বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ওয়ার্ল্ড হেরিটেজের প্রতীক

বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান বা ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান বিশেষ ধরণের (বন, পাহাড়, হ্রদ, মরুভূমি, স্মৃতিস্তম্ভ, দালান, প্রাসাদ বা শহর) একটি স্থান যা ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃত ও প্রণীত বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের তালিকায় লিপিবদ্ধ হয়েছে।

২০১৫ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত বাংলাদেশের পাহাড়পুরের বৌদ্ধবিহার এবং বাগেরহাটের ষাটগম্বুজ মসজিদ এ দুটিঐতিহাসিক স্থানকে তালিকায় লিপিবদ্ধ হয়েছে। এছাড়া আরো পাঁচটি স্থানকে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েেএই তালিকায় অন্তর্ভুক্তির আবেদন করা হয়েছে (২০১৬ পর্যন্ত) যথা মহাস্থানগড়, লালমাই-ময়নামতি, লালবাগ কেল্লা, হলুদ বিহার এবং জগদ্দল বিহার। তদুপরি সুন্দরবনকে প্রাকৃতিক বিশ্ব ঐতিহ্য হিসাবে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে।

নির্বাচন প্রক্রিয়া[সম্পাদনা]

এ বিষয়ে ইউনেস্কোর একটি প্রকল্প রয়ে যার নাম আন্তর্জাতিক বিশ্ব ঐতিহ্য প্রকল্প। এই প্রকল্পের আওতায় ২১টি রাষ্ট্র নিয়ে গঠিত বিশ্ব ঐতিহ্য কমিটি এই তালিকা প্রণয়নের কাজটি করে থাকে। এই সদস্য দেশগুলোকে প্রকল্পের স্টেট পার্টি বলা হয়। সদস্য দেশগুলো জেনারেল এসেম্বলি অফ স্টেট পার্টিস কর্তৃক একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য নির্বাচিত হয়। [১] এই কমিটি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের অনুরূপ।

এই প্রকল্পের কাজ হল বিশ্বের নানা স্থানে ছড়িয়ে থাকা অনন্যসাধারণ সাংস্কৃতিক ও প্রাকৃতিক গুরুত্ববিশিষ্ট স্থানসমূহ চিহ্নিত করা এবং তা একটি বৈশ্বিক তালিকায় নাম লিপিবদ্ধ করা। একইসঙ্গে তালিকাভূক্ত স্থানসমূহকে শ্রেণীভুক্ত করা হয়ে থাকে। ২০০৬ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত এ ধরণের মোট ৮৩০টি স্থানের নাম বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের তালিকায় লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৬৪৪টি সাংস্কৃতিক, ১৬২টি প্রাকৃতিক এবং ২৪টি মিশ্র শ্রেণীর। মোট ১৩৮টি রাষ্ট্রে এই স্থানগুলো অবস্থিত।

ইউনেস্কোর নীতি অনুসারে প্রতিটি ঐতিহ্যবাহী স্থানের একটি পরিচয়বাহী নম্বর দেওয়া হয়। বর্তমানে এই নম্বরের সংখ্যা ১২০০ ছাড়িয়ে গেছে যদিও স্থানের সংখ্যা আরও কম। প্রতিটি ঐতিহ্যবাহী স্থানের সমুদয় সম্পত্তি ও জমির মালিক ঐ স্থানটি যে দেশে অবস্থিত সেই দেশ। তবে এই স্থানগুলো রক্ষার দায়িত্ব বর্তায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উপর। তাই বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান প্রকল্পের আওতাভুক্ত সকল রাষ্ট্রই প্রতিটি স্থান রক্ষার ব্যাপারে ভূমিকা নিতে পারে। কিছু বিশেষ শর্তসাপেক্ষে এই স্থানগুলোর রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ইউনেস্কো গঠিত বিশ্ব ঐতিহ্য ফান্ড থেকে অর্থ সাহায্য দেয়া হয়।

নির্বাচন মানদণ্ড[সম্পাদনা]

২০০৪ সাল পর্যন্ত, সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের জন্য ছয়টি এবং প্রাকৃতিক ঐতিহ্যের জন্য চারটি মানদণ্ড ছিল। ২০০৫ সালে, দশটি মানদণ্ড মিলিয়ে একটি সেট করা হয়েছে। মনোনয়নপ্রাপ্ত সাইট "অসামান্য সার্বজনীন মান" এর হতে হবে এবং দশটি মানদণ্ডের নুন্যতম একটি শর্ত পূরণ করতে হবে।[২]

সাংস্কৃতিক মানদণ্ড[সম্পাদনা]

