আগ্রা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আগ্রা
শহর
Taj Mahal 2012.jpg
আগ্রা উত্তর প্রদেশ-এ অবস্থিত
আগ্রা
আগ্রা
উত্তর প্রদেশ, ভারতে অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৭°১১′উত্তর ৭৮°০১′পূর্ব / ২৭.১৮° উত্তর ৭৮.০২° পূর্ব / 27.18; 78.02স্থানাঙ্ক: ২৭°১১′উত্তর ৭৮°০১′পূর্ব / ২৭.১৮° উত্তর ৭৮.০২° পূর্ব / 27.18; 78.02
দেশ  ভারত
রাজ্য উত্তর প্রদেশ
জেলা আগ্রা
আয়তন
 • মোট ১৮৮.৪০ কিমি (৭২.৭৪ বর্গমাইল)
উচ্চতা ১৭১ মিটার (৫৬১ ফুট)
জনসংখ্যা (2008)
 • মোট ১৬,৫০,০০০
 • ঘনত্ব ৮৮০০/কিমি (২৩০০০/বর্গমাইল)
ভাষা
সময় অঞ্চল আইএসটি (ইউটিসি+৫:৩০)
পিন 282 XXX
টেলিফোন কোড 91(562)
যানবাহন নিবন্ধন UP-80
ওয়েবসাইট agra.nic.in

আগ্রা (হিন্দি ভাষায়: आगरा; উর্দু ভাষায়: آگرہ) উত্তর ভারতের উত্তর প্রদেশ অঙ্গরাজ্যে আগ্রা জেলার রাজধানী শহর।[১] শহরটি যমুনা নদীর তীরে অবস্থিত। আগ্রা একটি রেলওয়ে জংশন এবং আশেপাশের কৃষি এলাকার জন্য এটি একটি বাণিজ্যিক ও শিল্পকেন্দ্র হিসেবে কাজ করে। আগ্রা শহরে তুলা, খাদ্যশস্য, তামাক, লবণ ও চিনির পাইকারি বাণিজ্য হয়। এখানকার কলকারখানায় খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ এবং সুতির টেক্সটাইল, কার্পেট, লোহা ও ইস্পাত উৎপাদন সম্পন্ন হয়। আগ্রাতে প্রায় সাড়ে ১৬ লক্ষ লোকের বাস।

আগ্রাতে অবস্থিত ঐতিহাসিক সৌধগুলির মধ্যে সবচেয়ে বিখ্যাত হল পৃথিবীর সপ্তম আশ্চর্যের এক আশ্চর্য তাজমহল[১][২] আগ্রা আরও বেশ কিছু ইন্দো-সারাসেনীয় স্থাপত্যকর্মের জন্য বিখ্যাত, যাদের মধ্যে আছে মুঘল সম্রাট আকবরের জন্য নির্মিত শ্বেত মর্মরের জাহাঙ্গিরি মহল এবং ১৭শ শতকের শুরুর দিকে নির্মিত মোতি মসজিদ বা মুক্তার মসজিদ।[২][৩]

আগ্রার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে আছে ১৯২৭ সালে স্থাপিত আগ্রা বিশ্ববিদ্যালয়, ১৯৮১ সালে স্থাপিত দয়ালবাগ এডুকেশনাল ইন্সটিটিউট এবং একটি মেডিক্যাল কলেজ।

মুঘল সম্রাট আকবর ১৫৬৬ সালে বর্তমান আগ্রা শহরটি প্রতিষ্ঠা করেন।[১][২] অল্পদিনেই এটি সংস্কৃতি ও জ্ঞানচর্চার একটি কেন্দ্রে পরিণত হয়। ১৬৪৮ সাল পর্যন্ত এটি মুঘল সাম্রাজ্যের রাজধানী ছিল।[২] ঐ বছর সম্রাট আওরঙ্গজেব রাজধানী দিল্লীতে সরিয়ে নেন। ১৮০৩ সালে আগ্রা ব্রিটিশদের পদানত হয়। ১৮২৫ সাল থেকে এটি একটি প্রাদেশিক রাজধানী ও প্রশাসনিক কেন্দ্র হিসেবে ভূমিকা পালন করে আসছে।

তথ্যসুত্র[উৎস সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ ১.২ মুঘলদের আগ্রা
  2. ২.০ ২.১ ২.২ ২.৩ উত্তরপ্রদেশ
  3. তাজমহলে পায়রার প্রেম