দিল্লির লৌহস্তম্ভ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
দিল্লির লৌহস্তম্ভ
লেখ বিবরণী

ভারতের দিল্লির লৌহস্তম্ভ একটি ৭ মিটার (২২ ফুট) উঁচু স্তম্ভ।[১] এটি কুতুব চত্বরে স্থিত। এই নির্মাণে ধাতুর ব্যবহার আজও বিস্ময়ের উপাদান।

স্তম্ভটির ওজন ৬ টনের কিছু বেশি। এটি দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্তের রাজত্বকালে (৩৭৫-৪১৩ খ্রিস্টাব্দ) নির্মিত। অন্য মতে, ৯১২ খ্রিস্টপূর্বাব্দে নির্মিত।[২] লৌহস্তম্ভটি অতীতে সাতাশটি জৈন মন্দির নিয়ে গঠিত একটি চত্বরের কেন্দ্রে অবস্থিত ছিল। কুতুবুদ্দিন আইবক মন্দিরগুলি ভেঙে তার মালমশলা দিয়ে উক্ত চত্বরে কুয়াত-উল-ইসলাম মসজিদকুতুব মিনার নির্মাণ করেন।[৩]

পুরাতাত্ত্বিক ও ধাতুবিদ্যা বিশারদেরা দিল্লির লৌহস্তম্ভকে "প্রাচীন ভারতের ধাতুবিদ্যার উন্নতির একটি উল্লেখযোগ্য নিদর্শন" মনে করেন। কারণ এই লৌহস্তম্ভের মরচে প্রতিরোধ ক্ষমতা অত্যন্ত বেশি।[৪][৫]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. Joshi, M.C. (২০০৭)। "The Mehrauli Iron Pillar"। Delhi: Ancient History (Berghahn Books)। আইএসবিএন 9788187358299 
  2. Arnold Silcock; Maxwell Ayrton (reprinted ২০০৩)। Wrought iron and its decorative use: with 241 illustrations। Mineola, N.Y: Dover। পৃ: 4। আইএসবিএন 0-486-42326-3 
  3. Jāvīd, Ali Javid, ʻAlī Jāvīd, Tabassum Javeed; Javeed, Tabassum (২০০৮)। "World Heritage Monuments and Related Edifices in India"Pg.107আইএসবিএন 9780875864822। সংগৃহীত ২০০৯-০৫-২৭  একের অধিক |first1= এবং |first= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)
  4. Waseda, Yoshio; Shigeru Suzuki (২০০৬)। "Characterization of corrosion products on steel surfaces"Pg.viiআইএসবিএন 9783540351771। সংগৃহীত ২০০৯-০৫-২৭  |coauthors= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)
  5. On the Corrosion Resistance of the Delhi Iron Pillar, R. Balasubramaniam, Corrosion Science, Volume 42 (2000) pp. 2103-2129.] “Corrosion Science” is a publication specialized in corrosion science and engineering.

তথ্যপঞ্জি[সম্পাদনা]

  • King Chandra and the Mehrauli Pillar, M.C. Joshi, S.K. Gupta and Shankar Goyal, Eds., Kusumanjali Publications, Meerut, 1989.
  • The Rustless Wonder – A Study of the Iron Pillar at Delhi, T.R. Anantharaman, Vigyan Prakashan, New Delhi, 1996.
  • Delhi Iron Pillar: New Insights. R. Balasubramaniam, Delhi: Aryan Books International and Shimla: Indian Institute of Advanced Studies, 2002, Hardbound, ISBN-81-7305-223-9. [১] [২]
  • The Delhi Iron Pillar : Its Art, Metallurgy and Inscriptions, M.C. Joshi, S.K. Gupta and Shankar Goyal, Eds., Kusumanjali Publications, Meerut, 1996.
  • The World Heritage Complex of the Qutub, R Balasubramaniam, Aryan Books International, New Delhi, 2005, Hardbound, ISBN 81-7305-293-X.
  • Story of the Delhi Iron Pillar, R Balasubramaniam, Foundation Books, New Delhi, 2005, Paperback, ISBN-81-7596-278-X.
  • Delhi Iron Pillar (in two parts), R. Balasubramaniam, IIM Metal News Volume 7, No. 2, April 2004, pp. 11–17. and IIM Metal News Volume 7, No. 3, June 2004, pp. 5–13. [৩]
  • New Insights on the 1600-Year Old Corrosion Resistant Delhi Iron Pillar, R. Balasubramaniam, Indian Journal of History of Science, 36 (2001) 1-49. [৪]
  • The Early use of Iron In India. Dilip K. Chakrabarti. 1992. New Delhi: The Oxford University Press.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ২৮°৩১′২৮.৭৬″ উত্তর ৭৭°১১′৬.২৫″ পূর্ব / ২৮.৫২৪৬৫৫৬° উত্তর ৭৭.১৮৫০৬৯৪° পূর্ব / 28.5246556; 77.1850694