  1. মানুষের সৃজনশীল প্রতিভার সেরা শিল্পকর্ম
  2. স্থাপত্য বা প্রযুক্তি, স্মারক শিল্পকলা, শহরে-পরিকল্পনা বা আড়াআড়ি নকশা উন্নয়ন, দীর্ঘ ব্যাপ্তিকাল বা বিশ্বের একটি সাংস্কৃতিক যুগের মধ্যে, মানবিক মূল্যবোধের গুরুত্বপূর্ণ অবস্থা প্রদর্শন করা;
  3. একটি সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, যা বর্তমানে আছে বা হারিয়ে গেছে, যা একটি সভ্যতার অনন্য বা অন্তত ব্যতিক্রমী সাক্ষ্য বহন করে;
  4. একটি ঐতিহ্যগত মানুষের নিষ্পত্তির, ভূমি ব্যবহার, বা সমুদ্রের ব্যবহারের একটি অসামান্য উদাহরণ, যেটি পরিবেশের সঙ্গে একটি সংস্কৃতি বা মানুষের সঙ্গে পরিবেশের যোগাযোগ প্রতিনিধিত্ব করে বিশেষত অপরিবর্তনীয় পরিবর্তন প্রভাব অধীনে ধংসপ্রবন।
  5. সরাসরি বা বাস্তব ঘটনা বা জীবিত ঐতিহ্য, ধারনা, বা বিশ্বাস, যার সাথে শৈল্পিক ও সাহিত্যের অসামান্য সার্বজনীন তাত্পর্য যুক্ত

প্রাকৃতিক মানদণ্ড[সম্পাদনা]

  1. মহীয়ান প্রাকৃতিক শক্তি বা ব্যতিক্রমী প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এবং নান্দনিক গুরুত্ব রয়েছে
  2. পৃথিবীর ইতিহাসের প্রধান প্রধান যুগের প্রতিনিধিত্বমূলক অসামান্য উদাহরণ,যার মধ্যে জীবনের ইতিহাস, গুরুত্বপূর্ণ চলমান মহাদেশ উন্নয়নের ভূতাত্ত্বিক প্রক্রিয়া, বা গুরুত্বপূর্ণ ভূ-প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্য
  3. চলমান উদ্ভিদ ও প্রাণীর পরিবেশগত ও জৈব বিবর্তন এবং স্থলজ, বিশুদ্ধ জল, উপকূলীয় ও সামুদ্রিক পরিবেশ উন্নয়ন প্রক্রিয়া, এবং উদ্ভিদ ও প্রাণী সম্প্রদায়ের গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকার অসামান্য উদাহরণ
  4. বিজ্ঞান বা সংরক্ষণ দৃষ্টিকোণ থেকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং উল্লেখযোগ্য প্রাকৃতিক আবাসস্থল সংরক্ষন বিশেষত জৈব বৈচিত্র্য ইন-সিটু, জীব বৈচিত্র্য হুমকি প্রজাতির ধারণকারী এলাকা সংরক্ষণ।


পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

অঞ্চল এবং তাদের শ্রেণীবিভাগ অনুযায়ী স্থানের তালিকাঃ[৩][৪]

জোন / অঞ্চল প্রাকৃতিক সাংস্কৃতিক সম্মিলিত মোট
ইউরোপ ও আমেরিকা ৬৮ ৪১৭ ১১ ৪৯৬[৫]
এশিয়া ও প্যাসিফিক ৫৫ ১৪৮ ১০ ২১৩[৫]
ল্যাতিন আমেরিকা এবং ক্যারিবীয় ৩৬ ৯১ ১৩০
আফ্রিকা ৩৯ ৪৮ ৯১
আরব রাজ্য ৬৭ ৭৪
মোট ২০৩ ৭৭১ ৩০ ১০০৪
পুনরাবৃত্তি* ১৫ ২৬ ৪২
সর্বমোট ১৮৮ ৭৪৫ ২৯ ১০০৭

* অনেক স্থান একাধিক দেশে অবস্থিত।

অঞ্চলভিত্তিক স্থান[সম্পাদনা]

নোট: শুধুমাত্র দশ বা তার বেশি স্থানের অধিকারী দেশ দেখানো হয়েছে,

  • বাদামী: ৪০ বা আরো বেশী ঐতিহ্য স্থানের দেশ
  • হালকা বাদামী: ৩০ - ৩৯ ঐতিহ্য স্থানের দেশ
  • কমলা: ২০-২৯ ঐতিহ্য স্থানের দেশ
  • নীল: ১৫-১৯ ঐতিহ্য স্থানের দেশ
  • সবুজ: ১০-১৪ ঐতিহ্য স্থানের দেশ

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "About World Heritage"। World Heritage। সংগৃহীত ২০০৬-১০-১৪ 
  2. "Criteria for Selection"। World Heritage। সংগৃহীত ১৪ অক্টোবর ২০০৬ 
  3. Stats
  4. World Heritage List
  5. ৫.০ ৫.১ The Uvs Nuur basin located in Mongolia and Russia is here included in Asia-Pacific zone.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]