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

সংস্কৃতি[সম্পাদনা]

উৎসব[সম্পাদনা]

প্রগতি ময়দানে আয়োজিত দ্বি-বার্ষিক অটো এক্সপো। এখানে ভারতীয় অটোমোবাইল শিল্পের নতুন নতুন উদ্ভাবনাগুলির প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

ভারতের রাজধানী নতুন দিল্লি দিল্লি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের একটি অংশ হওয়ায় সাধারণতন্ত্র দিবস, স্বাধীনতা দিবসগান্ধী জয়ন্তী - ভারতের এই তিনটি জাতীয় দিবস এখানে বিশেষ সমারোহের সঙ্গে উদযাপিত হয়। স্বাধীনতা দিবসে (১৫ অগস্ট) ভারতের প্রধানমন্ত্রী লাল কেল্লা থেকে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন। এই দিন দিল্লির অধিবাসীরা ঘুড়ি উড়িয়ে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করেন।[১১] দিল্লির সাধারণতন্ত্র দিবস কুচকাওয়াজ একটি বিরাট সাংস্কৃতিক ও সামরিক কুচকাওয়াজ। এই কুচকাওয়াজে ভারতের সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য ও সামরিক শক্তি প্রদর্শিত হয়।[১২][১৩] কয়েক শতাব্দী ধরে, দিল্লি বহুত্ববাদী সংস্কৃতির জন্য পরিচিত। দিল্লিতে প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাসে "ফুলওয়ালো কি সায়র" নামে একটি উৎসব হয়। এই উৎসবের সময় মেহরাউলিতে অবস্থিত ত্রয়োদশ শতাব্দীর সুফি সন্ত খাজা বখতিয়ার কাকিযোগমায়া মন্দিরে ফুল ও ফুলবসানো "ফাঁকে" পাখা উৎসর্গ করা হয়।[১৪]

A view of Pragati Maidan from inside
প্রগতি ময়দানে প্রতি বছর "বিশ্ব বইমেলা" আয়োজিত হয়

দিল্লির ধর্মীয় উৎসবগুলির মধ্যে দীপাবলি, মহাবীর জয়ন্তী, গুরু নানক জয়ন্তী, দুর্গাপূজা, হোলি, লোহরি, চৌথ, কৃষ্ণ জন্মাষ্টমী, মহাশিবরাত্রি, ঈদ উল-ফিতর, মহরমবুদ্ধজয়ন্তী উল্লেখযোগ্য।[১৩] কুতুব উৎসব দিল্লির একটি বিখ্যাত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। কুতুব মিনারের প্রেক্ষাপটে ভারতের সব অঞ্চলের গায়ক ও নর্তকদের নিয়ে এই অনুষ্ঠান উদযাপিত হয়।[১৫] অন্যান্ন্য উৎসবগুলির মধ্যে ঘুড়ি ওড়ানোর উৎসব, আন্তর্জাতিক আম উৎসববসন্ত পঞ্চমী বিশেষ উল্লেখযোগ্য। অটো এক্সপো এশিয়ার বৃহত্তম গাড়ি মেলা।[১৬] এটি প্রতি দুই বছর অন্তর দিল্লিতে আয়োজিত হয়। প্রগতি ময়দানে প্রতি বছর আয়োজিত বিশ্ব বইমেলা বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম বই প্রদর্শনী।[১৭] প্রচুর বই বিক্রি হয় বলে দিল্লিকে ভারতের "বই রাজধানী"ও বলা হয়।[১৮]

খাদ্যাভ্যাস[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

গণমাধ্যম[সম্পাদনা]

খেলাধূলা[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক[সম্পাদনা]

দিল্লি এশীয় প্রধান মহানগর নেটওয়ার্ক ২১-এর সদস্য।

ভগিনী নগরী[সম্পাদনা]

দিল্লি নিম্নলিখিত শহরগুলির ভগিনী নগরী:[১৯]

শহর ভৌগোলিক অবস্থান দেশ তারিখ
সেওউল সেওউল জাতীয় রাজধানী অঞ্চল  দক্ষিণ কোরিয়া
শিকাগো টেমপ্লেট:Country data ইলিনইস  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২০০১[২০]
লন্ডন  ইংল্যান্ড  যুক্তরাজ্য ২০০২[২১]
সিডনি টেমপ্লেট:Country data নিউ সাউথ ওয়েলস  অস্ট্রেলিয়া
কুয়ালা লামপুর টেমপ্লেট:Country data Kuala Lumpur কুয়ালা লামপুর যুক্তরাষ্ট্রীয় অঞ্চল  মালয়েশিয়া
মস্কো  মস্কো  রাশিয়া ২০০২[২২]
টোকিও কান্টো অঞ্চল (হোনশু দ্বীপ)  জাপান
উলান বাটোর মধ্য-পূর্ব মঙ্গোলিয়া  মঙ্গোলিয়া ২০০২[২২]
সেন্ট পিটার্সবার্গ টেমপ্লেট:Country data সেন্ট পিটার্সবার্গ  রাশিয়া ২০০২[২২]
প্যারিস (সহযোগী শহর) টেমপ্লেট:Country data ইল-দে-ফ্রান্স  ফ্রান্স ২০০৬[২৩]
ইয়েরেভান (সহযোগী শহর) Yerevan flag.gif ইয়েরেভান  আর্মেনিয়া ২০০৮[২৪]
ফুকুওকা প্রিফ্যাকচিওর (যমজ অঞ্চল) ক্যাশু  জাপান ২০০৭

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Census of India: Provisional Population Totals for Census 2011 : NCT of Delhi"। Censusindia.gov.in। সংগৃহীত ২ মে ২০১১ 
  2. "Urban agglomerations/cities having population 1 million and above" (PDF)। Provisional population totals, census of India 2011। Registrar General & Census Commissioner, India। ২০১১। সংগৃহীত ২৬ জানুয়ারি ২০১২ 
  3. "World Urbanization Prospects: The 2007 Revision Population Database"। UN। সংগৃহীত ২০০০-০৩-১৩ 
  4. Asher, Catherine B (২০০০) [২০০০]। "Chapter 9:Delhi walled: Changing Boundaries"। in James D. Tracy। City Walls। Cambridge University Press। পৃ: 247–281। আইএসবিএন 0521652219। সংগৃহীত ২০০৮-১১-০১ 
  5. Necipoglu, Gulru (২০০২) [২০০২]। "Epigraphs, Scripture, and Architecture in the Early Sultanate of Delhi"Muqarnas: An Annual on the Visual Culture of the Islamic World। BRILL। পৃ: 12–43। আইএসবিএন 9004125930। সংগৃহীত ২০০৮-১১-০১ 
  6. Aitken, Bill (২০০১) [২০০২]। Speaking Stones: World Cultural Heritage Sites in India। Eicher Goodearth Limited। পৃ: 264 pages। আইএসবিএন 8187780002। সংগৃহীত ২০০৮-১১-০১ 
  7. The Encyclopedia Americana: A Library of Universal Knowledge 8। Encyclopedia Americana Corp। ১৯১৮। পৃ: ৬২১। সংগৃহীত ১ নভেম্বর ২০০৮ 
  8. Sehgal, R.L. (১৯৯৮) [১৯৯৮]। Slum Upgradation: Emerging Issue & Policy Implication's। Bookwell Publications। পৃ: ৯৭। আইএসবিএন 978-81-85040-18-9। সংগৃহীত ১ নভেম্বর ২০০৮ 
  9. Vale, Lawrence J. (১৯৯২)। Architecture, power, and national identity। Yale University Press। পৃ: 88–100। আইএসবিএন 978-0-300-04958-9। সংগৃহীত ১ নভেম্বর ২০০৮ 
  10. Dayal, Ravi (July ২০০২)। "A Kayastha’s View"Seminar (web edition) (515)। সংগৃহীত ২০০৭-০১-২৯  |month= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)
  11. "Independence Day"123independenceday.com। Compare Infobase Limited। সংগৃহীত ৪ জানুয়ারি ২০০৭ 
  12. Ray Choudhury, Ray Choudhury (২৮ জানুয়ারি ২০০২)। "R-Day parade, an anachronism?"। The Hindu Business Line। সংগৃহীত ১৩ জানুয়ারি ২০০৭ 
  13. ১৩.০ ১৩.১ "Fairs & Festivals of Delhi"Delhi Travel। India Tourism.org। আসল থেকে ১৯ মার্চ ২০০৭-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ১৩ জানুয়ারি ২০০৭ 
  14. Delhi: a portrait, by Khushwant Singh, Raghu Rai, Published by Delhi Tourism Development Corp., 1983. ISBN 978-0-19-561437-4. Page 15.
  15. Tankha, Madhur (১৫ ডিসেম্বর ২০০৫)। "It's Sufi and rock at Qutub Fest"New Delhi (Chennai, India: The Hindu)। সংগৃহীত ১৩ জানুয়ারি ২০০৭ 
  16. "The Hindu: Front Page: Asia’s largest auto carnival begins in Delhi tomorrow"। Chennai, India: Thehindu.com। ৯ জানুয়ারি ২০০৮। সংগৃহীত ৩ নভেম্বর ২০০৮ 
  17. "Delhi Metro records 10% rise in commuters-Delhi-Cities-The Times of India"। Timesofindia.indiatimes.com। ১ জুলাই ২০০৮। সংগৃহীত ৩ নভেম্বর ২০০৮ 
  18. Sunil Sethi / New Delhi 9 February 2008। "Sunil Sethi: Why Delhi is India's Book Capital"। Business-standard.com। সংগৃহীত ৩ নভেম্বর ২০০৮ 
  19. "Delhi to London, it's a sister act"। India Times। ৭ জুলাই ২০০২। সংগৃহীত ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৯ 
  20. "Sister cities of Chicago"। সংগৃহীত ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  21. "Friendship agreement to be signed between London and Delhi"। সংগৃহীত ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  22. ২২.০ ২২.১ ২২.২ "Sister-City Agreements"। সংগৃহীত ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  23. "Paris wants 'sister-city' relationship with Delhi"। সংগৃহীত ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  24. "Yerevan - Partner Cities"Yerevan Municipality Official Website। © 2005—2013 www.yerevan.am। সংগৃহীত ২০১৩-১১-০৪ 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

সরকার
অন্যান্য